'সুপার এইট না, আমরা সেমিফাইনাল-ফাইনাল খেলার মতো দল'

৯৭ প্রতিবেদক:

প্রকাশ : 1 সপ্তাহ আগে আপডেট: 1 সেকেন্ড আগে
'সুপার এইট না, আমরা সেমিফাইনাল-ফাইনাল খেলার মতো দল'

'সুপার এইট না, আমরা সেমিফাইনাল-ফাইনাল খেলার মতো দল'

'সুপার এইট না, আমরা সেমিফাইনাল-ফাইনাল খেলার মতো দল'

পুরো দলের অনেকেই যখন সুপার এইট বা সেমির কথা বলেছেন, সেখানে তাওহীদ হৃদয় স্বপ্ন দেখেন ফাইনাল খেলার। দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচের পর তাওহীদ হৃদয় শোনালেন তার দেখা বড় স্বপ্নের কথা। হৃদয়ের বিশ্বাস, ' সেমিফাইনালতো অবশ্যই, ফাইনালও খেলবে বাংলাদেশ'। 

দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ৪ রানে হার, ম্যাচজুড়ে দুর্দান্ত পারফর্ম করা লড়াকু বাংলাদেশের প্রশংসা করছেন অনেকেই। ১৯.৫ ওভারে ছক্কা মারতে গিয়ে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের আউটের পরই বাংলাদেশের জয়ের আশা শেষ হয়ে যায়। শেষ বলেও ৬ লাগে। কেশব মহারাজের ফুলটস পেয়েও তাসকিন নিতে পারলেন মাত্র ১ রান। বাংলাদেশের ড্রেসিংরুম শোকে পাথর। 

প্রোটিয়াদের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসে তাওহীদ হৃদয় বলেন নিজেদের লক্ষ্যের কথা,‘আমার কাছে মনে হয় শুধু সুপার এইট না, আমরা সেমিফাইনাল-ফাইনাল খেলার মতো দল। এটা আমার বিশ্বাস। আমার এই বিশ্বাসটা আছে। ’

বাংলাদেশের ব্যাটারদের বাজে ফর্ম চলছে গেল কয়েক সিরিজ ধরেই। বিশ্বকাপে তা হয়েছে আরও চোখে পড়ার মতো। টাইগারদের ব্যাটিং ভরাডুবির বিষয়টি মোটেও পছন্দ হচ্ছে না ভক্ত-সমর্থকদের। দলের ব্যাটাররাও জানে তাদের ব্যর্থতা, তবে হৃদয় বলে গেলেন সবাই প্রতিদিন ভালো খেলবে না। এবং কামব্যাকের গল্পও সবাই লিখবে দ্রুত, 

‘ব্যাটাররা রান করছে না, প্রত্যেক ম্যাচেই সব দলের সবাই রান করে না, ১-২ জন খেলে। সংক্ষিপ্ত ফরম্যাট, এখানে ১১ জন খেলে না। যে ২-৩ জন খেলবে সেদিন যেন খেলাটা শেষ করে। এটা আমার ব্যক্তিগত মতামত। ব্যাটাররা রান করছে না, ইনশাআল্লাহ সামনের ম্যাচগুলোতে করবে। আশা করি তাড়াতাড়ি ঘুরে দাঁড়াব।’
 
পরপর দুই ম্যাচে নিজের অনবদ্য ব্যাটিংয়ের ব্যাখ্যায় হৃদয় বলেন, ‘যখন আমি ব্যাট করেছি, ইন্টেন্ট নিয়ে করার লক্ষ্য ছিল। এটা রানের খেলা। আমার পরিকল্পনা ছিল যেকোনো পরিস্থিতিতে রান করা। হ্যাঁ, কখনো আমি হয়তো কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হবো। আমি ম্যাচের চাওয়া অনুযায়ী এক্সিকিউট করেছি। ’