ফিক্সিং ইস্যুতে দান্ডিওয়ালের ওপর নজর রেখেছে বিসিসিআই

বিসিসিআই

আন্তর্জাতিক টেনিস ম্যাচ ফিক্সিং সিন্ডিকেটের সাথে জড়িত থাকা রবীন্দার দান্ডিওয়ালকে অনেক দিন ধরে নজরদারিতে রাখছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডও। বিসিসিআই দুর্নীতি দমন ইউনিটের কর্মকর্তা অজিত সিং জানিয়েছেন সবশেষ চার বছর ধরে তাকে অনুসরণ করছেন তারা।

সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ান গণমাধ্যম সিডনি মর্নিং হেরাল্ড রবীন্দার দান্ডিওয়ালকে দেশটির টেনিস ম্যাচ ফিক্সিংয়ে প্রধান আসামী হিসেবে উল্লেখ করেছে। ২০১৮ সালে কিছু অখ্যাত টেনিস খেলোয়াড় মিশর ও ব্রাজিলের কিছু ইভেন্টে ম্যাচ পাতিয়েছিল।

দান্ডিওয়াল সম্পর্কে বিসিসিআই দুর্নীতি দমন ইউনিটের প্রধান অজিত সিং সংবাদ সংস্থা পিটিআই কে বলেন, ‘সে একজন দুর্নীতিবাজ বা সন্দেহভাজন হিসেবে পরিচিত নয়, সে একজন দুর্নীতিবাজই। আমি তার ক্রিকেটীয় কেলেঙ্কারি সম্পর্কে কথা বলতে পারি কিন্তু সে ইতোমধ্যে অন্যান্য খেলাধুলাতেও চলে এসেছে (ফিক্সিং)। সে নিজের লিগগুলো আয়োজনের চেষ্টা করছে। আর সেটা হলেই নিজের মত করে ম্যাচ ফিক্স করা সম্ভব হবে।’

নেপাল, আফগানিস্তানের মত দেশগুলোর লিগেও নিজেকে জড়ানোর চেষ্টা করেছেন দান্ডিওয়াল। এমনটাই জানিয়েছেন অজিত সিং, ‘সে নেপালে একটি এশিয়ান প্রিমিয়ার লিগ করেছে, আফগান লিগের সাথেও যুক্ত ছিল। সে হরিয়ানায় একটি লিগ আয়োজনের চেষ্টা করে যা বিসিসিআই করতে দেয়নি। সে ভারতের চেয়ে ভারতের বাইরে বেশি কাজ করেছে। তবে ৩-৪ বছর ধরে বিসিসিআইয়ের রাডারে আছে।’

ভারতের মোহালি থেকে উঠে আসা জুয়াড়ি দান্ডিওয়ালের নামে পুলিশের কাছে অভিযোগও দায়ের করে বিসিসিআই, ‘বিসিসিআই তার বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে একটি অভিযোগও দায়ের করে। তবে অভিযোগের কারণটা ভিন্ন ছিল। সে একটি ক্রিকেট দলকে অস্ট্রেলিয়ায় নিয়ে যায় যেখানে ৫-৬ জন খেলোয়াড় নিখোঁজ হয়। এটি একটি অভিবাসন কেলেঙ্কারি ছিল।’

‘আয়োজক ক্লাবটি কর্তৃপক্ষ ও বিসিসিআইকে বিষয়টি জানায়। আমরা মোহালি পুলিশের কাছে যাই এবং অভিযোগ দায়ের করি। সে আমাদের দুর্নীতি দমন ইউনিটের কাছে একজন পরিচিত মুখ। আমরা সব কার্যক্রমে তার ছবি দেখাই এবং সতর্ক থাকতে বলি।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

পাকিস্তান একটা ম্যাচ জিতলেও অবাক হবেন আজমল

Read Next

১ আগস্ট থেকে মাঠে ফিরছে কাউন্টি ক্রিকেট

Total
2
Share
error: Content is protected !!