বাংলাদেশকে ভালোবাসেন বলেই নাজিবউল্লাহ বিপিএলে

নাজিবউল্লাহ

আফগানিস্তান ক্রিকেটের সেরা তারকাদের একজন হয়েই ইতিহাস, পরিসংখ্যানের পাতায় থাকবেন নাজিবউল্লাহ জাদরান। চট্টগ্রাম দলে ফিনিশারের ভূমিকায় থাকা নাজিবউল্লাহ এরমধ্যে ফিনিশও করে এসেছেন ম্যাচ। বিনোদনের ক্রিকেট টি-টোয়েন্টি, এখানেই নাজিবউল্লাহ হতে চান অন্যতম ফেরিওয়ালা। বাংলাদেশকে ভালোবাসেন বলেই আইএলটি-টোয়েন্টি ছেড়ে আসলেন বিপিএল খেলতে। মুগ্ধ হয়েছেন এদেশের দুই তরুণ তানজিদ তামিম ও শাহাদাত দিপুর ব্যাটিংয়ে। 

বাংলাদেশ কিংবা বিপিএল বেশ পরিচিত নাজিবউল্লাহ জাদরানের। জাতীয় দলের অ্যাসাইনমেন্টের বাইরে বিপিএলে এসে তিনি খেলেছেন চার আসর। প্রথমে চট্টগ্রাম ভাইকিংস, এরপর খুলনা টাইগার্স, মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকা হয়ে এবার ফিরলেন চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের ঠিকানায়। 

সম্প্রতি চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের টিম হোটেলে ক্রিকেট৯৭ এর সাথে আলোচনায় নাজিবউল্লাহ জাদরান শোনালেন, তার ক্রিকেটে আসার রোমাঞ্চকর এক গল্প। আফগান ক্রিকেটে মোহাম্মদ নবী তার চোখে, ‘কিংবদন্তি’। বাংলাদেশের তারকাদের মধ্যে প্রিয়, তামিম, মাশরাফি, সাকিব। 

ক্রিকেট৯৭: পাঁচ ম্যাচের মধ্যে চারটিতে জয়, দলের পারফরম্যান্স দেখে কি মনে হচ্ছে? ফাইনালের লড়াইয়ে কতটুকু এগিয়ে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স?

নাজিবউল্লাহ: ‘হ্যাঁ, অবদান রাখতে পেরে সত্যিই খুশি। ইনশাআল্লাহ আমরা আমাদের যথাসাধ্য চেষ্টা করব প্লে অফে খেলার যোগ্যতা অর্জন করার জন্য, তারপর দেখা যাক।’

ক্রিকেট৯৭: এবারের বিপিএলে প্রথম ম্যাচেই শাহাদাত হোসেন দিপুর সঙ্গে জুটি গড়ে দলকে জিতিয়েছেন এবং তরুণ সম্ভাবনায় ক্রিকেটার হিসেবে তাকে আপনি কীভাবে মূল্যায়ন করেন?

নাজিবউল্লাহ: হ্যাঁ, আমি দেখেছি সে সত্যিই ভালো খেলেছে, বিশেষ করে সে অনেক কিছু শিখছে এবং সে শুনছে। এটি একজন তরুণ তারকার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সেই দিনে সে সত্যিই ভালো ক্রিকেট খেলেছে এবং আমি নেটে তার ব্যাটিং দেখেছি, সে একজন ভালো খেলোয়াড়।’

ক্রিকেট৯৭: আপনি সারা বিশ্বে ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট খেলেছেন এবং বিপিএলকে কীভাবে রেট করবেন?

নাজিবউল্লাহ: ‘আমি তিন-চারবার বিপিএল খেলেছি, আমি সত্যিই বিপিএল উপভোগ করি, তাই এখানে এসেছি। গত বছর আমি আইএলটি-টোয়েন্টিতে ছিলাম কিন্তু এই বছর আমি আমার ম্যানেজারকে বলেছিলাম আমি বিপিএল খেলতে যাচ্ছি কারণ আমি বাংলাদেশে খেলতে পছন্দ করি। আমি এখানে প্রচুর ক্রিকেট খেলেছি তাই আমি এসেছি এবং এটি সত্যিই ভালো ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ, দারুণ ভালো লিগ তাই আমি সত্যিই উপভোগ করছি, এখানে এসে সত্যিই খুশি।’

ক্রিকেট৯৭: আপনার সবচেয়ে প্রিয় বিপিএল স্মৃতি কী?

নাজিবউল্লাহ জাদরান: ‘আমার অনেক স্মৃতি আছে। কিন্তু যখন আমি আমার দলের হয়ে ম্যাচ জিততাম এটা সবসময়ই আমার জন্য একটি বড় অর্জন এবং এটি একটি ভালো স্মৃতিও।’

ক্রিকেট৯৭: আপনার প্রিয় বাংলাদেশী ক্রিকেটার কে?

নাজিবউল্লাহ জাদরান: ‘আমার কাছে দুই, তিন, একটি নয়, তামিম ইকবাল। এর আগে মাশরাফি মর্তুজা, এছাড়াও সাকিব এবং মাহমুদউল্লাহ এবং তারা সত্যিই ভালো ক্রিকেটার এবং আমি তাদের সবাইকে পছন্দ করি।’

ক্রিকেট৯৭: তানজিদ তামিমকে একজন ওপেনার হিসেবে আপনি কীভাবে রেট করেন?

