সিডনি টেস্ট: রিজওয়ান-জামালদের প্রচেষ্টায় ৩০০ পেরিয়েছে পাকিস্তান

আফ্রিদি পাকিস্তান

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজের শেষ টেস্টে মুখোমুখি হয়েছে পাকিস্তান। টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামা পাকিস্তানের শুরুর কথা বললে তা মোটেও ভালো ছিল না। প্রথম ১০ ওভারে ৩ উইকেট হারানো দলটি, শেষপর্যন্ত মোহাম্মদ রিজওয়ান, আমির জামাল, আগা সালমানদের ইনিংসে ৩০০ পেরিয়ে যায়। প্রথম দিন শেষে ৩১৩ রানে অলআউট হয়েছে সফরকারীরা। অস্ট্রেলিয়া দিনের শেষে ব্যাট করতে নেমে এক ওভার খেলে বিনা উইকেটে দলীয় ৬ রানে অবস্থান করছে।

সিডনিতে টস জেতার ভাগ্য পাকিস্তানের পক্ষে কাজ করেছে। তবে শুরুতে ব্যাট করতে নেমে দুই ওপেনার আব্দুল্লাহ শফিক ও অভিষিক্ত সাইম আইয়ুব- দুজনেই হোঁচট খেয়েছেন। ইনিংসের প্রথম ওভারে মিচেল স্টার্কের ডেলিভারিতে শফিক এবং পরের ওভারে জশ হ্যাজেলউড তুলে নেন সাইমের উইকেট- দুজনের ফেরা শূণ্য রানে।

বাবর আজমের ব্যাটে আসা ২৬ রানের ইনিংস লম্বা হয়নি। লেগ বিফোরের শিকার হয়ে ফিরেছেন প্যাট কামিন্সের ডেলিভারিতে। অন্যদিকে অধিনায়ক শান মাসুদের দায়িত্বপূর্ণ ইনিংসও খুব বড় হওয়ার সুযোগ আসেনি মিচেল মার্শের কল্যাণে। তাতে মাসুদের ৩৫ রানের ইনিংস শেষ হওয়ার আগে, সৌদ শাকিলও ফিরেছেন ব্যক্তিগত ৫ রানে। তখন পাকিস্তানের দলীয় সংগ্রহ ৫ উইকেট হারিয়ে ৯৬ রান।

এ সময় রিজওয়ান ও সালমান মিলে বিপর্যয় কাটিয়ে বড় জুটির দিকে ছুটতে থাকেন। ১০৩ বলে ৮৮ রান করা রিজওয়ানের শতক হওয়ার সম্ভাবনা শেষ হয়ে যায় কামিন্সের ডেলিভারিতে। সালমানের ব্যাটেও আসে ৫৩ রানের ইনিংস। তবে সবচেয়ে চমক দেখিয়েছে ৯ নম্বরে নামা জামাল। লেজের দিকে ব্যাট করতে নেমে মীর হামজাকে সঙ্গী করে নিজে ৯৭ বলে ৮২ রানের ইনিংস খেলেছেন। হামজা অন্যদিকে অপরাজিত ছিলেন ৪৩ বল খেলে ৭ রানে। জামাল যখন নাথান লায়নের শিকার হয়ে শেষ উইকেট হিসেবে প্যাভিলিয়নের পথ ধরলেন, পাকিস্তান তখন ৩১৩ রানের সংগ্রহ দাঁড় করিয়ে নিয়েছে।

দিনের শেষে আর এক ওভার হওয়ার মতো সময় থাকলে, ডেভিড ওয়ার্নার ও উসমান খাজা মিলে বিনা উইকেটে দলীয় ৬ রানে প্রথম দিনের সমাপ্তি ঘটিয়েছে।

অস্ট্রেলিয়ার বোলারদের পক্ষে প্যাট কামিন্স সর্বোচ্চ ৫ উইকেট শিকার করেছেন।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করে জানিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা

Read Next

কেপটাউন টেস্টে এক দিনে নেই ২৩ উইকেট

Total
0
Share