নিজেদের পাতানো ফাঁদেই ফেসে গেল ভারত

featured photo updated v 3
Vinkmag ad

প্রথম দিনে ভারতের ব্যাটিং দেখে ব্র্যাড হগ টুইট করেছিলেন, ‘এক দিনের টেস্ট?’ তবে সেই টেস্ট গড়িয়েছে দ্বিতীয় দিনে। সেখানেও কৃতিত্বটা অজি ব্যাটারদের, ভারতের স্পিন স্বর্গে উসমান খাজার ফিফটিতে ৮৮ রানের লিডও পেয়েছিল অজিরা। কিন্তু বোলারদের দাপট আজও চলেছে ইনদোরের বাইশগজে। বিশেষ করে স্পিনারদের ঘুর্ণি রয়েছে অব্যাহত। প্রথম দিনে পড়া ১৪টি উইকেটের ১৩টিই নিয়েছিলেন স্পিনাররা আর একটি হয়েছিল রান আউট। আজও উইকেট পড়েছে ১৬টি, যেখানে ১২টি নিয়েছেন তিন স্পিনার। নাথান লায়ন একাই নিয়েছেন ৮ উইকেট।

ব্যাড হগের সেই একদিনের টেস্ট গড়িয়েছে দ্বিতীয় দিনে ঠিকই, তবে ভারতীয় ব্যাটারদের ভাগ্য বদলায়নি। অজি স্পিনারদের সামলাতে আবারও ব্যর্থ ভিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা ও চেতেশ্বর পুজারারা। নাথান লায়নের অফস্পিন ভেল্কিতে দ্বিতীয় ইনিংসে ভারত গুটিয়ে গেছে ১৬৩ রানে। ইনদোর টেস্ট জিততে তাই অজিদের সামনে লক্ষ্য এখন ৭৬ রানের।

এ যেন নিজেদের পাতানো ফাঁদেই ফেসে গেল ভারত। অস্ট্রেলিয়ার বারোটা বাজাতেই এই স্পিন নীল নকশা সাজিয়েছিল ভারত। সেই নকশাতেই নিজেরা খেল ধরা।

বৃহস্পতিবার হোলকার ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ওপেনার শুবমান গিলকে (৫) সাজঘরে ফিরিয়ে ভারতীয় শিবিরে প্রথম আঘাতটা হানেন নাথান লায়ন। এরপর দলীয় ৩২ রানে আরেক ওপেনার রোহিত শর্মাকে (১২) আউট করেন লায়ন।

তিনে নামা চেতেশ্বর পুজারা যা ছিলেন একটু ব্যতিক্রম, শেষ পর্যন্ত লায়নের শিকারে পরিণত হলেও ৫৯ রানের ইনিংস খেলে ভারতের সংগ্রহ দেড়শো পার করেন তিনি। পঞ্চম উইকেটে শ্রেয়াস আইয়ারের সাথে ৩৫ রানের জুটি, যা ছিল ভারতের ইনিংসে সর্বোচ্চ রানের জুটি। আইয়ারকে (২৬) ফিরিয়ে সেই জুটি ভেঙেছিলেন মিচেল স্টার্ক।

দলীয় ৭৮ রানে রবীন্দ্র জাদেজাকে ফেরান লায়ন। এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়ে জাদেজা আউট হন ব্যক্তিগত ৭ রানে। লায়ন চতুর্থ উইকেট পেয়ে যান শ্রীকর ভরতকে বোল্ড করে। ভরত ফিরেন ৩ রান করে। লায়নের পঞ্চম শিকার আরেক অপস্পিনার রবিচন্দ্র অশ্বিন, অফস্টাম্পের আশেপাশে করা সেই ডেলিভারি আঘাত হানে অশ্বিনের প্যাডে। অশ্বিনের জন্য আশার কথা ছিল, ফিল্ড আম্পায়ার লায়নের আবেদনে সাড়া দেননি। তবে লায়ন রিভিউ নিতে দ্বিধা করেননি। সেই রিভিউতে সফল লায়ন, অশ্বিনকে ফিরিয়ে ইনিংসে পঞ্চম উইকেট পেয়ে যান এই অপস্পিনার।