নাজিবউল্লাহ জাদরান: ‘হ্যাঁ, সত্যিই ভালো খেলেছে, শেষ ম্যাচে সে ৫০ রান করেছিল, সে একজন ভালো খেলোয়াড়। আমার মনে হয় একজন টেস্ট খেলোয়াড়ও, সে আমাদের দলের একজন সিনিয়র খেলোয়াড় তাই তার দায়িত্ব আছে, আরও দায়িত্ব নেওয়া উচিত। এবং আমাদের দলের জন্য ম্যাচ জিতেছে, সে সত্যিই একজন ভালো ব্যাটসম্যান এবং সেইসাথে চমৎকার লোক।’

ক্রিকেট৯৭: আফগানিস্তান ক্রিকেটের অন্যতম একজন তারকা মোহাম্মদ নবী, আফগানিস্তান ক্রিকেটে তার অবদান কতটুকু?

নাজিবউল্লাহ জাদরান: ‘নবীর অনেক প্রভাব রয়েছে, আফগানিস্তানের হয়ে ২০ বছরেরও বেশি সময় খেলেছেন, এটি একটি বড় অর্জন। তার জন্য, আফগানিস্তানের জন্যও, সে সব জায়গা থেকে সত্যিই দুর্দান্ত পারফর্ম করেছে। প্রতি বছর প্রতি দেশে তিনি পারফর্ম করে যান, আশা করি তিনি খেলা আরও চালিয়ে যাবেন। সে আমাদের সবচেয়ে সিনিয়র খেলোয়াড়। আফগানিস্তানের তাকে দরকার। তিনি একজন কিংবদন্তি। আমিও নবীকে অনেক পছন্দ করি। আমরা গত ১০-১২ বছর ধরে একসাথে খেলছি এবং প্রতি বছরও আমরা একসাথে ব্যাটিং করেছি। কখনও কখনও আমরা পাঁচ নম্বর, ছয় নম্বরে, তখন আমি নবীর সাথে সত্যিই ব্যাট করতে উপভোগ করি।’

ক্রিকেট৯৭: আপনি গত বছর এশিয়া কাপে টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলেছেন। বাংলাদেশের বিপক্ষে খেললে কিভাবে আপনি বেশি অনুপ্রাণিত হন এবং এর পেছনের কারণ কী?

নাজিবউল্লাহ জাদরান: ‘আমি বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলতে পছন্দ করি কারণ আমি এখানে অনেক বিপিএল খেলেছি এবং আমি সব বোলারকে চিনি এবং তাদের শক্তি জানি। আমি আমার নিজের খেলা খেলি এবং আমি আফগানিস্তানের হয়ে জিততে চাই। প্রত্যেক খেলোয়াড়ের একটা লক্ষ্য থাকে এবং তাদের যে কোনো দলকে হারাতে হবে। আমার পরিকল্পনাও সহজ এবং আমি আফগানিস্তানের হয়ে জিততে চাই।’

ক্রিকেট৯৭: সাকিবের অধিনায়কত্বে বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টিতে সত্যিই ভালো ক্রিকেট খেলেছে এবং কয়েক মাস পরেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। টি-টোয়েন্টি দল হিসেবে বাংলাদেশকে কোথায় দেখছেন?

নাজিবউল্লাহ জাদরান: ‘বিশ্বকাপ ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। আমি মনে করি এগুলোতেও স্লো উইকেট হবে তাই এশিয়ান দেশগুলোর জন্য ভালো হবে। কারণ, সবারই ভালো স্পিনার আছে। যখন ভালো ক্রিকেট খেলবে, সেদিন যে কোনো দলকে হারাতে পারবে। গুরুত্বপূর্ণ হলো, বিশ্বকাপে ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে। দেখা যাক…’

ক্রিকেট৯৭: আপনার ক্রিকেটার হয়ে ওঠার পেছনের কোনো গল্প আছে?

নাজিবউল্লাহ জাদরান: ‘আমি যখন ছোট ছিলাম তখন ক্রিকেট খুব পছন্দ করতাম। আমি টেনিস বল ক্রিকেট, সফটবল খেলেছি। তখন কিছু ক্রিকেটার, প্রাক্তন-ক্রিকেটারকে ফলো করতাম। আমাদের প্রাক্তন ক্রিকেটার করিম সাদিক আমাকে বলেছিলেন, হার্ডবল ক্রিকেটে আসো, তোমার প্রতিভা আছে, সামর্থ্য রয়েছে এবং একদিন আফগানিস্তান দলের প্রতিনিধিত্ব করবে। তাই ক্রিকেট শুরু করেছি।’

ক্রিকেট৯৭: বাংলাদেশের কোনো খাবার কি এখন পর্যন্ত আপনার প্রিয় তালিকায় জায়গা পেয়েছে?

নাজিবউল্লাহ জাদরান: ‘এখানের খাবার অনেক ঝাল, আমি মোটেও ঝাল পছন্দ করি না। আমি মশলা পছন্দ করি না তবে বাংলাদেশের মাছ আমি মাছ পছন্দ করি, বেশিরভাগ সময় আমি এখানে মাছ খাই।’

রাকিবুল হাসান

Read Previous

সিলেটে নিজেদের শেষ ম্যাচে টস জিতলেন লিটন

Read Next

জাইসাওয়ালকে দ্বি’শতকের অপেক্ষায় রেখে প্রথম দিনের সমাপ্তি

Total
0
Share