মাথার খুলি উড়িয়ে নিতে চেয়েছে আর্চার

ইংলিশ পেসারদের গতির কথা নতুন করে বলার দরকার পড়তোনা যদি ক্যারিবিয়ান বংশোদ্ভূত জফরা আর্চার দলে সম্প্রতি অন্তর্ভুক্ত না হতেন। সদ্য সমাপ্ত অ্যাশেজে অজি ব্যাটসম্যানদের নাকানিচুবানি খাইয়েছেন ২২ গজে, আগ্রাসী মানসিকতায় হয়েছেন আলোচনার অন্যতম বিষয়বস্তু। লন্ডনে অ্যাশেজের শেষ ম্যাচের পর অজি ব্যাটসম্যান ম্যাথু ওয়েডতো বলতেই বাধ্য হয়েছেন আর্চার তার মাথার খুলি উড়িয়ে নিতে চেয়েছেন।

২৪ বছর বয়সী পেসার জফরা আর্চার বিশ্বকাপের আগে থেকেই ছিলেন ইংলিশদের হট কেক হিসেবে। তাকে দলে জায়গা দিতে সাধ্যমতো সবই করেছে ইংলিশ বোর্ড। যার প্রতিদান দিতে বেশি সময় নেয়নি জফরা, বিশ্বকাপের আগে সুযোগ পাওয়া পাকিস্তান সিরিজ থেকে বিশ্বকাপে দিয়েছেন নিজেকে উজাড় করে। রুদ্ধশ্বাস বিশ্বকাপ ফাইনালে সুপার ওভারে আঁটকে দেন নিউজিল্যান্ডকে, ইংলিশরাও জেতে ঘরের মাঠে প্রথম বিশ্বকাপ শিরোপা।

প্রাথমিকভাবে টেস্ট সিরিজের জন্য এখনই বিবেচনায় না থাকলেও দলের স্ট্রাইক বোলার অ্যান্ডারসনের চোটে পড়ে ছিটকে যাওয়ায় সুযোগ মিলে অ্যাশেজ দিয়েই টেস্ট অভিষেকের। ৪ টেস্টেই নিজের নামের পাশে লেখিয়ে নেন ২২ উইকেট। তবে উইকেট নয় আর্চার নিজেকে আলাদা করেছেন টানা ভয়ঙ্কর গতি আর বাউন্সে টালমাটাল করে। দ্বিতীয় টেস্টে সিরিজে দুর্দান্ত সব রেকর্ড গড়া স্টিভ স্মিথকে বাউন্সারে ভূপাতিত করে ছিটকে দিয়েছেন পরের ইনিংস ও ম্যাচ থেকেই।

এবার জফরার আগুনে পুড়ে চারখার অজি বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ম্যাথু ওয়েড। শেষ টেস্টে অজিদের হয়ে একাই লড়াই করা এই ব্যাটসম্যান ৩৯৯ রানের লক্ষ্য তাড়ায় দলের হয়ে সর্বোচ্চ ১১৭ রান করেন। ১৬৬ বল খেলা ওয়েড শেষ পর্যন্ত সঙ্গীর অভাবে দলকে জেতাতে পারেনি, ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন জফরা কতটা ভয় ঢুকিয়েছিল মনে। আর্চার কত আগ্রাসী মানসিকতার সেটা প্রমাণ দিয়েছেন স্মিথকে বাউন্সারে আঘাত দেওয়ার পরও পেছন ফিরে না তাকিয়ে, সৌজন্যতার জায়গা থেকেও আঘাত পাওয়া স্মিথের কাছে যাননি।

নিজের পরিকল্পনায় আর্চার আপোষ করেননা সেটা আবারও ফুটে উঠেছে ম্যাথু ওয়েডের কথায়,” আমরা ভাবছিলাম একটা সময় হয়তো সে গতি কমাবে। আমি আপনাদের এটা নিশ্চিত করি যে সে গতিতো কমায়ইনি বরং পুরো স্পেলে সে গতির সাথে আপোষ করেনি। গতি ক্রমশ বাড়িয়েই চলছিল।”

জফরাকে সামলাতে গিয়ে ওয়েডের এমনও মনে হয়েছে জফরা বুঝি তার খুলি উড়িয়ে নেওয়ার লক্ষ্যেই বল করছিল,” আমি চিন্তা করছিলাম সে যে বলই করুক আমি সামলে নিব। কিন্তু অন্যপ্রান্তে তার পরিকল্পনাই ছিল সম্ভবত হয় আমায় আউট করবে নাহয় খুলি উড়িয়ে নিবে। মাঝে দুজনের বাক্য বিনিময়ও হয়েছে তবে সেটা নেতিবাচক কিছু নয়। বেশ টেস্ট ক্রিকেটীয় কিছু মুহূর্ত ছিল, উপভোগ করেছি।”

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

সাব্বির ইস্যুতে হাসলেন সাকিব, দিলেন ব্যাখ্যাও

Read Next

সাকিবের সাথে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রাশিদের, ভালো লাগে বাংলাদেশে আসতে

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
5
Share
error: Content is protected !!