বিশ্ব জয়ের এক বছর, আকবর আছেন আগের মতই

বিশ্ব জয়ের এক বছর, আকবর আছেন আগের মতই

২০২০ সালের আজকের এই দিনে (৯ ফেব্রুয়ারি) দক্ষিণ আফ্রিকার পচেফস্ট্রুমে ভারত যুব দলকে হারিয়ে যুব বিশ্বকাপ জয় করে আকবর আলির নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ যুব দল। বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে সেটিই প্রথম ও এখন অব্দি একমাত্র কোন আইসিসি ইভেন্ট জয়। টাইগার যুবাদের বিশ্বজয়ের এক বছর পূর্তি হচ্ছে আজ। এই এক বছরে পৃথিবীতে এসেছে কতকিছুর পরিবর্তন, করোনা মহামারীতে লন্ডভন্ড হয়েছে কত স্বপ্নের, বেড়েছে অপেক্ষা। তবে বিশ্ব জয়ের পরও ব্যক্তিগতভাবে নিজের মধ্যে পরিবর্তন অনুভব করেন না আকবর।

টাইগার যুবাদের নেতৃত্ব দিয়েছেন বিশ্বমঞ্চে। ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে দলের বিপর্যয়ে ঠান্ডা মাথায় খেলেছেন ম্যাচ বের করে আনার মত ইনিংস। টুর্নামেন্ট চলাকালীন হারিয়েছেন বোনকে, যমজ সন্তান জন্ম দিতে গিয়ে মারা যায় তার বড় বোন। তবে শোককে শক্তিতে পরিণত করে দেশকে উপহার দিয়েছেন আজীবন মনে রাখার মত এক স্মৃতি।

বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক বলে বাড়তি একটা আলো কেড়ে নিয়েছেন আকবর আলি। পরবর্তী এক বছরে খেলতে শুরু করেন সিনিয়র পর্যায়ের ক্রিকেট। বিসিবির অধীনে টুর্নামেন্ট কিংবা বিভিন্ন ক্যাম্পে যুব বিশ্বকাপ জয়ী দলের ক্রিকেটারদের জায়গা হচ্ছে নিয়মিত। পুরো দল থেকে যারাই সুযোগ পায় আকবরও থাকেন তাদের মধ্যে।

তবে এটিকে নির্দিষ্ট কোন পরিবর্তন বলতে নারাজ আকবর। হাই পারফরম্যান্সে (এইচপি) ইউনিটের হয়ে আয়ারল্যান্ডস উলভসের বিপক্ষে সিরিজ খেলতে বর্তমানে চট্টগ্রামে আছেন আকবর আলিরা। বিশ্বজয়ের এক বছর পূর্তিতে ‘ক্রিকেট৯৭’ কে মুঠোফোনে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বলেছেন নিজের মধ্যে কোন আলাদা পরিবর্তন অনুভব করেন না।

বিশ্বকাপ জয়ের এক বছর পূর্তির অনুভূতি জানাতে গিয়ে আকবর বলেন, ‘অনেক তাড়াতাড়ি চলে গেল সময়টা, এক বছর হয়ে গেল। যখন পেছনে ফিরে তাকাই অবশ্যই ভালো লাগে। ২০১৮ সাল থেকে যে মিশন নিয়ে আমরা যাত্রাটা শুরু করেছি তা সম্পন্ন করতে পেরেছি বলে ভালো লাগে। এটা সবচেয়ে আনন্দের বিষয় ছিল।’

নিজের মধ্যে ব্যক্তিগত কোন পরিবর্তন অনুভব না করলেও বয়সভিত্তিক পার করে এসে সিনিয়র পর্যায়ে খেলার পার্থক্যটা টের পাচ্ছেন ঠিকই। এখানে লড়াইটা বেশি, থাকতে হয় বিশেষ মনযোগ এমনটাই মত বিশ্বকাপ জয়ী এই অধিনায়কের।

উইকেট রক্ষক এই ব্যাটসম্যান বলেন, ‘আমার মনে হয়না ব্যক্তিগতভাবে আমি কোন পরিবর্তন অনুভব করি। এটা বাইরে থেকে দেখলে অনেকে মনে করতে পারে। কিন্তু আমার মনে হয় যেরকম ছিলাম সেরকমই আছি। শুধু আগে জুনিয়র লেভেলে খেলেছি, এখন সিনিয়র লেভেলে খেলছি এটাই পার্থক্য। পরিবেশের কথা বললে আগে বয়সভিত্তিক খেলেছি এখন সিনিয়র লেভেলে লড়াইটা অনেক বেশি, ইন্টেনসিটিটা বেশি।’

যুব দলের বিশ্বকাপ জয়ের পরই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) নানা পরিকল্পনা হাতে নেয় তাদের ভবিষ্যৎ উন্নতির জন্য। কিন্তু করোনা থাবায় ভেস্তে যায় বেশিরভাগ পরিকল্পনা। তবে আশার আলো হয়ে এসেছে এইচপি ক্যাম্প। যুব বিশ্বকাপ জয়ী দলের প্রায় সব সদস্যই আছেন ২৫ জনের এই ক্যাম্পে।

করোনার কারণে বাইরের দেশে সফর করা সম্ভব না হলেও বিসিবির পরিকল্পনায় আছে বেশ ভালোভাবে। অদূর ভবিষ্যতেই ইংল্যান্ড সহ বেশ কয়েকটি দেশে সফর ও ক্যাম্পের ভাবনার কথা জানিয়েছে বিসিবির গেম ডেভেলপমেন্ট বিভাগ। তবে তার আগে চলতি মাসেই আয়ারল্যান্ড উলভস আসায় আকবর, দিপু, শরিফুল, রাকিবুলদের সামনে থাকছে দারুণ সুযোগ।

সফরে একটি চারদিনের ম্যাচ, ৫ টি ওয়ানডে ও দুইটি টি-টোয়েন্টি খেলবে আয়ারল্যান্ড উলভস। একমাত্র চারদিনের ম্যাচ ও প্রথম তিনটি ওয়ানডে চট্টগ্রামে, পরের দুইটি ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ অনুষ্ঠিত হবে ঢাকায়। ইতোমধ্যে চট্টগ্রাম পৌঁছেছে আকবর আলি, শাহিন আলম, শরিফুল ইসলাম, শাহাদাত হোসেন দিপু, সুমন খান, আনিসুল ইসলাম ইমনরা।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by cricket97 (@cricket97bd)

করোনার কারণে যা মিস হয়েছে তা নিয়ে আক্ষেপ নেই আকবর আলির। তবে সামনে আসা সব সুযোগই কাজে লাগাতে চান বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক।

আকবর বলেন, ‘প্রকৃতপক্ষে করোনার মধ্যে যা হয়েছে সেটাতো আমাদের নিয়ন্ত্রণের মধ্যে নেই। এসব নিয়ে আসলে চিন্তাও করতে চাইনা। করোনার জন্য যা হয়নি তাতো হয়ইনি। এখন সামনে আমাদের যে খেলাগুলো আছে বিশেষ করে হাই পারফরম্যান্স (এইচপি) আছে, জাতীয় লিগ শুরু হতে পারে অর্থাৎ যে খেলাই শুরু হক মনযোগটা থাকবে ভালো করার দিকেই।’

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

২৩ দিনের জন্য এনে ৭০ দিনের বেতন দিতে হত ভেট্টোরিকে!

Read Next

সাকিব নেই বলে কাজ সহজ হবে ভাবছে না ওয়েস্ট ইন্ডিজ

Total
27
Share