ফিলি’স্তিন ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা পেলেন খাজা

উসমান খাজা

সম্প্রতি যু’দ্ধা’হত মানুষদের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে চলমান টেস্ট সিরিজে বিভিন্নভাবে নিজের বার্তা জানিয়ে আসছিলেন অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার উসমান খাজা। সেখানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা (আইসিসি) থেকেও তিরস্কৃত হতে হয়েছে তাঁকে। তবে এবার পুরো ঘটনার প্রেক্ষিতে অস্ট্রেলিয়ান প্রধানমন্ত্রী অ্যান্থোনি আলবানেজ থেকে প্রশংসিত হয়েছেন খাজা।

ফিলি’স্তিনের গা’জায় চলমান সহিং’সতায় নিজের প্রতিবাদ বা সমবেদনা- যাই বলা হোক না কেন- তা জানিয়ে বারবার বিভিন্ন উপায় বের করছিলেন খাজা। গত মাসে যখন পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ শুরু হচ্ছে, তার আগে অনুশীলন-কালীন সময় নিজের জুতায় ‘All Lives Are Equal’, ‘Freedom is a Human Right’- বার্তা লিখে রাখেন তিনি। সেসময় আইসিসি থেকে বিষয়টি তদারকি করা হয়েছিল। সংস্থাটি আগাম সতর্ক হিসেবে জানিয়েছিল, যাতে খাজা এই জুতা পরিধান করে ম্যাচ খেলতে না নামে।

পরবর্তীতে জুতার বার্তা মুছে দিলেও, পার্থ টেস্টে কালো আর্মব্যান্ড পরে নামেন খাজা। এতেও আপত্তি ছিল আসিসির। তাঁরা খাজাকে তিরস্কৃত করেছিল। অবশ্য এই অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটারের বিষয়টি ভাল লাগে নি। কেউ যদি ‘ব্যক্তিগত শোক’ বহন করতে চায়, তাতে আপত্তি থাকার কথা ছিল না ক্রিকেটের এই নিয়ন্ত্রক সংস্থাটির। খাজা অন্তত এতদিন তেমনটি জানতেন, বুঝতেন।

মেলবোর্ন টেস্ট শুরু হওয়ার আগে আইসিসির কাছে তিনি অনুরোধ করেছিলেন, শান্তির প্রতীক পায়রা ও জলপাই গাছের পাতা- যা বিশ্বে শান্তির দৃশ্যমান জায়গা থেকে বিবেচনা করা হয়- নিজের ব্যাটে সেরকম কিছু আশা করছেন তিনি। এখানেও আইসিসি থেকে কোনো অনুমতি মেলেনি।

এসব ঘটনায় পুরো বিশ্ব থেকে ও দলীয় অধিনায়ক, খেলোয়াড়বৃন্দ থেকে সমর্থন পেয়েছেন খাজা। ‘শান্তির প্রতীক’ সহযোগে অনুমতি না মেলার পর, মেলবোর্ন টেস্টে নিজের জুতায় মেয়েদের নাম লিখে মাঠে নামেন তিনি।

আগামীকাল, ৩ জানুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে সিডনি টেস্ট। এর আগে নতুন বর্ষের অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে পাকিস্তান ও অস্ট্রেলিয়া দলের সামনে ভাষণ দেওয়ার সময় প্রধানমন্ত্রী আলবানেজের মুখে খাজার প্রশংসাবানী উচ্চারিত হয়।

তিনি বলেন, “আমি অভিনন্দন জানাতে চাই (খাজাকে), মানুষকে মূল্যায়ন করতে তাঁর সাহস প্রদর্শনের জন্য। সে সাহস দেখিয়েছে। আর মূল ব্যাপার যে, পুরো দলও এ ব্যাপারে তাঁকে সাহায্য করেছে, যা দারুণ ব্যাপার।”

সিডনি টেস্টে শেষবারের মতো খাজার সাথে উদ্বোধনী ব্যাটিংয়ে দেখা যাবে ডেভিড ওয়ার্নারকে। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী এই টেস্ট ম্যাচ খেলে অবসরে যাবেন ওয়ার্নার। ইতোমধ্যে ওডিআই ক্রিকেট থেকেও অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী আলবানেজ খাজা ও ওয়ার্নারের কথা আলাদাভাবে বললেন তাঁর ভাষণে, যেখানে সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে এটি ‘বিশেষ মুহূর্ত’ হিসেবে থাকবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

নিউ ইয়ার টেস্টের জন্য অস্ট্রেলিয়ার একাদশ ঘোষণা

Read Next

শাহীন আফ্রিদিকে ছাড়া সিডনিতে নামবে পাকিস্তান

Total
0
Share