এতেও কান্ত হননি লায়ন, এরপর আরো তিন ভারতীয়কে ড্রেসিংরুমের পথ দেখান তিনি। ইনিংসের ৫৭তম ওভারে জোড়া আঘাত করেন লায়ন। যেখানে তার ষষ্ঠ শিকারে পরিণত হন ভারতের ইনিংসে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ৫৯ রান করা চেতেশ্বর পুজারা। এই ওভারের পঞ্চম বলে উমেশ যাদবকে ডিপ মিড উইকেটে ক্যামেরুন গ্রিনের ক্যাচ বানান। আর ওভার তিনেক পর পেয়ে যান ইনিংসে ৮ উইকেটের দেখা। এবার তার শিকার ভারতের শেষ ব্যাটার মোহাম্মদ সিরাজ। ফলে ১৬৩ রানে গুটিয়ে যায় ভারত।

ভারতের তারকা ব্যাটারদের ব্যর্থতার দিনে সফল একজনই, তিনি আক্সার পাটেল। তাকে কেউ আউট করতে পারেননি। প্রথম ইনিংসে (১২*) অপরাজিত থাকার পাশাপাশি আজও পাটেল ছিলেন ১৫ রানে অপরাজিত।

নাথান লায়ন ২৩.৩ ওভারে ৬৪ রানে ৮ উইকেট শিকার করেন। এছাড়া ১টি করে উইকেট নেন ম্যাথু কুহনেম্যান মিচেল স্টার্কে। স্টার্কের একমাত্র শিকারটি ছিলেন ভিরাট কোহলি।

ভারত ১৬৩ রানে অলআউট হলে মাত্র ৭৫ রানের লিড পায়। তাতে অস্ট্রেলিয়ার জয়ের জন্য লক্ষ্য দাঁড়ায় ৭৬ রান।

সেই রান তাড়া করে উসমান খাজা ও স্টিভ স্মিথরা নামবে তৃতীয় দিনে।

এর আগে প্রথম দিনের ৪ উইকেটে ১৫৬ রান নিয়ে দিনের খেলা শুরু করে অস্ট্রেলিয়া। দিনের শুরুতে ভারতীয় ব্যাটারদের মতোই অসহায় ছিলেন অজির শেষ ৬ ব্যাটার। উমেশ যাদব ও রবিচন্দ্রন অশ্বিন মিলে শেষ ব্যাটারকে ফেরান মাত্র ৪১ রানের মাথায়। দুজনে মিলে সমানসংখ্যক ৩ করে উইকেট ভাগাভাগি করে নেন। ফলে ৭৬.৩ ওভারে ১৯৭ রানে গুটিয়ে যায় অজিরা।

ক্যামেরুন গ্রিন ব্যাট থেকে আসে ২১ রান, এছাড়া ১৯ রান করেন পিটার হ্যান্ডসকম্ব। আগের দিন ফিফটি করে অস্ট্রেলিয়াকে ভাল একটা অবস্থানে রেখে যান খাজা। আজ তারা টেনে নিতে ব্যর্থ হন শেষের দিকের ব্যাটাররা। খাজা করেন ৬০ রান। মার্নাস লাবুশেইন (৩১) ও স্টিভ স্মিথ করেন ২৬ রান।

ভারতের হয়ে ৭৮ রানে ৪ উইকেট নেন রবীন্দ্র জাদেজা। এছাড়া ৩টি করে উইকেট শিকার করেন অশ্বিন ও যাদব।

প্রথম দিনে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে ম্যাথু কুহনেম্যানের স্পিন বিষে মাত্র ১০৯ রানে অলআউট ভারত। মাত্র ৯ ওভারে ১৬ রানে ক্যারিয়ারের প্রথম ৫ উইকেট তুলে নেন কুহনেম্যান। আরেক স্পিনার লায়নে শিকার ৩ উইকেট। একটি পান টড মার্ফি। ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ ২২ রান করেন ভিরাট কোহলি, দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২১ রান আসে গিলের ব্যাট থেকে।

ইনদোর টেস্ট জিততে অস্ট্রেলিয়ার প্রয়োজন মাত্র ৭৬ রান। হাতে আছে পুরো দশ উইকেট। আর সেই কাজটা হয়তো খাজা-স্মিথরা সারতে চাইবেন তৃতীয় দিনের সাতসকালেই। আর সেটা হলে চার ম্যাচের বোর্ডার-গাভাস্কার সিরিজে প্রাণ ফিরে পাবে অজিরা। আর তার ব্যতিক্রম ঘটলে ভারত এক ম্যাচ হাতে রেখে পেয়ে যেতে পারে সিরিজ জয়ের স্বাদ।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

২য় ওয়ানডের বাংলাদেশ স্কোয়াডে শামীম

Read Next

যেমন হলো ডিপিএলের প্রথম দিনের দলবদল

Total
0
Share