লাল বলে সাকিবের সেরা পাঁচ

featured photo1 1 54
Vinkmag ad

সাকিব আল হাসান বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে অনেক অর্জনের নাম। টেস্ট ক্রিকেটে নিয়মিত পাঁচ উইকেট পাওয়া, টেস্ট ম্যাচে সবাইকে ছাপিয়ে ম্যান অফ দ্য ম্যাচ হওয়া, সিরিজ গুলোতে ম্যান অফ দ্যা সিরিজ, টেস্টে ক্রিকেটে নম্বর-ওয়ান অলরাউন্ডারের পুরষ্কার এসব ব্যাপারের সাথে বাংলাদেশ ক্রিকেটের পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন, দিচ্ছেন বহু আগ থেকেই।

এই অলরাউন্ডারের খেলার মান আর ধারাবাহিকতা তাঁকে নিয়ে গেছে এক নতুন উচ্চতায়, হয়েছেন দলের সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য একজন খেলোয়াড়-“দ্য ওয়ান ম্যান আর্মি”। ম্যাচের সিচুয়েশন অনু্যায়ী প্লেয়িং স্টাইল চেঞ্জ করে মাথা খাটিয়ে বোলিং করা এই ব্যাপারগুলোতে সাকিব তার পারদর্শিতা দেখিয়েছেন গত এক দশকেরও বেশি সময় ধরে।

বাংলাদেশের হয়ে সাদা পোশাকে সাকিব আল হাসানের অভিষেক হয় ২০০৭ সালে ভারতের বিপক্ষে চট্টগ্রামে। এর দেড় বছর পর অক্টোবর ২০০৮ সালে চট্টগ্রামেই নিউজিলান্ডের বিপক্ষে টেস্টে প্রথম পাঁচ বা তার বেশি উইকেট নেন। তিনি প্রথম ইনিংসে ২৫.৫ ওভার বল করে ৩৬ রানের বিনিময়ে ৭ উইকেট তুলে নিয়েছিলেন। যেটি এখন পর্যন্ত তার ক্যারিয়ারের সেরা বোলিং।

গত ১০ বছরের টেস্ট ক্যারিয়ারে সাদা পোশাকে সাকিব মাঠে নেমেছেন ৪৯টি ম্যাচে। ৪৯ ম্যাচের ৮২ ইনিংসে সাকিব শিকার করেছেন সর্বমোট ১৭৬টি উইকেট।  টেস্ট ক্রিকেটে, তিনি অস্ট্রেলিয়া ছাড়া বাকি সকল টেস্ট খেলুড়ে দেশের বিপক্ষে পাঁচ উইকেট লাভ করেছেন। তার ১৫টি পাঁচ উইকেটে লাভের মধ্যে সর্বোচ্চ ৩টি এসেছে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে।

টেস্ট ক্রিকেটে সাকিবের সেরা পাঁচটিপাঁচ উইকেট:

 তারিখ   ভেন্যু  বিপক্ষ দল  উইকেট
১৭/১০/২০০৮ চট্টগ্রাম  নিউজিল্যান্ড  ৭/৩৬
২৯/১১/২০০৮ সুপারস্পোর্ট পার্ক দক্ষিণ আফ্রিকা  ৬/৯৯
১৬/১২/২০১১ মিরপুর পাকিস্তান  ৬/৮২
২৫/১০/২০১৪ মিরপুর জিম্বাবুয়ে  ৬/৫৯
২০/১০/২০১৬ চট্টগ্রাম  ইংল্যান্ড  ৫/৮৫

 

৫০তম টেস্টে মাঠে নামার অপেক্ষায় থাকা সাকিব আল হাসানের ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ের পাঁচটিতে একটু নজর বোলানো যাকঃ

বিপক্ষঃ নিউজিল্যান্ড, ২০০৮, চট্টগ্রাম 
নিজের অলরাউন্ডার সত্ত্বাটা তখনো ঠিক মেলে ধরতে পারেননি। ২০০৮ এর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হোম সিরিজে বোলার সাকিব প্রথম ইনিংসেই তুলে নিলেন নিজের ক্যারিয়ার সেরা বোলিং ফিগার ৩৬ রানে সাত উইকেট। তার এই বোলিংয়ে ভর করেই জয়ের আশা দেখতে পাচ্ছিলো বাংলাদেশ দল। ২০১৪ সালে তাইজুল ইসলাম জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৩৯ রানে আট উইকেট নেয়ার আগ পর্যন্ত সাকিবের ফিগারটিই ছিল বাংলাদেশের হয়ে এক ইনিংসে সেরা বোলিং ফিগার।

