সিডন্সের অধীনে ব্যাটসম্যান হিসেবে উন্নতি করেছিঃ তামিম

featured photo1 1 64
Vinkmag ad

চন্ডিকা হাথুরুসিংহের অধীনে বাংলাদেশ দলের সাফল্যের গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী। দেশে অথবা দেশের বাইরে টাইগারদের পারফরম্যান্স নজর কেড়েছে ক্রিকেট দুনিয়ার। তবে ২০০৭ থেকে ২০১১ পর্যন্ত টাইগারদের কোচ জেমি সিডন্স বাংলাদেশ দলের ভিত্তিটা গড়ে দিয়ে গেছেন বলে মনে করছেন দেশ সেরা সেরা ওপেনার তামিম ইকবাল।

তামিম মনে করেন, সিডন্সের কোচিং দক্ষতায় বাংলাদেশ দলের আমূল পরিবর্তন হয়। ২০০৭ সালে যখন সিডন্স কোচের দায়িত্ব পালন করেছিলেন তখন দলটি তেমন অভিজ্ঞ ছিল না। চুক্তির চার বছর থাকাকালীন সিডন্স টাইগারদের ধারাবাহিক পারফরম্যান্সের সফলতা না দেখলেও চলে যাওয়ার পর তার কোচিংয়ের সুফল পাওয়া শুরু করে বাংলাদেশ।

tamim 2 1

জনপ্রিয় ক্রিকেট ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তামিম জানান, ‘আমরা একটা কথা বলি যে আপনি তাৎক্ষণিকভাবে কঠোর পরিশ্রমের ফলাফল পাবেন না। আপনি কিছু সময় পরে এটির সুফল পেতে পারেন। জেমি দুর্ভাগা ছিলেন যে তিনি সব কঠোর পরিশ্রম করেছিলেন কিন্তু সফলতার স্বাদ পেতে পারেননি।’

অভিষেকের পর থেকে সিডন্সের দায়িত্বরত অবস্থায় নিজেকে ব্যাটসম্যান হিসেবে গড়ে তুলেছেন তামিম। টাইগার ড্যাশিং ওপেনার জানান, ‘২০০৭ থেকে ২০১০ সালের মধ্যে জেমি সিডন্সের অধীনে ব্যাটসম্যান হিসেবে নিজের উন্নতি করেছি। আমরা সর্বদা মনে করতাম যে জিম, রানিং এবং ফিটনেসের উন্নতি করা হচ্ছে কঠোর পরিশ্রম। জেমি এই ধারণাটা পরিবর্তন করেন। তিনি বলেছিলেন কঠোর পরিশ্রম শুধু পাঁচ থেকে দশ কিলোমিটার দৌড়ানো বা জিমে ঘণ্টার পর ঘণ্টা সময় খরচ করা নয়। তিনি আমাদের শিখিয়েছিলেন যে কঠোর পরিশ্রম ব্যাটিং এর মধ্যেও হতে পারে।’

তামিম আরও যোগ করেন, ‘যদি একজন ব্যাটসম্যান নেট ও বোলিং মেশিনে যায় এবং কভার ড্রাইভ বা প্যাডে খেলা শুরু করে, তবে এটি সহজ পদ্ধতি। যখন একজন ব্যাটসম্যান পাঁজরের অংশের বল মোকাবেলা করার চেষ্টা করে, তখন সে কঠোর পরিশ্রম করে। তিনি আমাদের মধ্যে এধরণের পরিবর্তনটাই করে দিয়েছিলেন।’

২০০৭ সালের শেষ দিকে অস্ট্রেলিয়ার জেমি সিডন্স বাংলাদেশ কোচ হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন। সাকিব-তামিমদের প্রশিক্ষণ পদ্ধতির একটি মৌলিক পরিবর্তনের সৃষ্টি করেছিলেন সিডন্স। চুক্তির মেয়াদ শেষ হলে ২০১১ বিশ্বকাপের পর বাংলাদেশ থেকে বিদায় নেন তিনি।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ধনঞ্জয়ার সন্ধ্যায় শেষ হাসি ভারতের

Read Next

থারাঙ্গার নিষেধাজ্ঞায় ফিরছেন চান্দিমাল, থিরিমানে

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share