ডিএলএসে ১৭ রানে এগিয়ে নিউজিল্যান্ড

বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ড 11

নিউজিল্যান্ডের মাঠে প্রথমবারের মতো সিরিজ জয়ের দারুণ এক সুযোগ ছিল বাংলাদেশের সামনে। কিন্তু ব্যাটারদের ব্যর্থতায় স্কোরবোর্ডে আসে কেবল ১১০ রান। বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ হলেও বাংলাদেশের সিরিজ জয়ের স্বপ্ন প্রায় শেষই বলা চলে। ১৪.৪ ওভারে নিউজিল্যান্ডের ৫ উইকেটে ৯৫ রান, ডিএলএসে তারা এগিয়ে ১৭ রানে। 

বেরসিক বৃষ্টিতে বে ওভালে থামল খেলা। এর আগেই ম্যাচে এগিয়ে গেল স্বাগতিকরা। মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছে, খেলা আর মাঠে না গড়ালে নিউজিল্যান্ড এই ম্যাচ জিতে যাবে। সিরিজ শেষ হবে সমতায়।

নেপিয়ারে ঐতিহাসিক জয়ে সিরিজে এগিয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশ। মাউন্ট মঙ্গানুইতে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ ভেস্তে যায় বৃষ্টিতে। সফরের শেষ ম্যাচ খেলতে নেমে ইনিংসের ৪ বল বাকি থাকতে ১১০ রানেই শেষ বাংলাদেশ। ব্যাটারদের মধ্যে অধিনায়ক শান্তর ব্যাট থেকেই এল সর্বোচ্চ ১৭ রান। বিপরীতে কিউই অধিনায়ক মিচেল স্যান্টনারের ঝুলিতে যায় ৪ উইকেট। 

১১১ রানের লক্ষ্য তাড়ায় নেমে তানভীর ইসলামের প্রথম ওভারেই ১২ রান তুলে নেন ফিন অ্যালেন। তবে পরের ওভারেই শেখ মেহেদীকে দিয়ে সাফল্য পায় বাংলাদেশ। ১ রানে থাকা টিম সেইফার্টকে ফেরাতে স্টাম্পের পেছনে দৃঢ়তা দেখিয়ে স্টাম্পড করেন রনি তালুকদার।  উইকেটকিপার রনি তালুকদার ছিলেন তৎপর। আগের দুই ম্যাচে চরম ব্যর্থ (১, ২) হওয়া ফিন অ্যালেন আজ গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে জ্বলে ওঠলেন।

মেহেদী পরের ওভারে এসে ফিরিয়ে দেন তিনে নামা ড্যারিল মিচেলকে। ৪ ওভারের মধ্যেই দুই উইকেট নেই স্বাগতিকদের। এদিন ৫ বল খেলে ১ রানের বেশি করতে পারেননি মিচেল, মিড অফে দাঁড়িয়ে শান্ত লুফে নিয়েছেন সহজ ক্যাচ। এই সিরিজে মিচেল যে দুইবার আউট হয়েছেন, দুইবারই উইকেট দখলে নেন মেহেদী

দুর্দান্ত শরিফুল ইসলাম দ্রুতই ভাঙেন গ্লেন ফিলিপসের স্টাম্প। কিউইদের চাপ বেড়েছে আরও! নিউজিল্যান্ড পাওয়ারপ্লেতে ৩৫ রান তুলতে হারিয়েছে ৩ উইকেট। যেখানে সমান তিন উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ পেয়েছিল ৪৫ রান। কিউইদের প্রথম ৩৫ রানের ২৯ রানই এসেছে ফিন অ্যালেনের ব্যাট থেকে। মার্ক চ্যাপম্যানকে একটু অভাগাই বলতে হবে। ফিন অ্যালেনের সাথে ধাক্কা খেয়ে রান আউট তিনি।

অতি-আক্রমণাত্মক হতে গিয়ে আউট ফিন অ্যালেন। টানা তৃতীয় বারের মতো অ্যালেনের উইকেট শিকার করলেন শরিফুল। এই ওভারে মাত্র এক রান খরচ করে উইকেট নেন পেসার শরিফুল। পঞ্চাশের আগেই পাঁচ উইকেট হারিয়ে ফেলে নিউজিল্যান্ড। তবে বল হাতে শান্তর বাজি এদিন কাজে আসেনি, ওভারে খরচ করেন ১৪ রান। ১০ ওভারশেষে ৫ উইকেটে ৬৩ রান নিউজিল্যান্ডের।

এরপর আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি বাংলাদেশ। স্যান্টনার ও নিশাম জুটি গড়ছেন। ১৪.৪ ওভারে নিউজিল্যান্ডের স্কোর যখন ৫ উইকেটে ৯৫ রান তখন নামল বৃষ্টি। 

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

৭ নতুন মুখ দক্ষিণ আফ্রিকার নিউজিল্যান্ড সফরের দলে

Read Next

বছরের শেষ দিনে বাংলাদেশের পরাজয়

Total
0
Share