হার্শা ভোগলের দশক সেরা টেস্ট একাদশে সাকিব

সাকিব আল হাসান

দেখতে দেখতে শেষ হচ্ছে আরো একটি বছর। করোনার কারণে খুব বেশি ম্যাচ মাঠে গড়ায়নি শেষ হতে চলা বছর ২০২০ এ। বর্ষসেরা একাদশ গঠন করতে তাই খুব বেশি তথ্য উপাত্ত আমলে নেবার সুযোগ কম। জনপ্রিয় ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ক্রিকবাজের পক্ষে দশক (২০১১-২০২০) সেরা টেস্ট একাদশ বেছে নিয়েছেন হার্শা ভোগলে।

২০১১ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০২০ সালের ২৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় আমলে নিয়ে সেরা একাদশ বেছেছেন ভোগলে। একাদশে সর্বোচ্চ ৩ জন আছেন অস্ট্রেলিয়ার। ভারত, ইংল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আছেন ২ জন করে। বাকি দুইজন শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশের।

হার্শা ভোগলের দশক সেরা টেস্ট একাদশে ওপেনার হিসাবে আছেন অ্যালিস্টার কুক ও ডেভিড ওয়ার্নার। উল্লেখিত সময়ে ওপেনারদের মধ্যে সর্বোচ্চ রান করেছেন কুক (১৭৭ ইনিংসে ৭৫৩১ রান) ও ওয়ার্নার (১৫৫ ইনিংসে ৭২৪৪ রান)। টম ল্যাথাম, ডিন এলগার, দিমুথ করুণারত্নের নাম আলাদা করে বললেও তাদের একাদশে নেননি হার্শা।

কুমার সাঙ্গাকারা, ভিরাট কোহলি, স্টিভ স্মিথ ও এবি ডি ভিলিয়ার্সকে নিয়ে মিডল অর্ডার সাজিয়েছেন ভোগলে। এই দশকের অর্ধেক খেলে ৫৭.৭২ গড়ে ৪১৫৬ রান করা সাঙ্গাকারাকে তিনে নামাবেন তিনি।

চারে নামবেন এই সময়ে ১৪৭ ইনিংসে ৫৩.৪১ গড়ে ৭৩১৮ রান করা ভিরাট কোহলি। ১২৫ ইনিংসে ৬৫.২০ গড়ে ৭০৪২ রান করা স্মিথ নামবেন পাঁচ নম্বরে। ২০১৮ সালে শেষ টেস্ট খেলা এবি ডি ভিলিয়ার্সকে ছয় নম্বরের জন্য বিবেচনা করেছেন তিনি। এই সময়ে ৮০ ইনিংসে ৫৪.১৭ গড়ে ৪০৬৩ রান করেছেন তিনি। দলের উইকেটরক্ষকের ভূমিকাও পালন করবেন তিনি।

সাত নম্বরের জন্য একজন অলরাউন্ডারের কথা চিন্তা করেছেন হার্শা। যেখানে রবীন্দ্র জাদেজাকে টেক্কা দিয়ে দলে জায়গা করে নিয়েছেন সাকিব আল হাসান। এই সময়ে ৩৫ টেস্টের ৬৫ ইনিংসে ব্যাট করে ৪৪.৭১ গড়ে ২৬৮৩ রান করেছেন সাকিব। ৬১ ইনিংসে বল হাতে নিয়ে সাকিব উইকেট নিয়েছেন ১৩৫ টি।

হার্শা ভোগলের দশক সেরা একাদশে বিশেষজ্ঞ স্পিনার হিসাবে আছেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। এই সময়ে ১৩৪ ইনিংসে ৩৭০ উইকেট নিয়েছেন তিনি। পেস আক্রমণে আছেন প্যাট কামিন্স (৫৯ ইনিংসে ১৫০ উইকেট), ডেল স্টেইন (৮৮ ইনিংসে ২০৭ উইকেট) ও জিমি অ্যান্ডারসন (১৮৮ ইনিংসে ৩৯৫ উইকেট)।

হার্শা ভোগলের চোখে দশক সেরা (২০১১-২০২০) টেস্ট একাদশ-

অ্যালিস্টার কুক (ইংল্যান্ড), ডেভিড ওয়ার্নার (অস্ট্রেলিয়া), কুমার সাঙ্গাকারা (শ্রীলঙ্কা), ভিরাট কোহলি (ভারত), স্টিভ স্মিথ (অস্ট্রেলিয়া), এবি ডি ভিলিয়ার্স (দক্ষিণ আফ্রিকা, উইকেটরক্ষক), সাকিব আল হাসান (বাংলাদেশ), রবিচন্দ্রন অশ্বিন (ভারত), প্যাট কামিন্স (অস্ট্রেলিয়া), ডেল স্টেইন (দক্ষিণ আফ্রিকা) ও জিমি অ্যান্ডারসন (ইংল্যান্ড)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

নতুন হেড কোচ পাচ্ছে বাংলাদেশের মেয়েরা

Read Next

লম্বা সময়ের জন্য ছিটকে গেলেন শাদাব খান

Total
7
Share
error: Content is protected !!