‘যখন খেলতে যাচ্ছি, খেলার জন্য যাচ্ছি’

৪ স্পিনার নিয়ে আগে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

নিউজিল্যান্ডের মাটিতে তাদের বিপক্ষে এখনো কোন জয় পায়নি বাংলাদেশ। আসন্ন সফরে অধরা জয়ের দেখা পাবে কিনা সেটা সময়ই বলবে। তার আগে টাইগারদের জন্য চিন্তার বিষয় ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন। যেখানে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনের প্রথম ৬ দিন থাকতে হবে একদম গৃহিবন্দী। একদিকে বিরুদ্ধ কন্ডিশন অন্যদিকে কড়া কোয়ারেন্টাইন নিয়ম। বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস বলছেন কন্ডিশন যেমনই হোক খেলতেই যাচ্ছে বাংলাদেশ।

করোনা পরবর্তী এটিই বাংলাদেশের প্রথম বিদেশ সফর। সমান তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলবে টাইগাররা। নিউজিল্যান্ডের উদ্দেশ্যে আজ (২৩ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে সিঙ্গাপুর এয়ারওয়েজের একটি বিমানে দেশ ছাড়বে তামিম ইকবাল, মুশিফিকুর রহিমরা।

এর আগে দেশের মাটিতে বায়ো বাবলের মধ্য থেকে খেলার অভিজ্ঞতা আছে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের। তবে এক সপ্তাহ একদমই ঘরবন্দী জীবনের অভিজ্ঞতা এবারই প্রথম হবে। যেখানে নিজের ঘর গুচজানোর কাজটাও নিজেদেরই করতে হবে ক্রিকেটারদের।

এমন পরিস্থিতিতে দলের সফর সঙ্গী বোর্ড পরিচালক ও মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস মনে করেন কন্ডিশন যেমনই হোক খেলতেই যাচ্ছে বাংলাদেশ। তাদের ভাবনার জায়গায় আপাতত ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন। ক্রিকেটারদের মানসিকভাবে চাঙ্গা রাখতে দলের সঙ্গী হচ্ছেন বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীস চৌধুরী।

গতকাল (২২ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে মিরপুরে জালাল ইউনুস বলেন, ‘কন্ডিশন ভালো না খারাপ সেটা বলতে পারবো না। যখন খেলতে যাচ্ছি, খেলার জন্য যাচ্ছি। আপনি ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থেকে খেলবেন, এটা একটা বড় চ্যালেঞ্জ। বিশেষ করে সাতদিন রুম কোয়ারেন্টাইন। এইটা নিয়ে আমরা সবাই চিন্তিত আছি। আমাদের সাথে ডাক্তাররা আছেন।’

‘যারা রুমে থাকবেন তাদের প্রতিনিয়ত খবর নেওয়া হবে, তারা কেমন অনুভব করছেন। আমাদের প্রধান চিকিৎসক (দেবাশীস চৌধুরী) ছাড়াও ফিজিও আছেন। মূলত খেলোয়াড়দের বুস্টআপ করার জন্যই ডাক্তার দেবাশীস সঙ্গে থাকবেন। অবশ্যই মানসিক চাপের একটা সিরিজ হবে। তো আশা করি অবশ্যই অনুশীলন সেশন এ আমরা নামলে এ সব দূর হয়ে যাবে। কারণ ১৪ দিন পর আপনি মুক্ত, আপনাকে এখানে মাস্ক পরতে হবে না।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

মেন্টালি টাফ চ্যালেঞ্জে তাসকিনের প্রো অ্যাকটিভ থাকার বার্তা

Read Next

অতীত ভুলে সামনে এগোতে চান জালাল ইউনুস, পরিকল্পনা সাকিবকে ছাড়াই

Total
1
Share