দাপুটে জয়ের দিনে কপালে ভাঁজ বাড়ালেন সাকিব!

নিজেদের শেষ ম্যাচে বড় লক্ষ্য দিয়ে চ্যালেঞ্জ জানালেও টাইগার ব্যাটসম্যানদের দুর্দান্ত জবাবে ২৯৩ রানও হয়ে গেছে সহজ। ৪২ বল বাকি থাকতেই ৬ উইকেটের জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। ডাবলিনের ম্যালাহাইডে স্বাগতিক দলের বোলারদের ওপর আগ্রাসন চালিয়ে ফিফটি তুলেছেন তামিম ইকবাল, লিটন দাস ও সাকিব আল হাসান। ওয়ানডে ক্রিকেটে নিজের দ্বিতীয় ম্যাচেই পাঁচউইকেট শিকার করলেন রাহি। তবে ফিফটি করার পর দৌড়ে এক রান নিতে যেয়ে কিছুটা ব্যাথা অনুভব করে মাঠ ছাড়েন সাকিব। আপাতত চোটের কি অবস্থা জানা যায়নি।

আগামী ১৭ মে ফাইনালে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে হেসেখেলেই জয় পেল বাংলাদেশ। ২৯৩ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে ৪২ বল হাতে রেখে ৬ উইকেটের জয় পায় টাইগাররা। সাকিব-তামিমদের এটা হ্যাটট্রিক জয়। এর আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে দুই ম্যাচে টানা পরাজিত করে টিম টাইগার্স।

দলের জয়ের ম্যাচে সর্বোচ্চ ৭৬ রান করেন লিটন দাস। এছাড়া ৫৭ ও ৫০ রান করেন তামিম ইকবাল ও সাকিব আল হাসান। তার আগে বোলিংয়ে ৫ উইকেট শিকার করেন আবু জায়েদ রাহি।

বড় রান তাড়া করতে শুরুতে সাবধানী বাংলাদেশ। দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও লিটন দাস শট খেলছেন নিজের জোনে বল পেলে। আইরিশদের বিপক্ষে উদ্বোধনীতে (১১৭) শতরানের জুটি গড়েছেন তামিম ইকবাল ও লিটন কুমার দাস। ত্রিদেশীয় সিরিজের ষষ্ঠ ম্যাচে ২৯৩ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে উড়ন্ত সূচনা করেন তারা। শতরানের জুটি গড়ার পথে দুজনেই জোড়া ফিফটি করেন।

ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৪৬তম ফিফটি করে সাজঘরে ফেরেন তামিম। তার আগে ৫৩ বলে ৯টি চারের সাহায্যে ৫৭ রান করেন বাংলাদেশ সেরা এই ওপেনার।

ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ২৮তম ম্যাচে দ্বিতীয় ফিফটি গড়েন লিটন দাস। লিটন দাস ৬৭ বলে ৭৬ রানের দারুণ একটি ইনিংস খেলে বোল্ড হয়েছেন ম্যাককার্থির বলে।

তবে বাংলাদেশ শিবিরে হাঠাৎই নেমে এলো দুঃসংবাদ। পিঠের ব্যথার কারণে ইনজুরি নিয়ে মাঠ ছেড়েছেন অলরাউন্ডার সাকিব অল হাসান। তিনি ৫১ বলে অপরাজিত ৫০* রান করেন। এটা তার ক্যারিয়ারের ৪২তম হাফ সেঞ্চুরি।

এরপর সিরিজে প্রথমবার একাদশে সুযোগ পাওয়া মোসাদ্দেক আউট হন ১৪ রান করে। মাহমুদউল্লাহ (৩৫*) আর সাব্বির (৭*) দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন।

এর আগে ক্লনটার্ফ ক্রিকেট গ্রাউন্ডে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা আয়ারল্যান্ড ৫৯ রানে হারায় ২ উইকেট। ম্যাককলামকে সাজঘরে পাঠিয়ে প্রথম উইকেট নেন চোট কাটিয়ে ফেরা রুবেল হোসেন। বেলব্রিনেকে ফিরিয়ে ওয়ানডেতে প্রথম শিকারের দেখা পান আবু জায়েদ রাহি।

দলীয় ৫৯ রানের মধ্যে আইরিশরা দুটি উইকেট হারালেও এরপর তৃতীয় উইকেটে প্রতিরোধ গড়েছেন ওপেনার পল স্টার্লিং ও উইলিয়াম পোর্টারফিল্ড।

ফিফটি ছোঁয়ার পর টানা দুই বলে ক্যাচ দিলেন পল স্ট্রার্লিং। দুইবারই ধরতে ব্যর্থ বাংলাদেশ। প্রথম দফায় লংঅনে ক্যাচ ছাড়লেন সাব্বির রহমান, দ্বিতীয় দফায় পয়েন্টে দাঁড়ানো মোহাম্মদ সাফউদ্দিন ছাড়লেন সহজ ক্যাচ। দুজনের শতরানের জুটিতে ৩৩ ওভার শেষে দলটির সংগ্রহ দাঁড়ায় ২ উইকেটে ১৬০ রান।

পোর্টারফিল্ডকে ফিরিয়ে ১৭৪ রানের বড় জুটি ভেঙেছেন আবু জায়েদ রাহী। ডানহাতি পেসারের অফ স্টাম্পের বলে শট খেলতে গিয়ে এক্সট্রা কাভারে লিটন দাসকে ক্যাচ দেন আইরিশ অধিনায়ক। ৬ রানের জন্য সেঞ্চুরি মিস করেছেন পোর্টারফিল্ড। ১০৬ বলে ৭ চার ও ২ ছক্কায় ৯৪ রানের ইনিংসটি সাজান বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। তার বিদায়ের সময় ৪৪ ওভার ৪ বলে আয়ারল্যান্ডের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ২৩৩ রান।

তারপর রাহির আঘাতে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে আয়ারল্যান্ড। এর পরের ওভারে রাহি শিকার করেন আরও দুটি উইকেট। ওভারে তার চতুর্থ বলে লং অনে তামিম ইকবালকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন কেভিন ও’ব্রায়েন। শেষ বলে সবচেয়ে বড় উইকেটটা নেন রাহি। স্লোয়ারে ফেরান সেঞ্চুরিয়ান পল স্টার্লিংকে। ১৪১ বলে ৮ চার ও ৪ ছক্কায় স্টার্লিং করেন ১৩০ রান।
আর তাতেই ওয়ানডে ক্রিকেটে প্রথম ‘পাঁচ’ উইকেট অর্জন করেন পেসার আবু জায়েদ রাহি।

ইনিংসের শেষ ওভারে সাইফুদ্দিনের জোড়া আঘাতে সংগ্রহটা ৩০০’তে নিতে পারেনি আইরিশরা। ফলে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে স্কোরবোর্ডে ২৯২ রান সংগ্রহ করেছে আয়ারল্যান্ড।

97 Desk

Read Previous

রাহির প্রথম ‘পাঁচ’, আইরিশদের ২৯২

Read Next

অনুশীলনে দেরি হলে অভিনব শাস্তির বিধান করেছিলেন ধোনি

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share
error: Content is protected !!