জন্মদিনে ব্র্যাডম্যান সম্পর্কিত তথ্য ও পরিসংখ্যান

বেঁচে থাকলে আজ (২৭ আগস্ট) স্যার ডন ব্র্যাডম্যানের বয়স হতো ১১১। সিডনি থেকে দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে ৩২০ কিলোমিটার দূরে কুটামুন্দ্রার এক নার্সিং হোমে (৮৯, অ্যাডামস স্ট্রিট) ১৯০৮ সালের এই দিনে জন্ম নেন ব্র্যাডম্যান। নিঃসন্দেহে সর্বকালের সর্বসেরা ব্যাটসম্যানের নাম ব্র্যাডম্যান। ব্র্যাডম্যানের জন্মদিনে জেনে নেওয়া যাক ব্র্যাডম্যান সম্পর্কিত কিছু তথ্য ও পরিসংখ্যান।

১৯২৮ সালে ব্রিসবেনে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট ক্যারিয়ার শুরু ব্র্যাডম্যানের। সেই ম্যাচে দুই ইনিংস মিলিয়ে করেছিলেন ১৯ রান (১৮ ও ১)। বাদ পড়েছিলেন পরের ম্যাচেই।

ব্র্যাডম্যানের ক্রিকেট ক্যারিয়ার (সংগ্রহীত ছবি)

৫২ ম্যাচের টেস্ট ক্যারিয়ারে বিস্ময় উপহার দিয়ে গেছেন ক্রিকেট বিশ্বকে। টেস্টে তাঁর ব্যাটিং গড় ৯৯.৯৪। এর ধারেকাছেও নেই অন্য কারো গড়। প্রতি ২.৭৫ ইনিংসেই সেঞ্চুরি করা ব্র্যাডম্যানের অধিকাংশ টেস্ট সেঞ্চুরিই বড়।

স্যার ডন ব্র্যাডম্যানের টেস্ট শতকগুলো- ১১২, ১২৩, ১৩১, ২৫৪, ৩৩৪, ২৩২, ২২৩, ১৫২, ২২৬, ১১২, ১৬৭, ২৯৯*, ১০৩, ৩০৪, ২৪৪, ২৭০, ২১২, ১৬৯, ১৪৪*, ১০২*, ১০৩, ১৮৭, ২৩৪, ১৮৫, ১৩২, ১২৭*, ২০১, ১৩৮, ১৭৩*।

ব্র্যাডম্যানের রেকর্ডসঃ

  • সবচেয়ে বেশি ডাবল সেঞ্চুরি- ১২।
  • এক সিরিজে সবচেয়ে বেশি ডাবল সেঞ্চুরি- ৩ (১৯৩০)।
  • একদিনে সবচেয়ে বেশি রান- ৩০৯, হেডিংলিতে ১৯৩০ সালে।
  • সবচেয়ে বেশি ৫০ কে ১০০ তে রুপান্তরিত করার হার- ৬৯.০৫%।
  • একটি প্রতিপক্ষ দলের বিপক্ষে ৫০০০+ টেস্ট রান করা একমাত্র ব্যাটসম্যান- ৫০২৮, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে।
  • একই সেশনে (দুই বিরতির মধ্যবর্তী সময়ে) ৬ বার ১০০ বা তার বেশি রান- একবার লাঞ্চ বিরতির আগে, দুইবার লাঞ্চ ও চা বিরতির মাঝে, তিনবার চা বিরতি ও দিনের খেলা শেষ হবার মাঝে।
  • ৫ ম্যাচের টেস্ট সিরিজে সর্বোচ্চ ব্যাটিং গড়- ২০১.৫, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে (১৯৩১-৩২)।
  • এক টেস্ট সিরিজে মোট ৭ বার ৫০০ বা তার বেশি রান করেছেন। পরে ব্রায়ান চার্লস লারাও ব্র্যাডম্যানকে এই রেকর্ডে স্পর্শ করেন।
  • টেস্টে ৫ম উইকেট জুটিতে সর্বোচ্চ রান- সিড বার্নসের সঙ্গে ৪০৫ রানের জুটি, ১৯৪৬ সালের ডিসেম্বরে, সিডনিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে।
  • অস্ট্রেলিয়ার হয়ে যেকোন উইকেটে সর্বোচ্চ রানের জুটি- ১৯৩৪ সালে দ্বিতীয় উইকেটে বিল পন্সফোর্ডের সঙ্গে ৪৫১ রানের জুটি গড়েছিলেন ব্র্যাডম্যান, ওভালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে।
সংগ্রহীত ছবি

