ন্যাশনাল টি-টোয়েন্টি কাপের চ্যাম্পিয়ন খাইবার পাখতুন

ন্যাশনাল টি-টোয়েন্টি কাপের চ্যাম্পিয়ন খাইবার পাখতুন

পর্দা নামলো পাকিস্তানের ঘরোয়া টুর্নামেন্ট ন্যাশনাল টি-টোয়েন্টি কাপের। শোয়েব মালিকের দুর্দান্ত ফিফটির পর ওয়াহাব রিয়াজ ও শাহীন শাহ আফ্রিদির বিধ্বংসী বোলিং পারফর্ম্যান্সে চ্যাম্পিয়ন খাইবার পাখতুন।

সাউর্দান পাঞ্জাব ১০ রানে পরাজিত হয় খাইবার পাখতুনের কাছে। টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ও উইকেট শিকারির তালিকার দু’জনই খাইবার পাখতুনের। ব্যাট হাতে ফখর জামান করেন সর্বমোট ৪২০ রান। শাহীন শাহ আফ্রিদির ঝুলিতে মোট ২০ উইকেট।

ফাইনালের ভেন্যু রাওয়ালপিন্ডিতে এদিন টস হেরে আগে ব্যাট করে খাইবার পাখতুন। ফখর জামান ও মোহাম্মদ রিজওয়ানের উদ্বোধনী জুটিতেই খাইবারের স্কোরবোর্ডে আসে ৭৬ রান। তবে ৩০ বলে ২৫ করা রিজওয়ান সাজঘরে ফেরেন রান আউটে কাটা পড়ে।

এরপর ফখর জামান সঙ্গ পায় মোহাম্মদ হাফিজের। ৪৭ রানের এই জুটি ভাঙে ফখর জামানের বিদায়ে। ৪০ বলে ৭ চার ও ৩ ছয়ে ৬৭ রানের ইনিংস খেলেন এই ওপেনার। কিন্তু ইনিংস বড় হয়নি হাফিজের, ২৮ বলে করেন ৩৬ রান।

দলকে বড় সংগ্রহের পথে নিয়ে যেতে একাই লড়েন শোয়েব মালিক। তার বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ের সামনে এদিন দিশেহারা সাউর্দান পাঞ্জাবের বোলাররা। শোয়েব মালিক অপরাজিত থাকেন ২২ বলে ৫৬ রান করে। আর তাতেই ২০৬ রানের পাহাড়সম সংগ্রহ পায় খাইবার পাখতুন।

বড় লক্ষ্যের বিপরীতে এসে সাউর্দান পাঞ্জাবের ইনিংস বাজে ভাবে শুরু। ওয়াহাব রিয়াজ আর শাহীন শাহ আফ্রিদির গতি ও বাউন্সে ব্যাটসম্যানরা উইকেটে ঠিকমতো লড়াই করতে পারেনি। পাওয়ার-প্লে’র ৬ ওভারের মধ্যেই ৩ উইকেট নেই সাউর্দান পাঞ্জাবের। ওপেনার শান মাসুদ করেন ৭ আর শোয়েব মাকসুদ ডাক। ১৬ রান করা জিশান আশরাফকে ফেরান ওয়াহব রিয়াজ।

এরপর অবশ্য সাউর্দান পাঞ্জাব স্বস্তিতে ফেরে খুশদিল শাহ ও হুসাইন তালাতের ব্যাটে। তবে ৩৪ রানে খুশদিল আউট হলে ভেঙে যায় তাদের ৭৪ রানের জুটি। ৩৩ বলে ৬৩ রানের ঝড়ো ইনিংস আসে হুসাইন তালাতের ব্যাট থেকে। শেষদিকে ১৩ বলে ৩৮ রানের ক্যামিও ইনিংস খেলেও দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দিতে পারেননি মোহাম্মদ ইমরান। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে সাউর্দান পাঞ্জাব ১৯৬ রান সংগ্রহ করে।

খাইবার পাখতুনের হয়ে তিনটি করে উইকেট শিকার করেন ওয়াহাব রিয়াজ ও শাহীন শাহ আফ্রিদি। উসমান ও আসিফ আফ্রিদি ১টি করে উইকেট নেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

খাইবার পাখতুনঃ ২০৬/৪ (২০ ওভার) ফখর ৬৭, রিজওয়ান ২৫, হাফিজ ৩৮, মালিক ৫৬*; আমির ইয়ামিন ১/৩৭, জাহিদ মাহমুদ ১/৩২, ইমরান ১/৫১

সাউর্দান পাঞ্জাবঃ ১৯৬/৮ (২০ ওভার) তালাত ৬৩, খুশদিল ৩৪, ইমরান ৩৮*; ওয়াহাব ৩/৩৬, শাহীন ৩/৩৬, আসিফ ১/২০, উসমান ১/৪৭

ফলাফলঃ খাইবার পাখতুন ১০ রানে জয়ী

ফাইনাল সেরাঃ শোয়েব মালিক (খাইবার পাখতুন)

টুর্নামেন্ট সেরাঃ ফখর জামান (খাইবার পাখতুন)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

কোহলিকে পেছনে ফেলে আইপিএলে ওয়ার্নারের রেকর্ড

Read Next

আতহার আলি খানের স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন মঞ্জুরুল ইসলাম

Total
6
Share
error: Content is protected !!