যেদিন পান্ডিয়া ভেবেছিলেন ক্যারিয়ার শেষ

সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ভারতীয় দলে নিজের অবস্থান শক্ত করেছেন পেস বোলিং অলরাউন্ডার হার্দিক পান্ডিয়া। তবে চোট কাটিয়ে মাঠে ফেরার অপেক্ষায় থাকা এই অলরাউন্ডার বলছেন এখনই টেস্ট ক্রিকেট তার জন্য চ্যালেঞ্জিং হয়ে উঠবে।

গতবছর পিঠের অস্ত্রোপচার হওয়া পান্ডিয়া বলেন, ‘আমি নিজেকে ব্যাকাপ পেসার হিসেবেই ভাবি। পিঠের অস্ত্রোপচারের পর আমি জানিনা, এখনই বোধ হয় টেস্ট ক্রিকেট চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠবে।’

ভারতের হয়ে রঙিন পোশাকে পান্ডিয়ার গুরুত্ব সবার মত তিনি নিজেও জানেন। আর এ কারণেই এখনই টেস্ট নিয়ে ঝুঁকি নিতে চান না ২৬ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার।

‘আমি যদি টেস্ট ক্রিকেটার হতাম এবং সাদা বলে আমার কোন খেলা না থাকতো তবে আমি খেলতে পারতাম (টেস্ট) ও টেস্ট নিয়ে ঝুঁকি নিতে পারতাম। কিন্তু আমি জানি সাদা বলের ক্রিকেটে আমার গুরুত্ব সম্পর্কে।’

২০১৮ সালের এশিয়া কাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে প্রথম পিঠের চোটে পড়ে স্ট্রেচারে করে মাঠ ছাড়তে হয় পান্ডিয়াকে। ঐ ঘটনার স্মৃতিচারণ করে ভারতীয় অলরাউন্ডার জানান তিনি ভেবেছিলেন তার ক্যারিয়ার ওখানেই শেষ।

হার্দিক পান্ডিয়া
স্ট্রেচারে করে মাঠ ছাড়তে হয় পান্ডিয়াকে (ছবিঃ বিসিসিআই)

‘আমি সত্যিই ভেবেছিলাম যে আমার ক্যারিয়ার শেষ হয়ে গিয়েছে। কারণ আমি কাউকে এভাবে স্ট্রেচারে টানতে দেখিনি। আমি ১০ মিনিটের জন্য ছিটকে গেলাম। এরপর ব্যথা আর কমেনি।’

একটি টিভি শো (কফি উইত কারান) তে নারীদের নিয়ে মন্তব্য করে বেশ সমালোচিত হয়েছিলেন ভারতীয় এই অলরাউন্ডার। আর সেই ভুল তাকে শিখিয়েছে বলেও স্বীকার করে নেন, ‘ঐ ঘটনার পর আমি বুদ্ধিমান হয়েছি। আমি আমার জীবনে ভুল করেছি তবে ভালো দিক হল সেসব থেকে আমি শিখেছি।’

তবে নিজের সেই ভুলের জন্য পরিবারকেও নানা বিব্রতকর অবস্থায় পড়তে হয়েছে যা তাকে ব্যথিত করেছে, ‘আমি যদি ঐ ভুল থেকে না শিখতাম তাহলে এমন আরও অনেক শো তে দেখা যেত। ঐ পর্বটি আমাকে খুব একটা বিরক্ত করেনা কারণ পরিবার হিসেবেই আমরা এটাকে গ্রহণ করে নিয়েছি। কিন্তু যা আমাকে বেশি কষ্ট দেয় তা হল ওই ঘটনার জন্য আমার পরিবারকেও বিভিন্ন সমস্যায় পড়তে হয়েছে।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ওয়েস্ট ইন্ডিজের টেস্ট স্কোয়াড ঘোষণা, দুই নতুন মুখ

Read Next

‘সেরা সময়ের শাহাদাত মাশরাফির চেয়েও ভাল টেস্ট বোলার’

Total
4
Share
error: Content is protected !!