বিশ্বকাপের আগে রিয়েলিটি চেক খুবই দরকার ছিল: সাকিব

সাকিব এশিয়া কাপ

ব্যাটিং নিয়ে সাকিবের চিন্তা বাড়ছেই। শ্রীলঙ্কার সাথে এই ম্যাচ বাদেও, প্রথম ম্যাচ বা পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচ; ব্যাটিংয়ের দায়িত্বহীনতা ভুগিয়েছে বাংলাদেশ দলকে। গতকাল (৯ সেপ্টেম্বর) ম্যাচের পর, বাংলাদেশ অধিনায়ক কথা বলেছেন ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে।

চতুর্থ উইকেট পড়ে যাওয়ার পর খেলাটা চেজ করতে হয়েছে। ভালো জুটি ছিল কিন্তু তাওহিদ হৃদয় ও মুশফিকুর রহিমকে ম্যাচ জেতানো একটা পর্যায়ে রেখে আসা উচিত ছিল, সাকিবের এমনই মত।

“২৬০ রান তাড়া করার জন্য খুবই ভালো ব্যাটিং করতে হত। আমার কাছে মনে হচ্ছিল এমন উইকেটে ২৩০-৪০ রান তাড়া করা সম্ভব। ২৬০ একটু বেশি মনে হয়েছে। তবে এই বেশিটা এত বেশি মনে হত না। রাতে যারা ব্যাটিং করেছে তারাই বলেছে যে একটু বেটার উইকেট ছিল দিনের উইকেটের চেয়ে। সেই সুযোগটা আমরা নিতে পারিনি। আমরা ২০টা রান বেশি দিয়ে ফেলেছি।”

বোলিংয়েও ২০-৩০ রান বেশি দেওয়া, এও যেন বাংলাদেশের পুরনো এক সমস্যা। কিন্তু ব্যাটিংয়ের চিন্তা যে শেষ হওয়ার নয়। এশিয়া কাপের আগের সিরিজগুলো থেকেই এই ব্যাটিংয়ে টপ অর্ডার, লোয়ার অর্ডারের সংকট দৃশ্যমান। সাকিব কী চিন্তিত?

“অবশ্যই। এটা বেশ কিছুদিন ধরেই হচ্ছে আমরা ভালো ব্যাটিং করছি না। সেই জায়গা থেকে অবশ্যই চিন্তার বিষয়। এখানে দেখার আছে যে আমরা কীভাবে এগুলো ঠিক করতে পারি। আমার কাছে মনে হয় এরকম একটা টুর্নামেন্ট বিশ্বকাপের আগে খুবই দরকার ছিল। আসলে আমাদের রিয়েলিটি চেকটা দরকার ছিল। আমার মনে হয় এটা রিয়েলিটি চেক।”

দ্বিপাক্ষিক সিরিজ ও বিশ্বকাপ নিয়ে সাকিবের দৃষ্টিভঙ্গি জানা যায় তাঁর পরের কথাতে। যেখানে সিরিজগুলোতে ভালো এবং টুর্নামেন্টে মন্দ করার এক প্রেক্ষাপট তৈরি হয়েছে।

“দ্বিপাক্ষিক সিরিজে আমরা সবসময় ভালোই করি। ২০১১ সাল থেকে সবসময় আমরা ভালো করেছি। আমাদের বড় পরীক্ষাগুলো হয় এসব টুর্নামেন্টে। যেখানে আমরা আহামরি ভালো করিনি। ০৭, ১১, ১৫, ১৯ এর সবগুলো বিশ্বকাপেই তিনটি করে ম্যাচ জিতেছি। আমরা হয়ত অনেক কথা বলতে পারি। যখনই রিয়েলিটি চেকটা হয় আমরা কিন্তু ফেইলই করেছি। একটা জিনিস ভালো ছিল বিশ্বকাপের আগে এই টুর্নামেন্টটা হয়েছে। সবাই মিলে এখন চিন্তা করবে কীভাবে এই সমস্যাগুলোর সমাধান করা যায়। তাহলে হয়ত আমাদের দলটা বেশ ভালো হবে।”

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

হৃদয়ের জন্য আফসোস করছেন অশ্বিন

Read Next

টস জেতার পর সিদ্ধান্ত ঠিকই ছিল, স্বস্তি দিয়েছে কেবল হৃদয়

Total
0
Share