প্রিমিয়ার লিগে নিজেদের দ্বিতীয় জয় পেলো ব্রাদার্স

ছবিঃ সংগ্রহীত

রবিবার নিজেদের পঞ্চম ম্যাচে খেলাঘরকে ৭১ রানের বড় ব্যবধানে পরাজিত করে লিগে নিজেদের দ্বিতীয় জয় ছিনিয়ে আনলো ব্রাদার্স ইউনিয়ন। মাইশুকুর রহমানের অপরাজিত অর্ধশতক ব্রাদার্সের জয়ে রেখেছে অসামান্য অবদান।

যদিও ব্যাট হাতে খেলাঘর ওপেনার নাজিমুদ্দিনের চেষ্টা ছিল দলকে জয়ের রাস্তায় নিয়ে যাওয়ার কিন্তু বাকী ব্যাটসম্যানদের আসা যাওয়ার মিছিলে সেটা সম্ভব হয়নি। ১,৪,৪,৪,৫,২; না কোন টেলিফোন ডিজিট নয় খেলাঘরের মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের সংগ্রহটাই ছিল এমন। ১০০ বলে নাজিমুদ্দিন দলীয় সর্বোচ্চ ৬৮ রান করেন ২ চার আর ২ ছয়ে।

লেজের দিকে এসে পরাজয়ের ব্যবধান কমানো এক অর্ধশতক উপহার দেন পেসার ডলার মাহমুদ। ৫৯ বলে তার সংগ্রহ অপরাজিত ৫৩ রান। গত ম্যাচের সেরা ক্রিকেটার স্পিনার নিহাদুজ্জামান এই ম্যাচেও শিকার করেন তিন উইকেট। তার সাথে অলোক কাপালি এবং মানভিন্দর বিসলার দুটি করে উইকেট নিলেও খেলাঘরকে অলআউট করতে পারেনি ব্রাদার্স। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে খেলাঘরের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৯৬ রানে। আর তাতেই ৭১ রানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ব্রাদার্স।

খেলাঘরের হয়ে নিজের সামর্থ্যের পুরোটা দিয়ে চেষ্টা করেছিলেন নাজিমুদ্দিন কিন্তু দলের বাকী ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ৬৮ রানের ইনিংসটি কাজে আসেনি।

এর আগে সকালে বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে খেলাঘর কাপ্তান নাফিস ইকবাল টস জিতে ব্রাদার্সকে পাঠায় ব্যাটিংয়ে। জুনাইদ সিদ্দিকি দ্রুত ফিরে গেলেও ফরহাদ হোসেন আরেক উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান মিজানুর রহমানকে নিয়ে দলের ভিত মজবুত করেন। মিজানের পতনের পর উইকেটে আসা মাইশুকুর রহমানই মূলত ব্রাদার্সকে এনে দেন চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ। তার অপরাজিত ৮৪ রান আর ফরহাদ হোসেনের ৬৭ রানই ছিল ব্রাদার্সের ইনিংসের ভিত।

৯০ বলে ৫ চার আর ৩ ছয়ে মাইশাকুর অপরাজিত থাকেন ৮৪ রানে। আর ৮৩ বলে ৬৭ রান করে সাজঘরে ফেরেন ফরহাদ হোসেন। যদিও শেষের দিকে উইকেটরক্ষক ধিমান ঘোষের ২১ বলে ঝড়ো ৪২ রানও ভূমিকা রেখেছে বড় স্কোরের পেছনে। নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে খেলাঘরকে ব্রাদার্স ইউনিয়ন ছুঁড়ে দেয় ২৬৮ রানের লক্ষ্যমাত্রা। ব্রাদার্সের পতন হওয়া ছয় উইকেটের তিনটি নিজের ঝুলিতে পুরেন তানভির ইসলাম।

অপরাজিত এবং সময়োপযোগী এক ইনিংসের খাতিরে ম্যান অফ দ্য ম্যাচের পুরষ্কার যায় ব্রাদার্স অলরাউন্ডার মাইশুকুরের হাতেই।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

ব্রাদার্স ইউনিয়নঃ ২৬৭/৬ (৫০ ওভার) মাইশাকুর রহমান ৮৪*, ফরহাদ হোসেন ৬৭, ধীমান ঘোষ ৪২*। তানভির ইসলাম ৩/৪৯

খেলাঘরঃ ১৯৬/৯ (৫০ ওভার) নাজিমুদ্দিন ৬৮, ডলার মাহমুদ ৫৩*। নিহাদুজ্জামান ৩/৩৭, মানভিন্দর বিসলা ২/২৪, অলোক কাপালি ২/২৪

ফলাফলঃ ব্রাদার্স ইউনিয়ন ৭১ রানে জয়ী।

ম্যান অফ দ্যা ম্যাচঃ মাইশুকুর রহমান (ব্রাদার্স ইউনিয়ন)

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

হঠাৎ দেশে ফিরছেন মাশরাফি

Read Next

ডেয়ারডেভিলসদের ভূতুড়ে স্কোর, পাঞ্জাবের জয় ১০ উইকেটে

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Total
0
Share