বিশ্বকাপ সিডিং যেভাবে কাজ করেছে, সুপার এইটে গেলে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ যারা

৯৭ প্রতিবেদক:

প্রকাশ : 4 সপ্তাহ আগে আপডেট: 1 সেকেন্ড আগে
বিশ্বকাপ সিডিং যেভাবে কাজ করেছে, সুপার এইটে গেলে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ যারা

বিশ্বকাপ সিডিং যেভাবে কাজ করেছে, সুপার এইটে গেলে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ যারা

বিশ্বকাপ সিডিং যেভাবে কাজ করেছে, সুপার এইটে গেলে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ যারা

প্রথমবারের মত আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এবার হচ্ছে ২০ দলের। ২০ দল মোট ৪ টি গ্রুপে ভাগ হয়ে খেলছে। ৪ গ্রুপ থেকে ২ টি করে মোট ৮ দল খেলবে সুপার এইটে। সুপার এইটে থাকবে দুই পুল (৪ টি করে দলের)। 

সুপার এইটে দুই পুল থেকে ২ টি করে দল উঠবে সেমিফাইনালে। এখন সুপার এইটে কোন গ্রুপ থেকে কোন দল কোন পুলে থাকবে তা গতানুগতিক নিয়মে হচ্ছে না এবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে। 

এমনিতে কোন গ্রুপ থেকে যে দল চ্যাম্পিয়ন হয় তাঁরা শীর্ষে থাকে। ধরুণ এ গ্রুপ থেকে যে দল শীর্ষে থাকে তাঁরা এ১ ও গ্রুপ রানার আপ এ২। তবে এবারের বিশ্বকাপে এ১, এ২, বি১, বি২, সি১, সি২, ডি১, ডি২ নির্ধারণে সিডিং প্রক্রিয়া রেখেছে আইসিসি। 

সেক্ষেত্রে কোন গ্রুপ থেকে কোন দল ১ ও কোন দল ২ নম্বর হয়ে সুপার এইটে যাবে তা অনেকটা পূর্ব নির্ধারিত ছিল। 

গ্রুপ এ- ভারত এ১, পাকিস্তান এ২
গ্রুপ বি- ইংল্যান্ড বি১, অস্ট্রেলিয়া বি২
গ্রুপ সি- নিউজিল্যান্ড সি১, ওয়েস্ট ইন্ডিজ সি২
গ্রুপ ডি- দক্ষিণ আফ্রিকা ডি১, শ্রীলঙ্কা ডি২। 

এখন আপনার প্রশ্ন হতে পারে, গ্রুপ সি তে নিউজিল্যান্ড, গ্রুপ ডি তে শ্রীলঙ্কা তো ছিটকে গেছে আগেই। এমনকি গ্রুপ এ তে পাকিস্তান ও গ্রুপ বি তে ইংল্যান্ডের সুপার এইটে ওঠার পথও প্রশস্ত নয়। তবে সেক্ষেত্রে কি হবে?

উত্তর হলে সিডিংয়ের বাইরে কোন দল সুপার এইটে গেলে যে দল যেতে ব্যর্থ হয়েছে তাঁর জায়গা নেবে দলটি।  যেমন গ্রুপ সি তে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সুপার এইট নিশ্চিত করেছে এবং সিডিং অনুযায়ী তাঁরা আছে সি২ হিসাবে। তবে নিউজিল্যান্ড যেহেতু সুপার এইট নিশ্চিত করতে পারেনি সেক্ষেত্রে তাঁদের জায়গা (সি১) নিয়েছে আফগানিস্তান। 

গ্রুপ ডি তে বাংলাদেশ উত্তীর্ন হলেই তাঁরা জায়গা নিবে শ্রীলঙ্কার (ডি২)। সেক্ষেত্রে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হলেও বাংলাদেশ ডি২ হয়েই সুপার এইটে যাবে। 

সুপার এইট নিশ্চিত করলে তখন বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ হবে এ গ্রুপ থেকে ভারত, বি গ্রুপ থেকে অস্ট্রেলিয়া, সি গ্রুপ থেকে আফগানিস্তান।