যেকারণে গাঙ্গুলিকে ঘৃণা করতেন নাসের হুসাইন

নাসের হুসাইন সৌরভ গাঙ্গুলি

ইংল্যান্ডের পক্ষে ৯৬ টেস্ট, ৮৮ ওয়ানডে খেলা নাসের হুসাইন ভারতীয় বংশোদ্ভূত। ইংল্যান্ডকে ১৯৯৯ থেকে ২০০৩ সাল অব্দি ৪৫ টেস্টে নেতৃত্ব দিয়েছেন নাসের হুসাইন। ওয়ানডেতে ১৯৯৭ থেকে ২০০৩ অব্দি নেতৃত্ব সিয়েছেন ৫৬ ম্যাচে। বেশ কিছু ম্যাচে খেলেছেন জন্মস্থান ভারতের বিপক্ষে।

ভারতের সাবেক অধিনায়ক ও বর্তমানে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলির সঙ্গে একসাথে বেশ কয়েকবার টস করতে নেমেছেন সাবেক এই ইংলিশ অধিনায়ক। গাঙ্গুলিকে কাছ থেকে দেখেছেন খেলোয়াড়ি জীবন শেষে ধারাভাষ্য প্যানেলেও। ভিন্ন ভিন্ন জায়গায় গাঙ্গুলির ভিন্ন ভিন্ন চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের কথা সামনে এনেছেন বর্তমান সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় এই ধারাভাষ্যকার।

স্টার স্পোর্টস চ্যানেলে ক্রিকেট কানেক্টেড শো তে নাসের হুসাইন বলেন, ‘আমি গাঙ্গুলি সম্পর্কে সবসময়ই বলে এসেছি, যে সে ভারতীয় দলকে একটা শক্ত দলে পরিণত করেছে। গাঙ্গুলি অধিনায়ক হবার আগেও ভারত খুব ভাল দল ছিল। তবে আপনি তখন তাদের নরম দল বলে জানতেন, খুবই ডাউন টু আর্থ।’

‘যখন গাঙ্গুলির দলের বিপক্ষে খেলা হত আপনি জানতেন যে আপনি একটা লড়াইয়ের মধ্যে আছেন। গাঙ্গুলি ভারতীয় ক্রিকেট সমর্থকদের প্যাশন বুঝত এবং সেটা কেবলই একটা খেলা থাকত না।’

টসের জন্য সৌরভ গাঙ্গুলি তাকে অপেক্ষায় রাখতেন বলে জানান নাসের হুসাইন। এমনকি ধারাভাষ্যকক্ষেও দেরিতে আসতেন প্রিন্স অব কোলকাতা।

‘আমি যখন গাঙ্গুলির বিপক্ষে খেলেছি আমি তাকে ঘৃণা করেছি। সে প্রতিবার টস করার সময়ে দেরি করত। আমাকে অপেক্ষায় রাখত। আমি বলতাম, গাঙ্গুলি, এখন ১০ঃ৩০ টা বাজে আমাদের টস করতে হবে! কিন্তু এখন আমি তা সঙ্গে শেষ এক দশকে ধারাভাষ্যকার হিসাবে একসঙ্গে কাজ করেছি। সে খুবই ভালো, শান্ত একজন। সে ধারাভাষ্য দিতে এসেও দেরি করে অবশ্য!’

‘সে খুবই ভাল মানুষ। একজন ক্রিকেটারের এমনই হওয়া উচিৎ। যখন আপনি তার বিপক্ষে খেলবেন তখন আপনি তাকে পছন্দ করবেন না, তবে যখন তার সঙ্গে জীবনের অন্য পর্যায়ে দেখা করবেন দেখবেন সে ভালো মানুষ।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

সৌরভের অধিনায়কত্ব হারানোর নেপথ্যে ছিলেন বুকানন

Read Next

মাশরাফির খবর জেনে আরো সচেতন হয়েছেন মুশফিক

Total
6
Share
error: Content is protected !!