লাল বলেই যত মনযোগ মিরাজের

মেহেদী হাসান মিরাজ

বয়সভিত্তিক, হাই পারফরম্যান্স,  ‘এ’ দল মিলিয়ে বেশ ব্যস্ত সময় পার করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট।  শ্রীলঙ্কাতে ‘এ’ দলের চারদিনের ম্যাচ খেলে আসা মেহেদী হাসান মিরাজ দেশে ফিরেই জিমে কাজ শুরু করেছেন। ‘এ’ দলের শ্রীলঙ্কার সফর ভারত সফরে বেশ কাজে দিবে বলে মনে করেন এই অলরাউন্ডার।

টানা খেলার ক্লান্তিতে খুলনার হয়ে এনসিএলের প্রথম রাউন্ড খেলছেননা। মিরপুরে জিমনেশিয়ামে আজ (৯ অক্টোবর)  সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে জানিয়েছেন লঙ্কা সফরে নিজের উন্নতির কথা, ‘শ্রীলঙ্কাতে খেলা আমাদের জন্য অনেক ভালো হয়েছে। দুইটা চারদিনের ম্যাচ খেলার সুযোগ হয়েছে আমার। আমি মনে করি এটা আমার লাইন লেন্থ, ঠিক জায়গায় বল করার ক্ষেত্রে কিছু জায়গায় উন্নতি করার ছিল। আমার কিছু জায়গায় ভুল হচ্ছিল, দুটো ম্যাচে এসব জায়গায় উন্নতি হয়েছে আশাকরি। সামনে আরও খেলা আছে,  এনসিএল আছে আশাকরি আরও উন্নতি হবে।’

বৃষ্টির কারণে লঙ্কা সফরে ‘এ’ দলের সূচী আর ভেন্যুতেও আসে পরিবর্তন। এরপর ড্র হওয়া দুই ম্যাচ থেকে দলের প্রাপ্তি সম্পর্কে বলতে গিয়ে মিরাজ বলেন, ‘বৃষ্টির কারণে হয়তো আমাদের একটু সমস্যা হয়েছে। তবে সব মিলিয়ে আমাদের ক্রিকেটাররা ভালো প্রস্তুতি নিতে পেরেছে। সামনে আমাদের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ আছে সেক্ষেত্রে শ্রীলঙ্কায় চারদিনের ম্যাচ দুটি বেশ কাজে দিয়েছে। আমি খেলেছি, সৌরভ ভাই (মুমিনুল হক) খেলেছে,  সাদমান, মিঠুন ভাই খেলেছে বলা যায় টেস্ট দলের প্রায় ক্রিকেটারই খেলেছে। সবাই ভালো অনুশীলনের মধ্যে ছিল যেটা আমাদের পরবর্তী ধাপে কাজে দিবে।’

‘শ্রীলঙ্কাতে আমি অনেক বল করেছি, সৌরভ ভাই সেঞ্চুরি পেল, সাদমান রান পেয়েছে। আমি আশাকরি পরবর্তী সিরিজের জন্য এসব বাড়তি অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে।’

টেস্ট-ওয়ানডেতে ধারাবাহিক পারফর্ম করলেও টি-টোয়েন্টিতে বল হাতে বিবর্ণ মিরাজ।  ১৩ ম্যাচে মাত্র উইকেট ৪ টি, বাদ পড়েছেন সবশেষ ত্রিদেশীয় সিরিজ থেকেও।  কীভাবে দেখছেন মিরাজ? ২২ ছুঁইছুঁই মিরাজ বলছেন, ‘আমি মনে করি আমার লাল বলে আরও ফোকাস কর‍তে হবে। সামনে আমাদের অনেকগুলো টেস্ট ম্যাচ আছে। আমারও সময়টাও টেস্টে খুব ভালো যাচ্ছিলনা, এলোমেলো বল করছিলাম। সেক্ষেত্রে হয়তো এখানে (লাল বলে) বাড়তি মনযোগ দেওয়ার জন্যই  এভাবে চিন্তা করেছে।’

টিম ম্যানেজমেন্টর সিদ্ধান্তে সমর্থন দেওয়া মিরাজ অবশ্য বলছেন প্রস্তুত থাকেন যেকোন ফরম্যাটে খেলার জন্য, ‘আসলে টিম ম্যানেজমেন্টই ভালো বুঝবে কোথায় আমার উন্নতির জায়গা আছে। তারা যে সিদ্ধান্ত নিবে আমাকে সেটাতেই  সায় দিতে হবে। তারা হয়তো ভাবছে আমার টেস্ট ক্রিকেটে আরও বেশি সময় দিতে হবে। তবে আমি প্রস্তুত থাকি সবসময় যেকোন ফরম্যাটে খেলার জন্য। সুযোগ আসলে চেষ্টা করবো।’

অ্যাডমিন

Read Previous

শ্রীলঙ্কায় বড় হার দিয়ে ওয়ানডে মিশন শুরু ‘এ’ দলের

Read Next

তামিমের কাছে প্রত্যাশা কম মুমিনুলের

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।