অভিজ্ঞ হয়েই ফিরছেন এনামুল

নভেম্বর ২০১৫ এর পর লাল-সবুজের জার্সি গায়ে আর নামা হয়নি মাঠে। মাঝখানে লম্বা বিরতি। আবার ডাক পেয়েছেন বাংলাদেশ দলে। তবে মাঝের সময়টা হেলায় কাটাননি এনামুল হক বিজয়।  এ সময় নিজের অভিজ্ঞতার ভান্ডারকে আরও সমৃদ্ধ করেছেন, এমনটি জানালেন আলাপচারিতায়।

ত্রিদেশীয় সিরিজ সামনে রেখে টাইগার স্কোয়াড ব্যস্ত সময় পার করছেন অনুশীলনে। যেখানে মনোযোগী ছাত্র এনামুল হক। প্রায় তিন বছর পর ফিরলেন ওয়ানডে দলে। তাই এই সুযোগ কিছুতেই হারাতে চান না। মাঝখানে লম্বা সময় ধরে দলের বাইরে থাকার অভিজ্ঞতা জানাতে গিয়ে তিনি বলেন, “মাঝের সময়টায় অনেক অভিজ্ঞতা হয়েছে। এই সময়ে ঘরোয়া ক্রিকেটে ২০-২৫টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলেছি। ওয়ানডে খেলেছিও অনেকগুলো। তাই এটা বড় অভিজ্ঞতা।”

জাতীয় দলের বাইরে থাকলেও এনামুল ঘরোয়া ক্রিকেটে বেশ সফলতার সঙ্গে খেলেছেন। প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে খুলনা বিভাগের সাফল্যের পিছনে তার অবদান অনেক। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে তার দল চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। তারপরও জাতীয় দলে ফিরতে তার তার সামর্থ্যের প্রমাণ একটু বেশি দিতে হয়েছে কি না এ ব্যাপারে বলেন, “চেয়েছি নিজেকে আরও ভালো কিছুর জন্য অনুপ্রাণিত করতে। এবারের চেয়ে পরের বারে ভালো করার চেষ্টা ছিলো আমার। নিজের সেরাটা দিয়ে চেষ্টা করেছি। জাতীয় দলে সবাই যখন ভালো খেলে, তখন আসলে নিজের জন্য হতাশ লাগে না। বরং দেশ ভালো খেললে ভালো লাগে।”

বাংলাদেশ দলের সাবেক কোচ হাতুরুসিংহের পছন্দের তালিকায় না থাকার কারণে তাকে বসিয়ে রাখা হতো, এমন অভিযোগ নিয়ে এনামুল বলেন, “ওইভাবে কখনও ভাবিনি। একজন একজনকে অপছন্দ করতেই পারে। এটা জোর করে কিছু হয় না। আমার জন্য পারফর্ম করে যাওয়াই গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। তাই বিশ্বাস ছিলই। কোচের বিষয়ে চিন্তা ছিল না। কোচ কেউ আসবে, কেউ যাবে। কিন্তু আমাকে খেলে যেতেই হবে।”

লম্বা সময় দলের বাইরে থাকার পর দলে এসে অ্যাডজাস্ট করা একটু মুশকিল হয়ে পড়ে। এ সময়ে হতাশা জেঁকে ধরার সম্ভাবনা থাকে। তবে এনামুল প্রস্তুত সব চ্যালেঞ্জ গ্রহণের জন্য। তার দাবি চ্যালেঞ্জ নিয়ে অভিজ্ঞ হয়েই দলে ফিরেছেন। আর হারিয়ে যেতে চান না।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

বিসিএলে মুমিনুলের ফিফটি

Read Next

গাপটিল ঝড়ে উড়ে গেলো পাকিস্তান

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Total
0
Share