রাব্বিকে বার্তা দিয়ে রেখেছেন তার বাবা-মা

ইয়াসির আলি চৌধুরী রাব্বি

যখন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের স্কোয়াড ঘোষণা হয় তখন কক্সবাজার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বিসিএল খেলতে মাঠে ইয়াসির আলি রাব্বি। প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেলে ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোনকে এনে দিয়েছেন লিড। আগেরদিন ১৩৪ রানে অপরাজিত থাকা ইয়াসির আলি তৃতীয় দিন লাঞ্চের আগে আউট হওয়ার আগে করেন ১৬৫ রান। দিনের খেলা শেষেই জানতে পারেন টেস্ট দলে জায়গা পাওয়ার ব্যাপারটা। ম্যাচের ধকল সামলিয়ে খুশি মনে রাতে ঘুমোতে যান রাব্বি।

১৭ ফেব্রুয়ারি আবার নামতে হয় মাঠে, দ্বিতীয় ইনিংসে দলের প্রয়োজনে চারদিনের ম্যাচেই খেলেন টি-টোয়েন্টি স্টাইলে। তার ৭৮ বলে ঝড় তোলা সেঞ্চুরিতে দল পায় ৮ উইকেটের জয়। ব্যাক টু ব্যাক সেঞ্চুরিতে টেস্ট দলে জায়গা পাওয়াটা বেশ দারুণভাবেই উদযাপন করেছেন চট্টগ্রামের এই ব্যাটসম্যান।

হাই পারফরম্যান্স ও বিপিএলের পঞ্চম আসরে ভালো করার সুবাদে জায়গা হয় ২০১৯ বিশ্বকাপের আগে আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজে। একাদশে সুযোগ না পাওয়া ২৩ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার এরপর আর জাতীয় দলের কোন সংস্করণেই ডাক পাননি। এবারের বিপিএলটা ভালো যায়নি, খুব একটা ভালো করতে পারেননি ইমার্জিং এশিয়া কাপেও, ঠিক নিজের ছন্দে ছিলেন না সবশেষ জাতীয় লিগেও। কিন্তু নিজের ব্যাটিং সামর্থ্যের প্রমাণ লম্বা সময় ধরেই দিয়ে আসছেন এই রাব্বি। চলতি বিসিএলেই ৫ ইনিংসে রান করেছেন ৯৬ গড়ে ৩৮৪।

টেস্ট দলে ডাক পাওয়ার অনুভূতি জানাতে গিয়ে ক্রিকেট৯৭ কে মুঠোফোনে ইয়াসির আলি বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ অনেক বেশি আনন্দিত। কারণ জাতীয় দলের জার্সিতে খেলার স্বপ্নেই ক্রিকেটে আসা। একাদশে সুযোগ পাবো কিনা সেটা নিয়ে ভাবছিনা। তবে টেস্টের মত এতবড় মঞ্চে সুযোগ পাওয়া অনেক বড় পাওয়া আমার জন্য। সুযোগ পেলে অবশ্যই নির্বাচকদের আস্থার প্রতিদান দিতে চাই।’

বিসিএলের সবশেষ ম্যাচে ব্যাক টু ব্যাক সেঞ্চুরি। প্রথম ইনিংসে পরিস্থিতির দাবি মেটাতে গিয়ে খেলেছেন টেস্ট মেজাজে। ১৬৫ রানের ইনিংসটি আবার ক্যারিয়ার সেরাও। অন্যদিকে দ্বিতীয় ইনিংসে দলের প্রয়োজনেই খেলেছেন টি-টোয়েন্টি মেজাজে। জাতীয় দলে ডাক পাওয়ার আগে ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেলা ও পরেরদিন আবারও সেঞ্চুরি হাঁকানো সম্পর্কে জানতে চাইলে এই ব্যাটসম্যান বলেন, ‘ক্যারিয়ারের সেরা ইনিংস খেলেছি, ভালো লাগছে। সবচেয়ে বড় ব্যাপার দলের প্রয়োজনে খেলতে পেরেছি। প্রথম ইনিংস ও দ্বিতীয় ইনিংসের প্রেক্ষাপট ভিন্ন ছিল, দুই ইনিংসেই দলের প্রয়োজনে লেগেছে আমার সেঞ্চুরি দুটো।’

