ধনঞ্জয়ার সন্ধ্যায় শেষ হাসি ভারতের

match report 10
Vinkmag ad

সন্ধ্যাটা নিশ্চিতভাবেই আকিলা ধনঞ্জয়ারই ছিল। ভারতের সাত ব্যাটসম্যানের ছয় জনই ছিলেন এই স্পিন জাদুকরের শিকার। তবে বিয়ের পরদিনই মাঠে নেমে দারুণ বোলিং করা ধনঞ্জয়াকে হতাশ করে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতেও জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছে সফরকারী ভারত। 

মাত্র ২২ রানের মধ্যেই সাত উইকেট হারিয়ে ফেলা ভারত তখন অপেক্ষায় পরাজয়ের। কিন্তু বিশ্বস্ত মহেন্দ্র সিং ধোনি ভুবেনেশ্বরকে সঙ্গে নিয়ে ভারতকে ম্যাচ জিতিয়েছেন তিন উইকেটে। ধোনির চেয়েও এগিয়ে ছিলেন ভুবনেশ্বর কুমার। দেখা পেয়েছেন ক্যারিয়ারের প্রথম অর্ধশতকের।

india2
ধোনি আর ভুবেনশ্বেরের ব্যাটেই ভারতের শেষ রক্ষা!

প্রথমে ব্যাট করা শ্রীলঙ্কা নির্ধারিত ৫০ ওভারে সংগ্রহ করেছিল ৮ উইকেটে ২৩৬ রান। বৃষ্টির বাগড়ায় ভারতের জন্য ওভার কমে দাঁড়ায় ৪৭, লক্ষ্যমাত্রা ২৩১। ১৬ বল হাতে থাকলেও সহজ ম্যাচকে কঠিন করেই জিতেছে ভারত এমনটা বলতেই হয়।

রোহিত শর্মা আর শিখর ধাওয়ানের ব্যাটে অবশ্য একবারের জন্যও মনে হয়নি এ ম্যাচেও হারতে পারে ভারত। দারুণ বোঝাপড়ায় উদ্বোধনী জুটিতেই গড়েছিলেন ১০৯ রান। শর্মা দেখা পেয়েছেন অর্ধশতকের, তবে ফিরেছেনও ফিফটির একটু পরেই। অর্ধশতক থেকে এক রান দূরে থেকে বিদায় নেন শিখর ধাওয়ানও।

ভারতীয় ইনিংসে মড়কটা লাগে ঠিক এরপরই! বল হাতে যেন অসুর হয়ে গিয়েছিলেন আকিলা ধনঞ্জয়া। এমনিতে অফস্পিনার হলেও লেগ স্পিন আর গুগলিতেও দারুণ পটু। দুসরা, ক্যারাম এগুলো তো আছেই।

sri+lanka
ধনঞ্জয়া আর লঙ্কানদের এ উল্লাস টেকেনি ম্যাচের শেষ পর্যন্ত।

তবে ভারতীয় টপঅর্ডারের তিন স্তম্ভ লোকেশ রাহুল, কেদার যাদভ আর ভিরাট কোহলি যেন এদিন হয়ে গিয়েছিলেন ‘সম্মোহিত’। ধনঞ্জয়ার গুগলির রহস্য ভেদ করতে পারেননি কেউই। ফলাফল বোল্ড হয়ে তিনজনই ফিরেছেন শিবিরে। চার বলের ব্যবধানে এই তিনজনকে ফিরিয়ে দেয়া ধনঞ্জয়া পরের দুই ওভারে তুলে নেন হার্ডিক পান্ডে আর অক্ষর প্যাটেলকেও।

ক্যারিয়ারে প্রথমবার পাঁচ উইকেট শিকারের রাতে ধনঞ্জয়ার ঝুলিতে সব মিলিয়ে গেছে ছয় উইকেট। ভারতের খোয়ানো সাত উইকেটের মধ্যে বাকি উইকেটটি নিয়েছেন সিরিবর্ধানে। তবে শ্রীলঙ্কা আর ধনঞ্জয়ার জাদু ঐ সাত উইকেট পতন পর্যন্তই।

অভিজ্ঞ মহেন্দ্র সিং ধোনি অষ্টম উইকেটে ভুবেনশ্বরকে সঙ্গে নিয়ে গড়েছেন কাঁটায় কাঁটায় ১০০ রান। লঙ্কান সিংহদের মুখের গ্রাস কেড়ে নিয়ে জয় পাওয়া ভারতের হয়ে ভুবেনশ্বর করেছেন অপরাজিত ৫৩ রান। সঙ্গে ধোনির ৪৫। দুজনই ধীরতালে খেলে একটু একটু করে দলকে নিয়েছেন জয়ের বন্দরে।

এর আগে ক্যান্ডির মাঠে টসে হেরে ব্যাট করতে নামা শ্রীলঙ্কা সিরিবর্ধানের অর্ধশতকে স্কোরবোর্ডে জড়ো করেছিল ২৩৬ রানের পুঁজি। চামারা কাপুগেদারার সঙ্গে ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে সিরিবর্ধানে গড়েছিলেন ৯১ রানের জুটি। জশপ্রীত বুমরাহ শিকার করেছেন সর্বোচ্চ চার উইকেট।

ভারতের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে যাওয়ার ম্যাচে সেরা খেলোয়াড়ের পুরষ্কার অবশ্য প্রাপ্য হাতেই গিয়েছে। আকিলা ধনঞ্জয়াই ঘোষিত হয়েছেন ম্যাচ সেরা হিসেবে।

ক্যান্ডিতেই রোববার সিরিজ জয়ের মিশনে নামবে সফরকারী ভারত আর স্বাগতিকদের লক্ষ্য থাকবে যে করেই হোক সিরিজে ফেরার। প্রথম দুই ম্যাচ হেরে নিজেদের ২০১৯ বিশ্বকাপের সরাসরি অংশগ্রহণের সম্ভাবনাকে একটু কঠিনই করে তুলেছে স্বাগতিকরা।

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ডঃ

শ্রীলঙ্কাঃ ২৩৬/৮ (৫০ ওভার) সিরিবর্ধানে ৫৮, কাপুগেদারা ৪০, ম্যাথুস ২০, মেন্ডিস ১৯। , বুমরাহ ৪/৪৩, চাহাল ২/৪৩, পান্ডিয়া ১/২৪

ভারতঃ (লক্ষ্যমাত্রা ৪৭ ওভারে ২৩১) ২৩১/৭ (৪৪.২ ওভার) রোহিত ৫৪, ভুবনেশ্বর ৫৩*,  ধাওয়ান ৪৯, ধোনি ৪৫*। ধনঞ্জয়া ৬/৫৪, সিরিবর্ধানে ১/৩৯

ফলাফলঃ ভারত ৩ উইকেটে জয়ী (বৃষ্টি আইনে)।

ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ আকিলা ধনঞ্জয়া (শ্রীলংকা)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

সাকিবের চোখ পাঁচ উইকেটে

Read Next

সিডন্সের অধীনে ব্যাটসম্যান হিসেবে উন্নতি করেছিঃ তামিম

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share