21040527 890711794415712 293798851 n
টেস্ট ক্রিকেটে কেটে গেছে প্রায় দেড় বছর, ঝুলিতে নেই কোন পাঁচ উইকেট! কিউইদের বিধ্বস্ত করে ৩৬ রান দিয়ে ৭ উইকেট তুলে নেয়া সাকিবের উল্লাসটাই ছিল অনেক প্রাপ্তির

বিপক্ষঃ সাউথ আফ্রিকা, ২০০৮, সেঞ্চুরিয়ান
তখন সবেমাত্র “অলরাউন্ডার” সাকিব হয়ে বেড়ে উঠছেন। দেশের মাটিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সাত উইকেট নিয়ে আত্মবিশ্বাসটাও তখন বেশ ভালো। ফাস্ট বোলারদের স্বর্গ দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়ে কেমন করবেন তা নিয়ে সংশয় থাকলেও নিজের স্পিনবিষে বারবার নীল করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটসম্যানদের। সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচের ১ম ইনিংসেই ২৮ ওভার বল করে ভিলিয়ার্স,ক্যালিস,বাউচারদের নাচিয়ে ৬ উইকেট নিয়েছিলেন ৯৯ রানের বিনিময়ে।

21039786 890711971082361 648189871 n
দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতেই শিকার করেছেন ৬ প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানকে।

 বিপক্ষঃ পাকিস্তান, ২০১১, মিরপুর
২০১১ এর ডিসেম্বরে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে ব্যাট হাতে ১৪৪ রান করার পরে বল হাতেও ছিলেন দুর্দান্ত। ৮২ রানে ৬ উইকেট তুলে নিয়ে ঢুকে গিয়েছিলেন ইনিংসে সেঞ্চুরী এবং পাঁচ উইকেট নেয়ার সংক্ষিপ্ত তালিকায়।

21076871 890712024415689 329147363 n
পাকিস্তানের বিরুদ্ধে মিরপুরে শতকের পর ঝুলিতে পুরেছেন পাঁচ উইকেট। সতীর্থদের উষ্ণ অভ্যর্থনায় সিক্ত সাকিব আল হাসান।

বিপক্ষঃ জিম্বাবুয়ে, ২০১৪, মিরপুর

২০১৪ সালের অক্টোবরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মিরপুরে ৩ ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচেই জয় দিয়ে সূচনা করে টাইগাররা। কারণ, ১ম ইনিংসেই যে সাকিবের ঝড় বয়ে গেছে জিম্বাবুয়ে ব্যাটসম্যানদের উপর দিয়ে। প্রথম ইনিংসের ১ম দিনেই সাকিব বল করেছেন মাত্র ২৪.৫ ওভার, তার মধ্যেই জিম্বাবুয়ের ব্যাটিং লাইন-আপ বিধ্বস্ত। ৫৯ রানের বিনিময়ে শিকার করেছেন এলটন চিগুম্বুরা-মাসাকাদজাদের ৬টি উইকেট।

21015508 890712091082349 2113722839 n
নিষেধাজ্ঞা শেষ করে মিরপুরে ফিরেছিলেন বেশ কিছুদিন পর। ফিরেই টপাটপ ছয় জিম্বাবুইয়ানকে শিকার বানিয়েছিলেন নিজের। 

বিপক্ষঃ ইংল্যান্ড, ২০১৬, চট্টগ্রাম 

চট্টগ্রাম টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে জো রুটকে আউট করে প্রথম বাংলাদেশি বোলার হিসেবে ১৫০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করেন বাঁ হাতি এই স্পিনার। তারপর বেন ডাকেট, মঈন আলী ও বেন স্টোকসের ইনিংসের ইতি টেনে দেন সাকিব। তৃতীয় দিনের চা বিরতির পর আদিল রশিদকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলে পাঁচ উইকেটের কোটা পূরণ করেন। আর এটা নিয়ে ক্যারিয়ারে ১৫ বার পাঁচ উইকেট পেলেন সাকিব।

21076525 890712301082328 744827969 n
১৫তম বারের মত টেস্টে পাঁচ উইকেট শিকার!

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

বন্যাদূর্গতদের পাশে বিপিএল

Read Next

প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ-ভারত হুইলচেয়ার সিরিজ

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share