২০ মাসের জন্য নিষিদ্ধ হলেন নাভিন

নাভিন

সংযুক্ত আরব আমিরাতের আইএল টি-টোয়েন্টি থেকে ২০ মাসের নিষেধাজ্ঞা পেয়েছেন আফগানিস্তান পেসার নাভিন উল হক। আগের আসরে শারজাহ ওয়ারিয়র্সের হয়ে খেলা এই পেসারের সাথে চুক্তি অনুসারে তাঁকে ‘রিটেনশন’ এর নোটিশ দেওয়া হয়েছিল। যার মাধ্যমে খেলোয়াড় ধরে রাখার প্রক্রিয়া সম্পাদিত হয়। কিন্তু নাভিন এই নোটিশে স্বাক্ষর করেননি। বরং সেসময় সাউথ আফ্রিকা টি-টোয়েন্টি লিগ খেলবেন বলে, ডারবান সুপার জায়ান্টস এর সাথে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন।

আইএল টি-টোয়েন্টি এর দল, শারজাহ ওয়ারিয়র্স এর সাথে চুক্তি অনুযায়ী কাজ করেননি নাভিন, সেহেতু তাঁকে এই লিগের শর্ত অনুযায়ী নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। যার ফলে ২০২৪ ও ২০২৫ আসরে আরব আমিরাতের এই লিগ খেলতে পারবেন না তিনি।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) দল, লক্ষ্ণৌ সুপার জায়ান্টস এর মালিকানায় পরিচালিত দল সাউথ আফ্রিকার ডারবান সুপার জায়ান্টস। লক্ষ্ণৌ এর সদস্য হিসেবেও নাভিন আগের আসরে আইপিএল খেলেছেন। ফলে সাউথ আফ্রিকা লিগে তাঁর চুক্তি স্বাক্ষর করা খুব একটা কঠিন হয়নি বলা যায়।

যেহেতু আগামী বছর আইএল টি-টোয়েন্টি এবং এসএ টুয়েন্টি লিগ, দু’টি প্রায় একই সময়ে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে, সেহেতু আরব আমিরাত থেকে সরে গিয়ে সাউথ আফ্রিকায় খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নাভিন।

আরব আমিরাত লিগের শৃঙ্খলা কমিটি থেকে বলা হয়,

“দুর্ভাগ্যবশত, নাভিন উল হক, শারজাহ ওয়ারিয়র্সের সাথে তাঁর চুক্তির বাধ্যবাধকতা মানতে ব্যর্থ হন এবং ফলে তাঁকে এই ২০ মাসের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা ছাড়া আর কোন উপায় ছিল না।”

“নাভিনের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক কার্যক্রম স্বচ্ছভাবে পরিচালিত হয়েছিল এবং জড়িত উভয় পক্ষকেই তাদের দাখিল প্রস্তুত ও উপস্থাপনের সুযোগ দেওয়া হয়েছিল।”

গত, ২০২৩ আসরে শারজাহ’র হয়ে দারুণ পারফর্ম করেছিলেন নাভিন। দলের হয়ে জুনায়েদ সিদ্দিকীর সাথে যৌথভাবে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি (১১) বোলার ছিলেন তিনি। যদিও বেশ কঠিন সময় ছিল দলের জন্য। ১০ ম্যাচে মাত্র ৩ জয় নিয়ে আসর শেষ করতে হয় শারজাহ ওয়ারিয়র্সকে।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

বক্সিং-ডে টেস্টের জন্য অস্ট্রেলিয়ার ১৩ সদস্যের স্কোয়াড

Read Next

বড় হারের এবার জরিমানা ও পয়েন্ট কাটা গেল পাকিস্তানের

Total
0
Share