প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ভারতের কাছে বাংলাদেশের বড় হার

৯৭ প্রতিবেদক:

প্রকাশ : 1 মাস আগে আপডেট: 1 সেকেন্ড আগে
প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ভারতের কাছে বাংলাদেশের বড় হার

প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ভারতের কাছে বাংলাদেশের বড় হার

প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ভারতের কাছে বাংলাদেশের বড় হার

সিলেটে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ ও ভারতের নারী দল। বাংলাদেশ অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতির একা চেষ্টায় ফল মেলেনি, স্বাগতিকদের হারের স্বাদ পেতে হয়েছে ৪৫ রানের। টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪৫ রান সংগ্রহ করে ভারত। জবাবে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১০০ রান করতে সক্ষম হয় বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ দল রান তাড়ায় মোটেই সুবিধা করতে পারেনি। ইনিংসের প্রথম ওভারে ওপেনার দিলারা খাতুনকে ফিরিয়ে দেন ভারতীয় পেসার রেনুকা সিং। রেনুকা পরে আরও ২ উইকেট শিকার করেন। তিনে নামা সোবহানা মোস্তারি ফিরেছেন মাত্র ৬ রান করে। আরেক ওপেনার মুর্শিদা খাতুনও বেশিক্ষণ থাকেননি, বিদায় নেন ১৩ রান করে।

দলীয় ৩০ রানের মাথায় ৪ উইকেট হারিয়ে বসে বাংলাদেশ। একপাশ আগলে কেবল ছিলেন নিগার সুলতানা জ্যোতি। কিন্তু তাকে ভরসা দেওয়ার মতো কোনো ব্যাটার অন্য প্রান্তে ছিল না। স্বর্ণা আক্তার কিছুক্ষণ জ্যোতিকে সঙ্গ দিয়ে ১১ রান করে বিদায় নেন।

নাহিদা আক্তারের ব্যাটে আসে ৯ টি রান। বাংলাদেশ দল ৯৯ রান তুলতে হারায় ৭ উইকেট, চলছিল তখন ১৯তম ওভারের খেলা। শেষ ওভারে পূজা ভাস্ত্রকারের ডেলিভারিতে বোল্ড হয়ে অধিনায়ক জ্যোতি ফিরে যান ৪৮ বলে ৫১ রান করে।

শেষ পর্যন্ত ৮ উইকেট হারিয়ে ১০০ রানে শেষ হয় বাংলাদেশের চেষ্টা।

এর আগে ভারতীয় ইনিংসের শুরুর দিকে আঘাত হানতে সক্ষম হয়েছিল বাংলাদেশ। ওপেনার স্মৃতি মান্ধানাকে ৯ রানে ফিরিয়ে দেন বাঁহাতি পেসার ফারিহা তৃষ্ণা। এরপর শেফালি ভার্মা ও ইয়াস্তিকা ভাটিয়া মিলে গড়ে তোলেন জুটি। যে জুটি দলীয় ৬৮ রানে গিয়ে ভাঙে, রাবেয়া খানের শিকার জয়ে শেফালির ৩১ রানে ফেরায়।

ভাটিয়া ও অধিনায়ক হারমানপ্রীত কর মিলে দলের শতক পাড়ি। শত রান পেরোতেই ফিরে যান হারমানপ্রীত। ফাহিমা খাতুনের শিকার হয়ে শেষ হয় তার ২২ বলে ৩০ রানের ইনিংস৷ তারপরের ওভারেই ফেরেন ভাটিয়া।

রাবেয়া তার দ্বিতীয় শিকার করেন। ২৯ বলে ৩৬ রান নেওয়া ভাটিয়া খেলেছেন সর্বোচ্চ রানের ইনিংস। পরবর্তীতে রিচা ঘোষের ২৩ রান দলের সংগ্রহ বৃদ্ধিতে ভূমিকা রেখেছে। শেষ পর্যন্ত ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪৫ রানের সংগ্রহ তুলে নেয় ভারতীয় নারী দল।

বাংলাদেশের পক্ষে বল হাতে রাবেয়া খান সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন। মারুফা আক্তার সংগ্রহ করেছেন ২ উইকেট।