কনফ্লিক্ট অব ইন্টারেস্ট ইস্যুতে ভিরাট কোহলির নামে অভিযোগ

ভিরাট কোহলি

স্বার্থের সংঘাতে আঘাত হানে এমন কান্ডে অভিযুক্ত হলেন ভারতীয় অধিনায়ক ভিরাট কোহলি। ভারতের অধিনায়ক পদের বাইরেও কিছু ক্রীড়া সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের সাথে সরাসরি জড়িয়ে থাকার কারণেই তার বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ। ভারতীয় বোর্ডের আইনী কর্মকর্তা ডিকে জৈন বিষয়টি খতিয়ে দেখছেন। ঘটনা সত্য প্রমাণিত হলে কোহলিকে প্রতিক্রিয়া জানাতে ডাকা হবে বলছেন জৈন।

দুটি স্পোর্টস ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার হিসেবে রান মেশিন খ্যাত কোহলির নাম উঠে আসছে। যার ফলে মধ্য প্রদেশ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের আজীবন সদস্য সঞ্জীব গুপ্ত বোর্ডে স্বার্থ সংঘাতের অভিযোগ করেন। যিনি এর আগেও বেশ কিছু ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে একই অভিযোগ দায়ের করেন।

গুপ্তের অভিযোগ মতে ভারতীয় দলের অধিনায়ক ছাড়াও দুটি স্পোর্টস ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠানের পরিচালকের দায়িত্বে আছেন কোহলি। বিসিসিআইয়ের গঠনতন্ত্র মতে যা একাধিক পদ দখলের নিয়ম ভঙ্গের মধ্যে পড়ে। স্পোর্টস ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠান দুটিতে তার সাথে আছেন আরও কয়েকজন সতীর্থ।

বিসিসিআই আইনী কর্মকর্তা অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি ডিকে জৈন এ প্রসঙ্গে সংবাদ সংস্থা পিটিআই কে বলেন, ‘আমি একটি অভিযোগ পেয়েছি। এটা যাছাই বাছাই করবো। তারপরে বুঝতে পারবো ব্যাপারটি ঘটেছে কীনা। যদি সত্য হয়, আমরা তার (কোহলির) প্রতিক্রিয়া জানার একটা সুযোগ দিব।’

গুপ্তের অভিযোগ করা সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান দুটি হল কর্নারস্তোনস ভেঞ্চার পার্টনারস এলএলপি এবং ভিরাট কোহলি স্পোর্টস এলএলপি। যেগুলোর সাথে জড়িয়ে আছে লোকেশ রাহুল, রিশাব পান্ট , রবীন্দ্র জাদেজা, উমেশ যাদব ও কুলদ্বীপ যাদবের নাম। প্রায় একই ধরণের অভিযোগ উঠেছিল ভারতের অন্যতম সফল অধিনায়ক মাহেন্দ্র সিং ধোনির নামেও।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

কনফ্লিক্ট অব ইন্টারেস্ট ইস্যুতে গাঙ্গুলির ভাষ্য

Read Next

দুর্ঘটনার সময় ঘুমিয়ে পড়েছিলেন মেন্ডিস

Total
4
Share
error: Content is protected !!