‘আল-আমিন দেশের অন্যতম সেরা টি-টোয়েন্টি বোলার’

আল আমিন হোসেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ

১৭৫ রানের লক্ষ্য তাড়ায় ১২ রানেই বাংলাদেশ হারায় দুই উইকেট। সেখান থেকে মোহাম্মদ মিঠুনকে নিয়ে ৯৮ রানের জুটিতে শুধু দলের চাপই কমাননি নাইম শেখ, নিয়ে গিয়েছিলেন জয়ের দ্বারপ্রান্তেই। কিন্তু বাকি ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় বাংলাদেশকে নাগপুরে ভারতের বিপক্ষে হারতে হয়েছে ৩০ রানে। ৮১ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলা তরুণ ব্যাটসম্যান নাইম শেখের জন্য ম্যাচ শেষে খারাপ লাগা লুকাননি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। অধিনায়কের প্রশংসা পেয়েছেন পেসার আল আমিন হোসেনও।

সিরিজের প্রথম ম্যাচে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক, তৃতীয় ম্যাচেই দলের ঐতিহাসিক জয়ের নায়ক বনে যেতে পারতেন বয়সভিত্তিক ও ঘরোয়া ক্রিকেটের নিয়মিত পারফর্মার মোহাম্মদ নাইম। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান ৪৮ বলে ৮১ রানের ইনিংস খেলে প্রকৃত অর্থেই একা টেনেছেন দলকে। কিন্তু তাকে সঙ্গ দেওয়া মোহাম্মদ মিঠুন ছাড়া দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি আউট হওয়া বাকি ৮ ব্যাটসম্যানের একজনও, তিনজন ফিরেছেন গোল্ডেন ডাক নিয়ে।

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে কাপ্তান রিয়াদ বলেন, ‘এককথায় বললে, খুবই দৃষ্টিনন্দন ছিল ওর ইনিংসটা। আমার খারাপ লাগছে ও এত সুন্দর একটা ইনিংস খেলেছে, আমরা ফিনিশ করতে পারিনি। মিডল অর্ডারদের ব্যর্থতা ছিল। এই কারণে আমার হতাশাটা আরও বেশি। সুন্দর একটা ইনিংস খেলেছে, খুব ভালো ব্যাটিং করেছে। ওর জন্য হলেও আমরা যদি ভালো করে শেষ করতে পারতাম তাহলে ও অনেক ক্রেডিট পেত।’

পুরো সিরিজে প্রাপ্তির খাতাতেও বড় অংশ জুড়ে আছে নাইম, ‘তৃপ্তির জায়গা বলতে আমার মনে হয়, নাইম ও আমিনুলের পারফরম্যান্স। আমাদের বোলিং ইউনিটের পারফরম্যান্স খুব ভালো ছিল। মুশফিকের ম্যাচ জেতানো পারফরম্যান্স ছিল। এগুলো ছিল ইতিবাচক। আমিনুল নার্ভাস ছিল না। ও নতুন একটা ছেলে, হয়তোবা ধরতে (ক্যাচ) পারেনি, এগুলো খেলারই অংশ।’

তিন বছরের বেশি সময় পর জাতীয় দলে ফিরে আল আমিনের অসাধারণ বোলিং নজর কেড়েছে রিয়াদের। তিন ম্যাচে উইকেট একটি হলেও চাপের মুখে বল করে দলের সেরা বোলারই বলতে হয় তাকে, ইকোনোমি (৬.৭৫) ছিল চোখে পড়ার মত। টি-টোয়েন্টি পরিসংখ্যানও কথা বলবে আল আমিনের পক্ষেই, ১৮ ম্যাচে উইকেট ৪০ টি।

আল আমিনকে নিয়ে বলতে গিয়ে রিয়াদ বলেন, ‘আল আমিন অসাধারণ খেলেছে। আমার মনে হয়, ও আমাদের দেশের অন্যতম সেরা টি-টোয়েন্টি বোলার। ব্যক্তিগতভাবে আমি এটা অনুভব করি। ওর আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ার দেখলে দেখা যাবে, সব সময় ধারাবাহিক ভাবে পারফর্ম করেছে। সেদিক থেকে বিশ্বাস ছিল আল আমিন হয়তোবা ভালো করতে পারে।’

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

শামীম-হৃদয়ের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে টাইগার যুবাদের জয়

Read Next

আরেকটা জুটির আক্ষেপ করা নাইমের নজর ইমার্জিং কাপে

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
10
Share
error: Content is protected !!