রফিক ভাই ছিলেন আমাদের আইডলঃ সাকিব

featured photo1 85
Vinkmag ad

অস্ট্রেলিয়ার সাথে টেস্ট দিয়ে অসাধারণ এক মাইলফলক ছুঁয়েছেন। অজিদের সাথে মিরপুরের প্রথম টেস্টটি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ক্যারিয়ারে সাদা পোশাকে ৫০তম ম্যাচ ছিল সাকিব আল হাসানের। নিজের এমন মাইলফলক ছোঁয়া ম্যাচে এর থেকে বোধহয় আর বেশি ভাল হতে পারতো না।

অলরাউন্ডার পারফরম্যান্সে জিতিয়েছেন দলকে, বাগিয়েছেন ম্যাচ সেরা পুরস্কারও। এই নিয়ে বাংলাদেশ জিতছে এমন তিন টেস্টে ম্যাচসেরা হলেন সাকিব। এই নিয়ে সাদা পোশাকে মোট ৬ বার পেয়েছেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার।

এদিন ম্যাচসেরার পুরস্কার নেওয়ার পর সাকিব জানিয়েছেন তার আদর্শের নাম। বাংলাদেশের ক্রিকেটে স্পিনারদের দাপট যার হাত দিয়ে শুরু হয়েছিল, সেই মোহাম্মদ রফিককেই আইডল মানেন সাকিব। মিরপুর টেস্টে খেলেছেন তিনজন স্পিনার। সাকিবের কাছে জানতে চাওয়া হয় তার সাথে আর দুই স্পিনার মিরাজ ও তাইজুলকে নিয়ে সাজানো স্পিনের এই ত্রিফলা আক্রমনটাই কি বাংলাদেশের সেরা স্পিন আক্রমণ কিনা।

74277
সাকিব, রাজ্জাক ও রফিক, সালঃ ২০০৭

জবাবে সাকিব বলেন, “আমাদের আগে পরিস্থিতি বিবেচনাই আনতে হবে। আমরা আগে চিন্তা করতাম খেলা পাঁচ দিনে নিয়ে যেতে হবে। তখন আমরা হয়তো সব সময় বোলিং সহায়ক উইকেট পেতাম না, এখন যেমনটা পাচ্ছি। এ কারণে তুলনা করতে চাই না। তবে রফিক ভাই (মোহাম্মদ রফিক) ছিলেন আমাদের বাঁহাতি স্পিনারদের আইডল। আমি উনাকে সবচেয়ে বেশি রেট করি। রাজ ভাইও (আবদুর রাজ্জাক) অনেক ভালো বোলার ছিলেন।”

সাকিবের অভিষেক ম্যাচে ২০০৭ সালে বাংলাদেশের সাবেক এই বাঁহাতি স্পিনারকে পেয়েছিলেন সাকিব। যদিও ভারতের বিপক্ষে ওই ম্যাচে বল করার সুযোগ হয়নি সাকিবের। তবে পরে অবশ্য ভারতের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টেই রফিকের সাথে জুটি বেধে বল করার সুযোগ হয়েছিল এই নাম্বার ওয়ান অলরাউন্ডারের।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

স্মিথের কণ্ঠে ভিন্ন সুর

Read Next

পাঁচ বছর নিষিদ্ধ হলেন শারজিল খান

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share