ব্যাটে-বলে সমানতালে লড়ে চেন্নাইয়ের স্বস্তির জয়

৯৭ প্রতিবেদক:

প্রকাশ : 1 মাস আগে আপডেট: 2 মিনিট আগে
ব্যাটে-বলে সমানতালে লড়ে চেন্নাইয়ের স্বস্তির জয়

ব্যাটে-বলে সমানতালে লড়ে চেন্নাইয়ের স্বস্তির জয়

ব্যাটে-বলে সমানতালে লড়ে চেন্নাইয়ের স্বস্তির জয়

বড় ব্যবধানে ম্যাচ জিতে টেবিলের ৩ নম্বর দল এখন চেন্নাই সুপার কিংস। আগের দুই ম্যাচ হারের পর এই জয় দটির জন্য স্বস্তির। রবিবার রাতের ম্যাচে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের বিপক্ষে ৭৮ রানের বড় জয় তুলে নিয়েছে দলটি। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ২১২ রান তোলে চেন্নাই। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৮.৫ ওভারে ১৩৪ রানে গুটিয়ে যায় হায়দ্রাবাদ।

চেন্নাইয়ের পক্ষে বল হাতে সর্বোচ্চ ৪ টি উইকেট সংগ্রহ করেন তুষার দেশপান্ডে। এছাড়াও মুস্তাফিজুর রহমান, মাথিশা পাথিরানার পকেটে ঢুকেছে ২ টি উইকেট।

চিপকে বড় লক্ষ্যমাত্রা সামনে নিয়ে ব্যাট করতে গিয়ে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে ধাক্কা খায় হায়দ্রাবাদ। দেশপান্ডের পরপর দুই ডেলিভারিতে ট্রাভিস হেড এবং তিনে নামা অনমলপ্রিত সিং এর উইকেট পতন হয়। আরেক ওপেনার অভিষেক শর্মাও দেশপান্ডের শিকার হয়েছেন।

এভাবে নিয়মিত বিরতি দিয়ে উইকেট হারিয়েছে হায়দ্রাবাদ। এইডেন মার্করামের ইনিংস সর্বোচ্চ ৩২ রান, হেনরিখ ক্লাসেনের ২০ রান, আব্দুল সামাদের ১৯ রান– এই রানগুলো মিলিয়ে ১৩৪ পর্যন্ত এগিয়ে যায় দলটি। তবে টিকে থাকতে পারেনি, ১৯তম ওভারে মুস্তাফিজের দ্বিতীয় শিকার হিসেবে জয়দেব উনাদকাট ফিরলে শেষ হয় হায়দ্রাবাদের সংগ্রাম।

এর আগে টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে চেন্নাই অধিনায়কের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে বড় সংগ্রহের পথে ছিল তারা। অজিঙ্কা রাহানে মাত্র ৯ রানে ফিরলেও, রুতুরাজ গায়কোয়াড় ও ড্যারিল মিচেল মিলে গড়ে তোলেন দারুণ জুটি। যে জুটি ভাঙে দলীয় ১২৬ রানের মাথায়। সেসময় ৩২ বলে ৫২ রান করে ফিরেছেন মিচেল।

গায়কোয়াড় তখনো ছিলেন। নতুন ব্যাটার শিভাম দুবেও তখন হাত খুলে বল খেলা শুরু করেছেন। রান উঠছে তরতর করে। দলীয় ২০০ রানের মাথায়, শেষ ওভারের দ্বিতীয় বলে গায়কোয়াড় উইকেট হারিয়ে বসেন। পূরণ হয় না সেঞ্চুরি, ৫৪ বলে ৯৮ রান করে ফেরেন এই ব্যাটার। যেখানে ছিল ১০ টি চার, ৩ টি ছয়ের মার।

অন্যদিকে ২০ বলে ৩৯ রান করে অপরাজিত ছিলেন দুবে, মহেন্দ্র সিং ধোনি ২ বল খেলে এক বাউন্ডারির সাহায্যে ৫ রান করে ছিলেন অপরাজিত।