তিন ফিফটির কাছে ম্লান ফারজানার সেঞ্চুরি

বাংলাদেশ নারী 1

পচেফস্ট্রুমে ফারজানা হক পিংকির ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশ চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ পেয়েছিল। দক্ষিণ আফ্রিকা নারী দলের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে আগে ব্যাট করে টাইগ্রেসরা স্কোরবোর্ডে জমা করে ২২২ রান। তবে বোলারদের ব্যর্থতায় লড়াইটা জমে ওঠেনি তেমনভাবে। লক্ষ্যতাড়ায় নেমে টপ অর্ডারের দাপুটে ব্যাটিংয়ে প্রোটিয়ারা তুলে নেয় ৮ উইকেটের বড় জয়। সিরিজ এখন ১-১ সমতায়। 

ভারতের পর দক্ষিণ আফ্রিকার বোলিং লাইনের বিরুদ্ধেও দাপট দেখিয়ে পিংকি ছুঁয়েছেন শতক। তবে প্রোটিয়া ব্যাটারদের দাপটে ম্লান হয়ে গেল ফারজানা হক পিংকির ১০২ রানের ইনিংস। তিন ফিফটিতে ভর দিয়ে ৪৫.১ ওভারে দুই উইকেট হারিয়ে জয় নিশ্চিত করে স্বাগতিকরা। 

সিরিজের প্রথম ওয়ানডে জিতে এগিয়ে ছিল বাংলাদেশ নারী দল। আজ জিতলে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে সিরিজ নিশ্চিত হয়ে যেত জ্যোতিদের। কিন্তু এতো দ্রুতই সিরিজ জেতা হল না, বাংলাদেশ থাকল অপেক্ষায়। ৮ উইকেটের জয়ে সিরিজ সমতায় আনল দক্ষিণ আফ্রিকা নারী দল। দুই ওপেনার লরা ওলভার্ট ও তাজমিন ব্রিটস পান ফিফটির দেখা। এই দুই ব্যাটার যথাক্রমে ৫৪ ও ৫০ রানে ফিরলে আর কোনো উইকেট হারায়নি তারা।

আনেকে বস ও সুনে লুউসের ১২০ বলে করা ১১৭ রানে সহজেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। আনেকে পঞ্চাশ ছুঁয়ে অপরাজিত থাকেন ৬৫ রানে। তবে ৩ রানের জন্য এদিন ফিফটি পূরণ হয়নি লুউসের। 

এর আগে বাংলাদেশ ইনিংসে উদ্বোধনী ব্যাটার হিসেবে নেমে উইকেটে টিকে ছিলেন ৫০তম ওভার পর্যন্ত। ইনিংসের শেষ ওভারে রানআউট হয়ে যাওয়ায় অপরাজিত থেকে ফিরতে পারেননি। আউট হওয়ার আগে ১৬৭ বলে ১১ চারে করেছেন ১০২ রান। এবছরের জুলাইয়ে মেয়েদের ওয়ানডেতে বাংলাদেশের প্রথম সেঞ্চুরিয়ান ফারজানা হক। চলতি বছরেই পেয়ে যান দ্বিতীয় সেঞ্চুরির দেখা। মেয়েদের ক্রিকেটে প্রথম দুই সেঞ্চুরির কীর্তি গড়লেন ফারজানা হক। প্রোটিয়াদের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ১৫৬ বলে তিন অঙ্ক স্পর্শ করেন ফারজানা। 

সিরিজে ১-০’তে এগিয়ে থাকা বাংলাদেশ পচেফস্ট্রুমে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নামে। শামীমা সুলতানা ও ফারজানা হক পিংকির গড়া উদ্বোধনী জুটিতেই আসে ৪৮ রান। ইনিংসের শেষ ১০ ওভারে ৫৮ রান আসে সংগ্রহে। প্রথমে ব্যাট করে ৫০ ওভারে ৪ উইকেটে ২২২ রান তুলেছে নিগার সুলতানার দল। আর তাতেই ২২৩ রানের লক্ষ্য স্বাগতিকদের সামনে।

ভারতের বিপক্ষে ফারজানার ১০৭ রানের ইনিংসে ছিল ৭টি চার। এবার ১০২ রানের ইনিংস সাজান ১১ বাউন্ডারিতে। এছাড়া আজকের ম্যাচে ফারজানাকে সঙ্গ দিয়ে ফাহিমা খাতুনও ছিলেন দুর্দান্ত। ৪৮ বলে ৪৬ রানের হার-না-মানা ইনিংসে অপরাজিত থেকে মাঠ ছেড়েছেন।

অধিনায়ক নিগার সুলতানা অবশ্য এদিন ১৩ রানের বেশি করতে পারেননি। এর আগে ওপেনার শামীমা সুলতানার ব্যাট থেকে আসে ২৮ রান। প্রথম ম্যাচে ৯১ রানের অপরাজিত ইনিংসে দলের জয়ে ভূমিকা রাখা মুর্শিদা খাতুন আজ ৮ রান করতেই নিয়েছেন বিদায়। 

আগামী ২৩শে ডিসেম্বর বেনোনিতে সিরিজ নির্ধারণী শেষ ম্যাচ খেলতে নামবে দুই দল। সিরিজ ১-১ এ সমতায় থাকার ফলে এই ম্যাচ অঘোষিত ফাইনালে রূপ নিয়েছে, যারা জিতবে তাদের হাতেই উঠবে ট্রফি। 

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ফারজানার রেকর্ড সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ

Read Next

আইপিএলের দেখানো পথে আইএলটি২০

Total
0
Share