এখনও সেরা কম্বিনেশনে খোঁজে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ম্যাচ থেকে নিয়েছে শিক্ষা

বাংলাদেশ 2

সুপার ফোরের প্রথম ম্যাচেই বাংলাদেশকে উড়িয়ে দিয়েছে পাকিস্তান। ৮ ব্যাটারদের নিয়ে একাদশ সাজালেও রান পেয়েছেন কেবল সাকিব, মুশফিক। টাইগারদের সহকারী কোচ নিক পোথাস বোলারদের কৃতিত্ব দিয়ে বললেন, ব্যাটারদের তো স্কোরবোর্ডে লড়াই করার মতো রান তুলতে হবে। এখনও নিজেদের সেরা কম্বিনেশন খুঁজে পায়নি দল। পাকিস্তান ম্যাচ থেকে শিক্ষা নিয়ে এশিয়া কাপের বাকি অংশে ভালো করতে মরিয়া বাংলাদেশ দল। 

বাংলাদেশ দলের সহকারী কোচ নিক পোথাস ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে এসে জানালেন, ভালো-করার মাঝেও টিম কম্বিনেশনের খোঁজে টিম ম্যানেজমেন্ট। এশিয়া কাপের এ পর্যন্ত যাত্রায় বাংলাদেশ ম্যাচ খেলেছে তিনটি, যার মধ্যে দুটিই হোম দল শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তানের বিপক্ষে। আফগান ম্যাচে পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হয়েছে বলে ম্যাচের ফলাফল এসেছে পক্ষে।  

পারফেক্ট কম্বিশনের খোঁজে এশিয়া কাপে তিন ম্যাচ খেলে ফেলা বাংলাদেশের পারফর্ম্যান্সে খুশি হতে পারছেন না সহকারী কোচ পোথাস,

‘আমরা এখন পর্যন্ত তিনটি ম্যাচ খেললাম, যার দুটিই হোম টিমের বিপক্ষে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ক্যান্ডিতে, পাকিস্তানের বিপক্ষে লাহোরে। হোম দলের বিপক্ষে খেলা সবসময় কঠিন চ্যালেঞ্জ। পাকিস্তানের পেস চ্যালেঞ্জ, আর আফগানিস্তান বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী স্পিন দল। আমরা ক্যান্ডিতে ভালো ব্যাট করতে পারিনি। আফগানিস্তানের বিপক্ষে আবার অনেক ভালো খেলেছি। আজ আবার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারিনি। আমাদের এখন ঠিক কম্বিনেশনটা খুঁজে বের করতে হবে। দলটা রুপান্তর প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। ধারাবাহিকতা ধরে রাখাই এখন আমাদের লক্ষ্য হওয়া উচিৎ।’

তবে বোলারদের কৃতিত্ব দিতে ভুল করলেন না পোথাস। তার বক্তব্য পরিষ্কার, বোলারদের কাজ সহজ করার জন্য ব্যাটারদের তো স্কোরবোর্ড যথেস্ট রান জমা করতে হবে। পাকিস্তান ম্যাচে টাইগার ব্যাটিং অর্ডারের ভুলগুলোও দেখিয়ে দিলেন, 

‘আমাদের বোলিং অ্যাটাক দুর্দান্ত পারফর্ম করছে। আমাদের এখন এমন রান জড়ো করতে হবে যেটা বোলাররা ডিফেন্ড করতে পারবে। এটা করতে পারলে ব্যাপারটা দারুণ হবে। গত কয়েক বছরের স্পিন ও পেসের রেকর্ড কিন্তু বাংলাদেশের পক্ষে কথা বলছে। ব্যাটিংয়ে আজ ডিসিশন মেকিংয়ে সমস্যা ছিল। আমরা সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারিনি যেটা এই কন্ডিশনে প্রয়োজন ছিল। তবে দল যখন ট্রানজিশনের মধ্যে থাকে, এমনটা হতে পারে।’

‘টস জিতে ব্যাট করতে নামলে অবশ্যই আপনি ভালো একটা স্কোর জড়ো করতে চাইবেন। আমাদের ইনিংসকে আরও গভীরে নিয়ে যেতে হতো, আরও রান করতে হতো। তবে ক্রিকেটের নেচারই এমন, বড় দলের বিপক্ষে খেলতে গেলে এমন হতেই পারে। এত সহজ হলে তো সব দলই ভালো করত।’

বিশ্বকাপের আগে যেহেতু এশিয়া কাপ, তাই সব দলই তাদের সেরা কম্বিনেশন ও ছন্দ ফিরে পেতে মরিয়া। নিক পোথাস বলেন, ‘এই সমস্যাটায় সব দলই ভুগছে। এশিয়া কাপের সব দলই বিশ্বকাপের আগে ছন্দ খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করছে। ব্যাটার বোলার দুই পক্ষই এডভান্টেজ নিতে চাইছে। পুরো ক্রিকেট দুনিয়াই এখন এই চেষ্টা করছে।’

পাকিস্তান এখন ওয়ানডে র‍্যাংকিংয়ের এক নম্বর দল। তাদের বিপক্ষে তাদের মাঠেই খেলা বাংলাদেশের জন্য বড় অভিজ্ঞতা। নিক পোথাসের মতে, লাহোর থেকে শিক্ষা নিয়ে এশিয়া কাপের বাকি অংশে ভালো করতে চাইবে তার দল, 

‘পাকিস্তানে আমরা খুব বেশি খেলিনি। এই দলটা এ মুহূর্তে আত্মবিশ্বাসে টইটম্বুর, র‍্যাংকিংয়েও সবার শীর্ষে। তারা খেলেও বিশ্বের সেরা দলের মতো। ম্যাচ আবার ওদের মাঠে, যেখানে ওরা সবার সেরা। ভিন্ন কন্ডিশন যেকোনো দলের জন্যই কঠিন। এটা আমাদের অভিজ্ঞতা বাড়াবে। আমরা শিক্ষা নিয়ে আরও ভালো খেলার চেষ্টা করব।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

আমরা শুরুতেই হেরেছি: সাকিব

Read Next

হারিসের লক্ষ্যই ছিল, শুরুতে উইকেট নিয়ে বাংলাদেশকে চাপে ফেলা

Total
0
Share