১০ ম্যাচ খেলে এই প্রথম দিল্লি ক্যাপিটালসের উন্নতি

১০ ম্যাচ খেলে এই প্রথম দিল্লি ক্যাপিটালসের উন্নতি
Vinkmag ad

টানা পাঁচ ম্যাচ হারের পর টুর্নামেন্টে টিকে থাকা না থাকাটাই বড় প্রশ্ন ছিল দিল্লি ক্যাপিটালসের জন্য। পরের পাঁচ ম্যাচের চার ম্যাচে জয় নিয়ে এখনো প্লে অফের আশা বাঁচিয়ে রেখেছে দিল্লি। রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরকে ৭ উইকেটে হারিয়ে এই প্রথম পয়েন্ট টেবিলের ১০ নম্বর পজিশন থেকে ১ ধাপ এগিয়ে ৯ এ উঠে আসল দিল্লি ক্যাপিটালস।

দিল্লিতে টস জিতে ডেভিড ওয়ার্নারদের বোলিংয়ে স্বাগত জানায় ফাফ ডু প্লেসিস। কোহলি-প্লেসিস জুটি বরাবরের মতোই ভালো শুরু এনে দেয় ফ্র্যাঞ্চাইজিটিকে। উদ্বোধনী জুটি থেকে আসে ৮২ রান। ফাফ ডু প্লেসিস ৪৫ করে মিচেল মার্শেলের বলে আউট হলে ঠিক পরের বলেই গোল্ডেন ডাকের স্বাদ নিয়ে সাজঘরে ফেরেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল।

ভিরাট কোহলি অর্ধশতক পূরণ করে ব্যক্তিগত ৫৫ রানের মাথায় মুকেশ কুমারের বলে আউট হন। দলের সিনিয়ররা ইনিংস বড় করতে ব্যর্থ হলে রান করার দায়িত্ব নেন মহীপাল লমরর। ইনিংসের শেষ পর্যন্ত টিকে থেকে ২৯ বলে ৫৪ রান করেন। দীনেশ কার্তিক কিছু রান করার চেষ্টা করলেও মাত্র ১১ রান করে তিনিও বিদায় নেন। অনুজ রাওয়াতের ৩ বলে একটি ছক্কায় ৮ রান যোগ করলে ব্যাঙ্গালোরের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৪ উইকেটে ১৮১।

দিল্লির বোলার মিচেল মার্শ ২টি উইকেট পেলে খলিল আহমেদ এবং মুকেশ কুমারের সফলতা ১টি করে।

বিদেশি কোটায় আজ কোনো বোলার নিয়ে নামে নি দিল্লি। যা কিনা সাপেবর হয়েছে। দেশি বোলাররা যেনন রান হজম করেছে বিদেশি ব্যাটাররাও রান করে দলকে জিতিয়েছে।

দিল্লির ওপেনিং জুটি ভাঙে ডেভিড ওয়ার্নার ২২ করে আউট হলে। তবে আরেক ওপেনার ফিল সল্টের ৪৫ বলে ৮৭ রানের চোখ ধাঁধানো ইনিংস দিল্লির জয়ের ভিত গড়ে দেয়। সেই ভিতকে পুঁজি করে রাইলি রুশো এবং মিচেল মার্শ দলকে জয়ের বন্দর পর্যন্ত পৌঁছে নিয়ে যায়। মার্শের ২৬ আর রুশোর ৩৫ রানের পর আক্সার পাটেল ছক্কা মেরে ২০ বল হাতে রেখেই ৬ উইকেটের বিশাল জয় ছিনিয়ে নেয় দিল্লি ক্যাপিটালস।

ব্যাঙ্গালোরের তিন বোলার – করন শর্মা, হার্শাল পাটেল এবং জশ হ্যাজেলউড প্রত্যেকেই একটি করে উইকেট পান। দিল্লির জয়ে ম্যাচ সেরা ফিল সল্ট।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

তিন ম্যাচ পর চেন্নাইয়ের জয়, প্লে অফের সমীকরণ জমে উঠল

Read Next

পাথিরানাকে ধোনি- ‘লাল বলের ধারেকাছে যেও না’

Total
0
Share