ইয়াসির আলির ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস, সানজামুলের ৭ উইকেট

ইয়াসির আলি চৌধুরী রাব্বি

কক্সবাজারে বিসিএলের তৃতীয় রাউন্ডে ইয়াসির আলির ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসে ৫৯ রানের লিড পায় ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোন। পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করা বিসিবি নর্থ জোন ৫ উইকেট হারিয়ে ১৪৫ রান তুলে দিন শেষ করেছে।

আগের দিন ১৩৪ রানে অপরাজিত ছিলেন ইসলামী ব্যাংক ইস জোনের ইয়াসির আলি রাব্বি ও ৬ রানে অপরাজিত ছিলেন নাইম হাসান। ৭ উইকেটে ২৬১ রানে দিন শুরু করা ইসলামী ব্যাংক ইস্ট আজ যোগ করে আরও ৭০ রান। ৮ম উইকেট জুটিতে রাব্বি-নাইম স্কোরবোর্ডে তোলেন ৭৪ রান।

বিসিবি নর্থ জোন স্পিনার সানজামুল ইসলামের ৬ষ্ঠ শিকার হয়ে ইয়াসির আলি ফিরলে ভাঙে জুটি। ৩১৮ বলে ১৭ চার ২ ছক্কায় ১৬৫ রানের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেলেন ইয়াসির। তার বিদায়ের পর অবশ্য বেশিক্ষণ টেকেনি ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোনের ইনিংস। নাইম হাসানের ব্যাট থেকে আসে ৩১ রান, ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোন থামে ৩৩১ রানে। ৭ উইকেট নেন সানজামুল, তিনটি শিকার সঞ্জিত সাহার।

৫৯ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করা বিসিবি নর্থ জোন শুরু থেকেই ছিল বিপাকে। দলীয় ১২ রানে ফেরেন ওপেনার রনি তালুকদার (৫), দ্রুত ফেরেন তানবীর হায়দারও (১৪)। তৃতীয় উইকেট জুটিতে কিছুটা হাল ধরার চেষ্টা জুনায়েদ সিদ্দিকী ও অধিনায়ক নাইম ইসলামের। দুজনে মিলে যোগ করেন ৪৭ রান। ৩৬ রান করে প্রথম ইনিংসে ৮ উইকেট নেওয়া নাইম হাসানের বলে ফেরেন ওপেনার জুনায়েদ সিদ্দিকী। জুনায়েদের পর নাইম ইসলামকেও তুলে নেন নাইম।

৩৫ রান করে নাইম ফিরলে ৯৩ রানেই চার উইকেট হারায় বিসিবি নর্থ জোন। রান আউটে কাটা পড়ে ৯ রানের বেশি করতে পারেননি আরিফুল হক। ৩৪ রানের জুটিতে উইকেট রক্ষক মাহিদুল ইসলাম অঙ্কনকে নিয়ে দিনের বাকি সময় পার করেন মুশফিকুর রহিম। ৫ উইকেটে ১৪৫ রান করার পথে মুশফিক অপরাজিত ২৩ রানে অঙ্কন ২২ রানে। নাইম হাসান দুটি ছাড়া সাকলাইন সজীব ও হাসান মাহমুদ একটি করে উইকেট নেন। হাতে ৫ উইকেট নিয়ে বিসিবি নর্থ জোন এগিয়ে ৮৬ রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ তৃতীয় দিন শেষে

ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোন প্রথম ইনিংসে ৩৩১/১০ (১১৬.৩ ওভার), পিনাক ৩, আশরাফুল ০, সাকলাইন ৪, নাসির ৩, ইমরুল ৭৬, ইয়াসির ১৬৫, আফিফ ২৬, জাকির ১, নাইম ৩১, রাহাতুল ৫*, হাসান মাহমুদ ০; সানজামুল ৫২-৭-১১৫-৭, সাইফউদ্দিন ১৩-২-৩৮-০, সঞ্জিত ৩১.৩-৮-৭৫-৩, নাইম ৪-১-৮-০, তানবীর ৫-০-৩১-০, আরিফুল ১১-১-৪৮-০।

বিসিবি নর্থ জোন ২৭২ ও ১৪৫/৫ (৬৭), রনি ৫, জুনায়েদ ৩৬, নাইম ৩৫, আরিফুল ৯, মুশফিক ২৩*, অঙ্কন ২২*; হাসান ১৪-৪-৩৯-১, নাইম ২৮-৮-৫৮-২, সাকলাইন ১৮-৭-৩১-১,আফিফ ৩-১-৭-০, আশরাফুল ২-১-৬-০, রাহাতুল ২-০-৪-০।

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

যেকারণে স্বস্তিতে আছেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক

Read Next

চার নয়, পাঁচ; গোলাপি নয়, লাল

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
8
Share