আইপিএল না খেলা নিয়ে অনুশোচনা নেই স্টার্কের

অদ্ভুত ইনজুরিতে পড়ে ছিটকে গেলেন মিচেল স্টার্ক

আইপিএলের আসন্ন মৌসুমের আগে আলোচনা চলছে মিচেল স্টার্ককে নিয়ে। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে সবচেয়ে দামী খেলোয়াড় হিসেবে নিলামে নাম উঠেছে স্টার্কের। কোলকাতা নাইট রাইডার্স তাঁকে কিনে নিয়েছে ২৪ কোটি ৭৫ লাখ রুপি দিয়ে। ২০১৪ ও ২০১৫ মৌসুম খেলার পর ২০২৪ আইপিএলে আবারও দেখা যাবে স্টার্ককে। তিনি মাঝখানের আর কোনো আসরে নিজেকে যুক্ত করেননি।

সর্বশেষ ২০১৪ ও ২০১৫ আইপিএলে রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর হয়ে খেলেছেন স্টার্ক। ২০১৮ সালে কোলকাতা এই অস্ট্রেলিয়ান ফাস্ট বোলারকে দলে ভিড়িয়ে নেয়, কিন্তু ইনজুরির কারণে সে আসরে খেলা হয় না তাঁর।

স্টার্ক মূলত নিজের নাম সরিয়ে নিতেন বারবার, কখনো ইনজুরি, কখনো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের কথা চিন্তা করে। আর নিজেকে সরিয়ে নেওয়ার ফলে তাঁর মধ্যে কোনো অনুশোচনা ছিল না কখনো। যা সম্প্রতি প্রকাশ করেছেন।

“আমি এর কোনোটির জন্য অনুশোচনা করি না। আমি মনে করি এটা অবশ্যই আমার টেস্ট ক্রিকেটে সাহায্য করেছে। টাকাপয়সা সবসময় সুন্দর এবং অবশ্যই এই বছরও ছিল, কিন্তু আমি সবসময় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে অগ্রাধিকার দিয়েছি এবং আমি মনে করি এটি আমার খেলায় সাহায্য করেছে।”

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিজেকে আরও পরিণত বোধ করেছেন স্টার্ক। আইপিএল থেকে নিজেকে বারবার সরিয়ে নেওয়ার ফলে তাঁর ক্যারিয়ারে সেটি ইতিবাচক প্রভাব ফেলেছে বলেও মনে করেন তিনি।

অস্ট্রেলিয়ার ৩ সংস্করণের ক্রিকেটে স্টার্ক খুব গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার। ২০১৫ ও ২০২৩ বিশ্বকাপ জয়ী দলের সদস্য ছিলেন। ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দলের অংশ ছিলেন। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনাল, ২০২৩ এর অংশ হিসেবেও ছিলেন স্টার্ক। পেস বোলিং ডিপার্টমেন্টে নিজের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন নিবিড়ভাবে।

আগামী বছরের আইপিএলে অংশ নিচ্ছেন এই ক্রিকেটার। মূলত ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও যুক্তরাষ্ট্রে ২০২৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে আইপিএল খেলার সুযোগটি নিতে চান স্টার্ক। যাতে এই প্রতিযোগিতামূলক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট খেলার অভিজ্ঞতা বিশ্বকাপের মঞ্চে কাজে লাগাতে পারেন।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ইংল্যান্ডের কোচিং স্টাফে যুক্ত হলেন কাইরন পোলার্ড

Read Next

বক্সিং-ডে টেস্টে পাকিস্তানের সেরা ১২ যারা

Total
0
Share