আগস্ট মাসের সেরা হতে দৌড়ে বাবর-শাদাব-পুরান

বাবর শাদাব পুরান

দ্য ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের ‘আইসিসি প্লেয়ার অব দ্য মান্থ’ পুরুষ বিভাগে আগস্ট মাসের মনোনয়নের শর্ট লিস্টে দুই পাকিস্তানি তারকা ও উইন্ডিজের বিস্ফোরক ব্যাটারের নাম। পুরো এপ্রিল জুড়ে অনবদ্য পারফর্ম করে তাঁরা এবার আছেন সেরা হওয়ার দৌড়ে।

২০২৩ সালের আগস্ট মাসের বিজয়ী নির্বাচনের জন্য মনোনীতদের সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রকাশ করেছে আইসিসি। যেখানে আছেন পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজম, সহ-অধিনায়ক শাদাব খান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের তারকা ব্যাটার নিকোলাস পুরান। 

এর আগে বাবর আজম দুইবার ‘আইসিসি প্লেয়ার অব দ্য মান্থ’ পুরষ্কার জিতেছেন। এবার তৃতীয় পুরষ্কারের দিকে বিশ্বের শীর্ষ ওয়ানডে ব্যাটারের চোখ। দুই অর্ধশতক এবং একটি সেঞ্চুরি সহ আগের মাস থেকে তার দুর্দান্ত ফর্ম অব্যাহত রেখেছেন। আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে বাবর বড় ইনিংস খেলতে না পারলেও পরপর দুটি অর্ধশতকের মাধ্যমে বিরল ব্যর্থতা পেছনে ফেলে দেন।

এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে নেপালের বিপক্ষে ১৩১ বলে ১৫১ রান করেছিলেন। বাবর ইতিহাসের দ্রুততম খেলোয়াড় হিসেবে ১৯টি ওডিআই সেঞ্চুরি করেন (১০২ ইনিংসে)। 

পাকিস্তানের তারকা অলরাউন্ডার শাদাব খান আগস্ট মাসে প্লেয়ার অফ দ্য মান্থ মনোনীত হওয়ার জন্য ব্যাট এবং বল দিয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছিলেন। আফগানিস্তান সিরিজ ও এশিয়া কাপে নেপালের বিরুদ্ধে ম্যাচ মিলিয়ে মোট ৪ ম্যাচে শাদাবের ঝুলিতে আসে ৮ উইকেট, ব্যাট হাতে করেন ৯৪ রান। 

নিকোলাস পুরান আগস্টে ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ে ব্যাট হাতে ছিলেন দুর্দান্ত, তার অবিশ্বাস্য পারফর্ম্যান্সেই উইন্ডিজ ছয় বছরের খরা ভেঙে দেয়। টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজ সফরকারী ভারত জিতলে ৫ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি জিতেছে ক্যারিবীয়রা। এই সিরিজে ৩৫.২০ গড়ে সর্বোচ্চ ১৭৬ রান করা নিকোলাস পুরান জিতেন সিরিজ সেরা খেলোয়াড়ের পুরষ্কার। এবার আইসিসির প্লেয়ার অব দ্য মান্থ পুরষ্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন শর্টলিস্টে। 

আইসিসি প্লেয়ার অব দ্য মান্থ এর ভোটিং প্রসেসঃ

দুই ক্যাটাগরিতে (নারী ও পুরুষ) মনোনীতরা শর্টলিস্টেড হন এক মাসে অন-ফিল্ডে তাদের পারফরম্যান্স ও মাসে তাঁদের অর্জন দিয়ে।

মনোনীতরা আইসিসির স্বাধীন ভোটিং অ্যাকাডেমি ও বিশ্বজুড়ে সমর্থকদের ভোট পান। সর্বোচ্চ ভোট পাওয়া ক্রিকেটার হন আইসিসি ক্রিকেটার অব দ্য মান্থ। ভোটিং অ্যাকাডেমি তাদের ভোট দেন ই-মেইলের মাধ্যমে, ভোটের ৯০ শতাংশ নির্ধারিত হয় তাদের ভোটের মাধ্যমে। বাকি ১০ শতাংশ থাকে সমর্থকদের আওতায়।

আইসিসি প্রতি মাসের দ্বিতীয় সোমবার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করে তাদের ডিজিটাল চ্যানেলে।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

বিশ্বকাপের জন্য শক্তিশালী স্কোয়াড ঘোষণা নেদারল্যান্ডসের

Read Next

আগের রাতে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে বিপিএলে পুরান, সঙ্গী হাসারাঙ্গা

Total
0
Share