কোহলির জোড়া রেকর্ডের দিনে ভারতের রানের পাহাড়

কোহলির জোড়া রেকর্ডের দিনে ভারতের রানের পাহাড়
Vinkmag ad

মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় স্বাগতিক ভারত। সিদ্ধান্তের যথার্থতা নিয়ে নেই কোনো প্রশ্ন। কোহলি ও আইয়ার– দুজনের ব্যাটেই এসেছে শত রান। কোহলির জন্য একটু বেশিই উদযাপনের। ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে এখন সর্বোচ্চ-সংখ্যাক সেঞ্চুরি এই ব্যাটারের। শচীনের ৪৯ টি সেঞ্চুরি পেরিয়ে কোহলির আজ পঞ্চাশে পদার্পণ।

৪০০ হয়নি ভারতের ইনিংসে, কিন্তু ৪ উইকেট হারিয়ে সেটা ৩৯৭ রান। নিউজিল্যান্ডের জন্য লক্ষ্যমাত্রা ৩৯৮ রানের। কিউইরা এই ম্যাচে জয় পেলে সেটা হবে রেকর্ডগড়া জয়। 

পাওয়ারপ্লে কাজে লাগাতে ভারতীয় দুই ওপেনার সিদ্ধহস্ত। এই বিশ্বকাপে প্রমাণ দিয়ে যাচ্ছেন বারবার। রোহিত শর্মার দ্রুতগতিতে রান তোলার অভ্যাস স্বাগতিকদের শুরুতেই বড় রানের আভাস দিতে থাকে।

এদিনও শুবমান গিল’কে সাথে নিয়ে ৮.২ ওভারেই ৭১ রান তুলেছেন রোহিত, টিম সাউদির স্লোয়ারে পরাস্ত হয়ে ক্যাচ তুলেছেন কেন উইলিয়ামসনের হাতে। ফিফটি না করেই ফিরতে হয়েছে তাঁকে। ২৯ বলে ৪৭ রান করে।

জুটি ভেঙে অবশ্য ভারত ভেঙে পড়েনি কোনো অংশেই। তিনে নামা ভিরাট কোহলি নিজের ৫০তম ওডিআই শতক করবেন, এমন আশা তো দর্শকরা করছিল। কোহলি নিজেও নিশ্চয়ই করেছেন। সেমিফাইনাল ম্যাচ, যেন মঞ্চটা প্রস্তুত ছিল এই ভারতীয় ব্যাটারের জন্য।

গিল ও কোহলি মিলে দলের রান তুলতে থাকেন সমানতালে। ১৩তম ওভার চলাকালীন ভারত দলীয় শতক পূরণ করে। গিল নিজের অর্ধশতক পূরণ করেন ৪১ বলে।

দলীয় রান ১৫০ ছাড়িয়ে যাওয়ার পর মিচেল স্যান্টনারের একড়ি ডেলিভারিতে রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠের বাইরে যেতে হয় গিলকে। ৬৫ বলে ৭৯ রানের ইনিংস আর বাড়ানোর সুযোগ পায়নি এই ব্যাটার।

দুর্দান্ত ফর্মে থাকা শ্রেয়াস আইয়ার এবার ক্রিজে। আইয়ার ও কোহলি মিলে ২৮.১ ওভারে দলীয় রান দুইশো’তে নিয়ে যায়। কোহলি তখন পঞ্চাশ পেরিয়ে ছুটছেন বড় কিছুর দিকে। ভারতের আড়াইশো ছুয়ে যায়, একইসাথে কোহলি-আইয়ার জুটিও শতক ছাড়িয়ে নেয়।

এবার যেন অপেক্ষা কোহলির কাঙ্ক্ষিত সেঞ্চুরির। শচীন টেন্ডুলকারের ৪৯তম সেঞ্চুরি ছাড়িয়ে, নিজের পঞ্চাশতম সেঞ্চুরির পথে তখন এই ব্যাটার। সেঞ্চুরি করার ঠিক আগের বলে একটি রিভিউ নেয় নিউজিল্যান্ড। তবে আজ ছিল এই ভারতীয়’র দিন।

লকি ফার্গুসনের ডেলিভারিতে ডাবল রান নিয়ে নিজের পঞ্চাশতম ওডিআই সেঞ্চুরি পূরণ করেন কোহলি। গ্যালারিতে ভাসতে থালে করতালির জোয়ার।

এরপর আর বেশিক্ষণ টিকেননি কোহলি। মাঝে এক ওভার খেলে, পরের ওভারেই সাউদির ডেলিভারিতে ক্যাচ তুলে দেন। ১১৩ বলে ১১৭ রানে তাঁর স্মরনীয় ইনিংস শেষ শেষ হয়।

এদিকে আইয়ারও তখন ফুঁসে উঠেছেন। নিজের রান বাড়িয়ে নিচ্ছেন দ্রুত। তিনিও ছুটছেন সেঞ্চুরির দিকে। লোকেশ রাহুলের সাথে বাকি অল্প পথ পাড়ি দেওয়ার প্রত্যয় নিয়ে ব্যাট করতে থাকা আইয়ার ৬৭ বলে শতক হাঁকিয়ে বসলেন। এই ব্যাটার আগের ম্যাচে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষেও পেয়েছিলেন সেঞ্চুরি।

ভারতের রান তখন ৩৫০ ছাড়িয়ে ছুটছিল আরও বেশি কিছুর আশায়। ট্রেন্ট বোল্টের ওভারে ৪ বলে ১৫ রান আসার পর, আইয়ার ক্যাচ তুলে দেন। ৭০ বলে ১০৫ রানের ইনিংস সেখানেই থামে। রাহুলের সাথে আর শেষ করা হয় না ইনিংস-খানি৷

শেষ ওভারে সূর্যকুমার যাদব ফিরেছেন ক্যাচ দিয়ে। কিন্তু রাহুলের ক্যামিও ইনিংসে ভারতের রান বেড়েছে আরও। সাউদির শেষ ওভারে আসা ১৫ রানে ভারত থামে ৩৯৭ রানে। রাহুল অপরাজিত ছিলেন ২০ বলে ৩৯ রানে।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

শচীনের ২০ বছরের পুরনো রেকর্ড ভাঙলেন কোহলি

Read Next

সেমিফাইনালে পিচ বদল নিয়ে আইসিসি’র বিবৃতি

Total
0
Share