‘অযৌক্তিক সমালোচনায় পরিবার কষ্ট পায়, খারাপ লাগে’

শান্ত ১
Vinkmag ad

নাজমুল হোসেন শান্ত এবার রানের ফোয়ারা ছোটাচ্ছেন বিপিএলে। এতো এতো ট্রল ও সমালোচনার পরও শান্ত যেভাবে পারফর্ম করে যাচ্ছেন সেটা আউট অফ দ্য বক্স। ধারাবাহিতা ধরে রেখে শান্ত আজও ৮৯ রানের হার-না-মানা ইনিংস খেলে জিতিয়েছেন সিলেট স্ট্রাইকার্সকে। ম্যাচ শেষে শান্ত বললেন, নিন্দুকের নিন্দায় তিনি এখন আর ভাবেন না। নিন্দা নয়, গঠনমূলক সমালোচনা চান শান্ত।

বাঁহাতি ওপেনার শান্ত’র ব্যাটের সুবাস ছড়িয়ে পড়েছে বিপিএল জুড়ে। দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছেন সিলেট স্ট্রাইকার্সের অন্যতম এই ব্যাটার। প্রথম চার ম্যাচে দলের জয়ে রাখেন দারুণ ভূমিকা। ৭ ম্যাচ শেষে ৫৬.২০ গড়ে মোট ২৮১ রান (৪৩*, ৪৮, ১৯, ৫৭, ১২, ১৩ ও ৮৯*) নিয়ে টেবিলের তিনে শান্ত।

বরিশালের বিপক্ষে সিলেটের জয়ের নায়ক শান্ত ম্যাচ শেষে কথা বলেছেন তাকে নিয়ে সমালোচনায় মেতে থাকা নিন্দুকদের উদ্দেশ্যে। শান্ত’র বক্তব্য, সমালোচনা করা যাবে কিন্তু পরিস্থিতি বুঝে, খারাপ খেললে তখনই। যাতে করে তার পরিবারকে ভুগতে না হয়,

‘আমি এটা বলছি না যে আমাকে নিয়ে সমালোচনা করা যাবে না। আমি খারাপ খেললে অবশ‌্যই সমালোচনা হবে। তবে আমি মনে করি আরেকটু ডিসেন্ট ওয়েতে হতে পারত। যেটা আমার পরিবারের জন‌্য ভালো হতো। এতোটুকুই।’

শান্তকে নিয়ে সমালোচনা যারা করেন তারা কি এই ধারাবাহিক শান্তকে দেখে নিজেদের মনোভাব পরিবর্তন করবেন? শান্ত’র সহজ উত্তর,

‘এটা আসলে আমি নিয়ন্ত্রণ করতে পারব না। অনেকে না জেনে, অনেকে না বুঝে হয়তো কথা বলে ফেলে। দলের পরিকল্পনা, আমার পরিকল্পনা কিংবা আমি কতটুকু হার্ড ওয়ার্ক করি সেটা হয়তো অনেকে জানে না। জানার প্রয়োজনও নেই। এটা নিয়ে আসলে যত বেশি কথা আমি বলব, কথা বলাই হবে। এটা যার যার চিন্তা ভাবনা। সে যদি বুঝে কথা বলে, জেনে কথা বলে তাহলে আমার মনে হয় ভালো।’

‘পরিবর্তন হয়ে যাচ্ছে কি না সেটা আমি বলতে পারব না। এটা যার যার চিন্তা ভাবনা থেকে বলে। আমি এটা নিয়ন্ত্রণও করত পারব না। পরিবর্তন হবে কি হবে না সেটা নিয়ে আমি খুব চিন্তিতও না। যদি হয়, আলহামদুলিল্লাহ। যদি না হয় তাও আমার কিছু করার নেই। এটা যার যার চিন্তা ভাবনা থেকেই বলে।’

শান্ত বুঝলেও তার পরিবার এসব সমালোচনা মেনে নিতে পারে না। এখানেই খারাপ লাগে শান্ত’র।

‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ‌্যমের বিষয়গুলো আমার জন‌্য যতটা কঠিন, আমার পরিবারের জন‌্য তার চেয়ে বেশি কঠিন। আমি যেভাবে বুঝি আমার পরিবারের সদস‌্যরা কিন্তু সেভাবে বোঝে না। তারা হার্ট হয়, তারাও কষ্ট পায়, খারাপ লাগে। তারাও বাইরে যায়। এই জিনিসটার জন‌্য আমি মাঝে মাঝে হতাশ হয়েছি। আমারও খারাপ লেগেছে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

পথশিশুদের নিয়ে সিলেট স্ট্রাইকার্সের অভিনব এক আয়োজন

Read Next

শান্তকে অনবদ্য বানানোর অন্যতম কারিগর সোহেল ইসলাম

Total
11
Share