তথ্যাদিঃ

  • স্যার ডন ব্র্যাডম্যান টেস্ট ম্যাচে কখনো স্টাম্পড হননি।
  • স্যার ডন ব্র্যাডম্যান কখনো কোন কাউন্টি দলের হয়ে খেলেননি। কোন কাউন্টি দলের হয়ে না খেলে ১০০ প্রথম শ্রেণির সেঞ্চুরি করা একমাত্র ক্রিকেটার ব্র্যাডম্যান।
  • স্যার ডন ব্র্যাডম্যান একমাত্র অজি ব্যাটসম্যান যিনি দুইবার একই টেস্টে সেঞ্চুরি ও ডাকের স্বাদ পেয়েছেন।
  • স্যার ডন ব্র্যাডম্যান ১৯৪৯ সালে নাইটহুড উপাধি পেয়েছিলেন। একমাত্র অজি ক্রিকেটার হিসাবে এই সম্মাননা পেয়েছেন ব্র্যাডম্যান। টেস্ট ক্রিকেটার হিসাবে ব্র্যাডম্যানই প্রথম যিনি নাইটহুড উপাধি পেয়েছেন।
  • ২০০০ সালে উইজডেনের বিচারকদের ভোটে ২০ তম শতাব্দীর শ্রেষ্ঠ ক্রিকেটার হিসাবে নির্বাচিত হন স্যার ডন ব্র্যাডম্যান। ১০০ জন বিচারকই ব্র্যাডম্যানকে ভোট দিয়েছিলেন।
  • অস্ট্রেলিয়ান কনফেডারেশন অফ স্পোর্ট ১৯৮৮ সালে স্যার ডন ব্র্যাডম্যানকে গত ২০০ বছরের শ্রেষ্ট পুরুষ অ্যাথলেট হিসাবে রায় দেয়।
  • স্যার ডন ব্র্যাডম্যানের ব্যাটিং গড় তাঁর খেলা তৃতীয় টেস্ট ইনিংসেই ৫০ ছোয়। ক্যারিয়ারের বাকি অংশে যা কখনো আর ৫০ এর নিচে নামেনি।
  • ১৯৪০ সালে স্যার ডন ব্র্যাডম্যান সেনাবাহিনীতে লেফটেন্যান্ট হিসাবে যোগ দেন। ফাইব্রোসাইটিসে তিনবার আক্রান্ত হলে ১৯৪১ সালে এই দায়িত্ব থেকে সরে যেতে হয় তাঁকে।
  • স্যার ডন ব্র্যাডম্যানের শ্রেষ্ঠত্বের স্বীকৃতি দিতে অস্ট্রেলিয়ার সরকার তাঁর সম্মানে একটি পোস্টাল স্ট্যাম্প ইস্যু করে। ২০০৮ সালে ব্র্যাডম্যানের জন্মদিনে (২৭ আগস্ট) সরকার ৫ ডলার সমমূল্যের ছাপ দেওয়া স্বর্ণমূদ্রা তৈরী করে।

শিহাব আহসান খান

Read Previous

তামিমের বদলি খুঁজতেই স্কোয়াড ঘোষণায় বিলম্ব

Read Next

সাকিবকে টপকে দুইয়ে স্টোকস, আর্চারের লম্বা লাফ

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।