‘প্রথম ইনিংসে টেস্ট মেজাজে খেলেছি, তখন সেটা দরকার ছিল। অনেক বেছে বেছে খেলতে হয়েছে। অপেক্ষা করেছি, বাজে বল পেলে মেরেছি। তবে দ্বিতীয় ইনিংসে জয়ের জন্য দ্রুত রান তোলার দরকার ছিল। তাই বেশি শট খেলতে হয়েছে, ব্যাটে-বলে হয়েছে বাউন্ডারিও এসেছে। সবমিলিয়ে ভালো লাগছে এমন দুটো ইনিংস খেলতে পেরে যা দলের জয়ে ভূমিকা রেখেছে।’

টেস্ট স্কোয়াডে ডাক পাওয়ার পর স্বাভাবিকভাবেই পরিবারের সাথে কথা হয় ইয়াসিরের। খুশি হওয়ার পাশাপাশি পরিবার তাকে দিয়ে দিয়েছে বার্তাও, ‘হ্যা আব্বু আম্মু অনেক খুশি। তবে তারা আমাকে বার্তা দিয়ে রেখেছে। তাদের কথা হল এখনই কিছু হয়ে যায়নি, মাত্র ডাক পেয়েছো, নিজেকে স্বাভাবিক রাখো। সুযোগ পেলে নিজের খেলাটাই খেলবা। মনে রাখবা স্বাধীনতা অর্জনের চাইতে রক্ষা করা কঠিন। সুযোগ পেলে সেটা যেন ধরে রাখতে পারো।’

ব্যাটে নিয়মিতই রান দেখা যায় তবে ফিটনেস ইস্যুতে বরাবরই সমালোচিত এই ক্রিকেটার। নিজের ফিটনেস ঘাটতির ব্যাপারটি স্বীকার করে নিয়ে জানিয়েছেন কাজ করছেন স্কিল, ফিটনেস দুটো নিয়েই, ‘হ্যা আমার এই (ফিটনেস) জায়গাটায় একটু ঘাটতি আছে তবে আমি এটা নিয়ে বেশ কাজ করছি এখন। স্কিল ও ফিটনেস দুটোতেই ভালোভাবে মনযোগ দিচ্ছি। এ নিয়ে বেশ খাটছিও।’

‘আশা করি এর সুফল পাবো। দেখেন রাতারাতি নিজেকে বদলে ফেলাটা আসলে খুব কঠিন কাজ, সেটা সম্ভবও নয়। তবে আমি পুরো মনযোগ দিয়েছি এ জায়গাটাতে। আশা করছি আস্তে আস্তে উন্নতি হবে।’

আগের বার ওয়ানডে স্কোয়াডে ডাক পেলেও জায়গা হয়নি একাদশে। এবার ডাক পেলেন স্বপ্নের টেস্ট স্কোয়াডে। এমনিতেই ১৬ সদস্যের দল তার উপর সিরিজে টেস্ট মাত্র একটি। এমন জটিল সমীকরণ পেরিয়ে একাদশে জায়গা যদি মিলেই যায় অভিষেক টেস্ট নিয়ে কোন পরিকল্পনা করেছেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে রাব্বির বলেন, ‘না বিশেষ কোন পরিকল্পনা নেই। একদম স্বাভাবিক খেলাটাই খেলে যেতে চাই। কোন বাড়তি চাপ নয়, উপভোগ করতে চাই।’

আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার শুরুর অপেক্ষায়। জাতীয় দলের জার্সি গায়ে জড়ালে নিজেকে ক্যারিয়ার শেষে নিজেকে বিশ্বসেরাদের কাতারে দেখতে চান ইয়াসির আলি রাব্বি, ‘ক্যারিয়ার এখনো শুরু হয়নি, স্বপ্ন একটাই জাতীয় দলের হয়ে খেলতে পারা। দেশের হয়ে খেলতে পারার চাইতে বড় কিছু হতে পারেনা। ছোটবেলা থেকেই তো স্বপ্ন বড় মাপের একজন ব্যাটসম্যান হওয়া, বিশ্বের অন্যতম সেরাদের কাতারে থাকা।’

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

জাতীয় দলের সঙ্গে ম্যাচ খেলতে চায় ছাত্রলীগ

Read Next

বিকেএসপিতে যেমন গেলো প্রস্তুতি ম্যাচের ১ম দিন

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
10
Share