যতদিন হাঁটতে পারছেন, ততদিন আইপিএল চালিয়ে যেতে চান ম্যাক্সওয়েল

গ্লেন ম্যাক্সওয়েল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব আইপিএল

অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেটার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) লম্বা সময় ধরে খেলার ব্যাপারে প্রচণ্ড আগ্রহ দেখিয়েছেন। তিনি বলেছেন, আইপিএল খেলা চালিয়ে যাবেন, যতক্ষণ হাঁটতে না পারছেন। বর্তমানে এই অলরাউন্ডার নিজেকে প্রস্তুত করছেন পরের বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য।

আগামী বছর আইপিএল ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পাশাপাশি থাকায়, অনেক ক্রিকেটার আইপিএল থেকে নিজেদের নাম সরিয়ে নিয়েছে। তবে ম্যাক্সওয়েল এখানে আলাদা। তিনি বরং আইপিএলকে প্রাধান্য দিচ্ছেন সর্বোচ্চ ইচ্ছাশক্তি দিয়ে।

ভারত থেকে ফেরার পর এক সপ্তাহ’র বিশ্রাম শেষে আগামী বৃহস্পতিবার বিগ ব্যাশ লিগে (বিবিএল) মেলবোর্ন রেনেগেডসের অধিনায়ক হিসেবে গ্যাবার মাঠে নামতে দেখা যাবে তাঁকে।

২০২৪ সালের আইপিএলে এই ৩৫ বছর বয়সী ক্রিকেটার খেলবেন রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর হয়ে। অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটারদের মধ্যে থেকে অবশ্য অনেকেই আইপিএলে খেলবেন বলে প্রত্যাশা করা যাচ্ছে। মূলত আগামী বছরের জুনে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য অভিজ্ঞতা সঞ্চার করাই হবে মূল লক্ষ্য।

ম্যাক্সওয়েল বলেন,

“আইপিএল হবে সম্ভবত আমার শেষ টুর্নামেন্ট, যা আমি খেলতে চাইব। আমি ততক্ষণ পর্যন্ত আইপিএল খেলতে চাই, যতক্ষণ না আমি আর হাঁটতে পারছি না।”

“আমি বলছি, আইপিএল আসলে আমার ক্যারিয়ারের জন্য কতটা ভালো, যেসব লোকদের সাথে আমার দেখা হয়েছে, যেসব কোচদের অধীনে খেলেছি, যেসব আন্তর্জাতিক খেলোয়াড়দের সাথে কাঁধ ভাগ করেছি, আমার ক্যারিয়ারের জন্য যা ছিল বেশ উপকারী।”

অস্ট্রেলিয়ার সাদা বলের খেলোয়াড়েরা বেশ চনমনে অবস্থায় আছে, বিশ্বকাপ জয়ের পর। এর আগে প্রথমবারের মতো ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জিতেছিল দলটি। এরপর ২০২২ সালে তা অবশ্য ধরে রাখতে পারেনি, যা ইংল্যান্ড জয় করে নেয়।

তবে এবার সুযোগ এসেছে ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ জয়ের পর, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপও নিজেদের করে নেওয়ার। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসন্ন আসরটি ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও যুক্তরাষ্ট্র যৌথভাবে আয়োজন করতে যাচ্ছে।

ম্যাক্সওয়েল বলেন, “আমরা যখনই বিশ্বকাপ জিতেছি, তারপরই পরের বিশ্বকাপে মনোযোগ দেওয়ার ব্যাপারে আলোচনা শুরু হয়েছে।”

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

দুইশোর আগেই গুটিয়ে গেল বাংলাদেশ

Read Next

মুশফিককে নিয়ে মাইকেল ভনের হাস্যরস

Total
0
Share