‘বাংলাদেশে সে রকম টি-টোয়েন্টি খেলোয়াড় নেই’

আশরাফুল

আইপিএলে (ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ) বরাবরই বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা কম সুযোগ পেয়ে থাকে। বাস্তবসম্মত কারণেই মূলত ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো আগ্রহ প্রকাশ করেনা। টি-টোয়েন্টি মানের ক্রিকেটারের দেখাই যে বাংলাদেশে সেভাবে পাওয়া যায়না। ২০০৯ মৌসুমে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে খেলা মোহাম্মদ আশরাফুলও জানেন সেই বাস্তবতা।

মোহাম্মদ আশরাফুল, আব্দুর রাজ্জাক, তামিম ইকবাল, মাশরাফি বিন মর্তুজা, সাকিব আল হাসান ও মুস্তাফিজুর রহমানের আছে আইপিএল খেলার অভিজ্ঞতা (তামিম কোন ম্যাচ খেলেননি)। তবে পারফরম্যান্স দিয়ে একের অধিক আসর খেলার সুযোগ হয়েছে কেবল সাকিব আল হাসান ও মুস্তাফিজুর রহমানের।

সবশেষ কয়েক বছর বাংলাদেশি সমর্থকদের জন্য আইপিএল মানেই সাকিব, মুস্তাফিজের ম্যাচ হয়ে পড়ে।

এবারের আইপিএলে নিষেধাজ্ঞার কারণে নেই সাকিব আল হাসান, শ্রীলঙ্কা সফর সামনে রেখে সুযোগ আসলেও অনাপত্তিপত্র না পাওয়ায় নেই মুস্তাফিজুর রহমানও। আইপিএলে বাংলাদেশি ক্রিকেটারের সংখ্যা কম হওয়ার বাস্তব সম্মত ব্যাখ্যা অবশ্য দিয়েছেন আশরাফুল।

আনন্দবাজারকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সাবেক বাংলাদেশ অধিনায়ক বলেন, ‘সাকিব একটা সময়ে আইপিএল মাতিয়েছে। এবার ও নেই। খুব ভাল ভাবে বিশ্লেষণ করলে দেখবেন, বাংলাদেশে সে রকম টি-টোয়েন্টি খেলোয়াড়ও নেই।’

আইপিএলের মত ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টুর্নামেন্টে জায়গা পেতে টি-টোয়েন্টি সুলভ স্ট্রাইকরেটে ঝড়ো ইনিংস খেলার সামর্থ্য থাকতে হয় বলে মত আশরাফুলের। বাংলাদেশ নিয়মিত টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেনা বলেই এমন ক্রিকেটারের সংখ্যা কম, এমনটাই মনে করেন টাইগারদের প্রথম বৈশ্বিক তারকা।

এ প্রসঙ্গে আশরাফুল বলেন, ‘বাংলাদেশ টি টোয়েন্টি ফরম্যাটের ক্রিকেট কম খেলে। তা ছাড়া অল্প কয়েকটা টি টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে জায়গা পাওয়া যায় না।’

‘আইপিএল-এর মতো টুর্নামেন্টে জায়গা পেতে হলে অনেকগুলো শর্ত পূরণ করতে হয়। প্রথমত খুব ভালো স্ট্রাইক রেট হতে হয়। তামিম ইকবালও দুর্দান্ত ক্রিকেটার। কিন্তু অধিকাংশ ফ্র্যাঞ্চাইজির কোচই বিদেশি। তাঁরা আবার তাঁদের চেনা, পছন্দের ক্রিকেটারকেই দলে পেতে চান। ফলে আমাদের খেলোয়াড়দের দল পাওয়া কঠিন হয়ে যাচ্ছে।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে ফিরছেন স্মিথ!

Read Next

৬২ টি পদে ছাঁটাইয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসিবি

Total
3
Share
error: Content is protected !!