তরুণদের উপর বিশ্বাস রেখে ১ম জয়ের খোঁজে অধিনায়ক ব্র্যাথওয়েট

তরুণদের উপর বিশ্বাস রেখে ১ম জয়ের খোঁজে অধিনায়ক ব্র্যাথওয়েট

দলের মূল ক্রিকেটাররা করোনা আশঙ্কায় বাংলাদেশ সফর থেকে নাম সরিয়ে নেয়ায় খর্ব শক্তির দল নিয়েই বাংলাদেশ সফরে এসেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। নিয়মিত টেস্ট অধিনায়ক জেসন হোল্ডারের অবর্তমানে দায়িত্ব পালন করবেন ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট। এর আগেও ভারপ্রাপ্ত হিসেবে ৫ টি টেস্টে অধিনায়কত্ব করেছেন, তবে জয়ের মুখ দেখেনি একবারও। বাংলাদেশ সফরেই অধিনায়ক হিসেবে কাঙ্ক্ষিত জয় পেতে মুখিয়ে ব্র্যাথওয়েট।

কোভিড-১৯ ইস্যুতে ব্যক্তিগত ভয়ে বাংলাদেশ সফরে আসতে চাননি জেসন হোল্ডার, কাইরন পোলার্ড, ড্যারেন ব্রাভো, শামার ব্রুকস, রস্টন চেজ, শেলডন কটরেল, এভিন লুইস, শাই হোপ, শিমরন হেটমেয়ার। ব্যক্তিগত কারণে আসতে চাননি নিকোলাস পুরান, ফ্যাবিয়ান অ্যালেন ও শেন ডওরিচ।

অভিজ্ঞ বেশিরভাগ ক্রিকেটারকে না পেলেও ক্যারিবিয়ান ভারপ্রাপ্ত টেস্ট অধিনায়ক আস্থা রাখছেন সুযোগ পাওয়াদের উপর। গত ১০ জানুয়ারি বাংলাদেশে আসা ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল কোয়ারেন্টাইন শেষে অনুশীলন শুরু করবেন আগামীকাল (১৪ জানুয়ারি) থেকে। তার আগে আজ (১৩ জানুয়ারি) এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের নানা প্রশ্নের উত্তর দেন টেস্ট অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট।

দল নিয়ে নিজের মতামত জানাতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয়, এখানে ভালো একটি দল আছে আমাদের। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ভালো করার সামর্থ্য এই দলের আছে। এখানে যে দল আছে, তাদের আমি খর্বশক্তির মনে করি না। তাদের সামর্থ্য আছে ভালো করার এবং আমি জানি তারা সুযোগটি নিতে মুখিয়ে আছে।’

৬৪ টি টেস্ট খেলা ব্র্যাথওয়েট অনভিজ্ঞ দলটির সবচেয়ে অভিজ্ঞ ক্রিকেটার। ব্যাট হাতে দলকে টেনে নিয়ে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে চান। এর আগে ৫ টি টেস্টে নেতৃত্ব দিয়ে কোন জয় না পাওয়া ব্র্যাথওয়েট প্রথম জয় তুলে নিতে চান বাংলাদেশের বিপক্ষে।

ব্র্যাথওয়েট বলেন, ‘দলকে নেতৃত্ব দিলে আপনি জিততে চাইবেন। এখানে আমার লক্ষ্য অধিনায়ক এবং ব্যাটসম্যান হিসেবে দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেয়া। এটা দলকে দারুণ ভাবে জিততে সাহায্য করবে। আমাদের ঘণ্টা ধরে ধরে খেলতে হবে। আমি সবসময় অধিনায়কত্বের চ্যালেঞ্জ উপভোগ করি। জানি এটা সহজ নয়। টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে হোল্ডারের (নিয়মিত টেস্ট অধিনায়ক) সাথে অবশ্যই আমার কিছু আলাপ হবে।’

‘আমরা এর বেশি চিন্তা করছি না। আমরা যদি ধাপে ধাপে এগোতে থাকি ফলাফল এমনিতেই আসবে। অবশ্যই প্রথম জয়টি (অধিনায়ক হিসেবে) পেতে মুখিয়ে আছি। তবে সেখানে পৌঁছানোর ধাপ আছে। সেগুলো ধরে এগিয়ে যেতে হবে। আমার বিশ্বাস, এই দল সেটা পারবে।’

দলের তরুণ ও অনভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের জন্য নিজেদের সামর্থ্যের জানান দেওয়ার দারুণ সুযোগ বাংলাদেশ সফর। এমনটাই মনে করেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান, ‘আমি জানি ছেলেরা সাফল্যের জন্য ক্ষুধার্ত। তারা সাফল্য পেতে যেকোনো কিছু করতে পারে এবং এটা যদি বোলিং-ব্যাটিংয়ের দৃষ্টিকোণ থেকে হয় তাহলে এটা দলকে জিততে সাহায্য করবে।’

‘আমি সুযোগ দেখছি তাদের লুফে নেয়ার। তাদের বিশ্বকে দেখিয়ে দেয়া উচিত তারা নিজেদের কাজটা করতে পারে এবং তারা শুধু এখানে কারো জায়গা পুরণ করতে আসেনি।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

‘সাকিব বাংলাদেশের মূল খেলোয়াড়’

Read Next

ইনজুরিতে ছিটকে গেলেন পুকোভস্কি, একাদশে হ্যারিস

Total
2
Share
error: Content is protected !!