বদলা নেওয়ার ম্যাচে বাংলাদেশের সামনে চ্যালেঞ্জিং টার্গেট

বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা 1

প্রথম ইনিংস শেষে বাংলাদেশ দলের জন্য লক্ষ্যমাত্রা ২৫৮ রান। লঙ্কানদের হয়ে দুই ব্যাটসম্যান পেয়েছে অর্ধশতক রান। সামারাবিক্রমা অর্ধশতক নিয়ে গেছেন নব্বইয়ের ঘরে, ফিরেছেন ৯৩ রানে। বোলারদের পক্ষে পেসাররাই মূলত দাপট দেখিয়েছেন। অপেক্ষা এখন দ্বিতীয় ইনিংসের।

টস জেতা যেন সাকিব আল হাসান নিজের ব্যক্তিগত করে নিয়েছেন। টানা চতুর্থবারের মতো টস জিতলেন এবং শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে কলম্বোর প্রেমাদাসাতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নিলেন। লঙ্কান অধিনায়ক দাসুন শানাকা টস পরবর্তী জানালেন, ব্যাটিং নেওয়ার ইচ্ছাই ছিল তাঁদের। তবে সাকিব কেন ফিল্ডিংয়ের দিকে গেলেন এদিন?

তাসকিন আহমেদের প্রথম ওভারে অবশ্য কিছুটা উত্তর মেলে। প্রথম বল ইনসাইড হয়ে উইকেটরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে যখন চার বনে গেল, তখন মনে হলো, উইকেটে বেশ মুভমেন্ট রয়েছে। যদিও প্রথম উইকেট তোলার দায়িত্ব নিয়ে নিলেন পেসার হাসান মাহমুদ, দিমুথ করুনারত্নকে ফিরিয়ে। পাওয়ারপ্লে’র প্রথম ১০ ওভার আর কোনো উইকেট পড়েনি। লঙ্কানদের রান-রেট আশানুরূপ ছিল।

পাথুম নিশানকা ও কুশল মেন্ডিস মিলে বড় জুটির আশ্বাস দিতে থাকে। অর্ধশতক ছাড়িয়ে সে জুটি ৭৪ রানে গিয়ে থামে, দারুণ বল করতে থাকা শরিফুল ইসলামের বলে লেগ বিফোরের শিকার হলেন নিশানকা। ফিরলেন ব্যক্তিগত ৪০ রান করে। তখন দলীয় রানটা ১০৮। সমস্যাটা বাঁধে তখন, যখন দলীয় ১১৭ রানে পরের উইকেটের পতন ঘটে। ব্যাটার কুশল মেন্ডিস শরিফুলের বলে ক্যাচ তুলে দিলেন। ৭৩ বলে ৫০ করে ফিরলে, লঙ্কানদের জন্য কিছুটা চাপ তৈরি হয়ে যায়।

সাদিরা সামারাবিক্রমা ও চারিথ আসালাঙ্কা মিলে সেই চাপ সামলানোর চেষ্টা করতে থাকে। কিন্তু সেই জুটিও দীর্ঘস্থায়ী হয় না। তাসকিনের ডেলিভারিতে ক্যাচ নেন অধিনায়ক সাকিব, ব্যক্তিগত ১০ রানেই ফেরেন আসালাঙ্কা। ধনঞ্জয়া ডি সিলভাও ‘স্লো স্টার্ট’ করে হাসান মাহমুদের শিকার হয়ে, ১৬ বলে ৬ রান করে ফিরলেন। শ্রীলঙ্কার দলীয় রান তখন ৫ উইকেট হারিয়ে ১৬৪।

৪৩ তম ওভার চলাকালীন লঙ্কান দল ২০০ পেরোয়। এরমধ্যে সামারাবিক্রমা তুলে নেন নিজের অর্ধ-শতক। ক্রিজে তখন তাঁর সাথে ছিলেন অধিনায়ক শানাকা। দুজনের জুটিও পঞ্চাশে চলে যায় ৪৫ তম ওভারের খেলায়। জুটিতে ভাঙন ধরান হাসান এসে। চিকি শট খেলতে গিয়ে হাসানের বলে বোল্ড হয়ে ফিরতে হয় শানাকাকে, ব্যক্তিগত ২৪ রান করে। ওভারটিতে অসাধারণ বল করে মাত্র ৪ রান দেন হাসান। দুনিথ ওয়েলালাগের সাথে ১৯ রান যোগ করলে, ওয়েলালাগে ফিরলেন রান আউট হয়ে। শেষ ওভারের শেষ বলে সামারাবিক্রমা ফিরলেন ৭২ বলে ৯৩ রান করে। ফলে শ্রীলঙ্কার ইনিংস শেষ হয় ৫০ ওভার খেলে ৯ উইকেট হারিয়ে ২৫৭ রানে।

বোলারদের পক্ষে হাসান মাহমুদ ও তাসকিন আহমেদ নিয়েছেন ৩ উইকেট। শরিফুল ইসলাম পেয়েছেন ২ টি উইকেট।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

আফ্রিদি, নাসিমকে আলাদা চোখে দেখেন শুবমান গিল

Read Next

ভারত ম্যাচের আগের রাতেই পাকিস্তানের একাদশ ঘোষণা

Total
0
Share