খুশদিলের তান্ডবের সামনে যথেষ্ট হয়নি নাসিরের লড়াই

featured photo updated v 24
Vinkmag ad

খুশদিল শাহ’র ব্যাটিং তান্ডবের পর বোলারদের সৌজন্যে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের জয়। ঢাকা ডমিনেটরসকে ৩৩ রানে হারিয়ে হ্যাটট্রিক জয় তুলে নিল কুমিল্লা। খুশদিলের শেষবেলার ঝড়ে রীতিমতো অসহায় হয়ে পড়ে ঢাকার বোলিং লাইন। ১৫ ওভার শেষে ১০০ পূর্ণ করা কুমিল্লা বাকি পাঁচ ওভারে স্কোরবোর্ডে জমা করে ৮৪ রান। বড় লক্ষ্য তাড়ায় নেমে ১৫১ রানের বেশি করতে পারেনি ঢাকা।

ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা এবারের বিপিএলের প্রথম তিন ম্যাচে হার দেখার পর টানা তিন জয়। চট্টগ্রাম, সিলেটের পর এবার ঢাকা বধ। পাঁচ ম্যাচের মধ্যে চারটিতেই হারল নাসির হোসেনের ঢাকা। মাত্র ২৪ বল খেলে ৬৪ রান করা খুশদিল একাই গড়ে দেন ম্যাচের পার্থক্য। জবাব দিতে নেমে অধিনায়কোচিত ইনিংস খেলেও দলকে জেতাতে পারেননি নাসির। 

চট্টগ্রামে বিপিএলের ১৭তম ম্যাচে টস জিতে আগে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে ব্যাট করতে পাঠায় ঢাকার ডমিনেটরসের দলপতি নাসির হোসেন। ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই তাসকিন আহমেদ শিকার করেন লিটন দাসের উইকেট। আগের দুই ম্যাচের কুমিল্লার জয়ের নায়ক লিটন আজ হয়েছেন ডাক।

এরপর মোহাম্মদ রিজওয়ানের সঙ্গে জুটি গড়েন অধিনায়ক ইমরুল কায়েস। এই দুইয়ের ৪৭ রানের জুটি ভেঙ্গে ঢাকার শিবিরে ব্রেকথ্রু এনে দেন অধিনায়ক নাসির। ২৬ বলে ৩৩ করে ফেরত যান ইমরুল। জনসন চার্লসের ব্যাট থেকে আসে ২০ রানের ইনিংস।

এরপর রিজওয়ানকে সঙ্গে নিয়ে তান্ডব চালান খুশদিল শাহ। ইনিংসের ১৬তম ওভারে আমির হামজাকে পেয়ে ৩ ছয় ও ২ চারে ২৯ রান তুলে নেন খুশদিল শাহ। মুক্তার আলির করা পরের ওভার থেকেও আসে ২০ রান। ১৮ বলে ফিফটি হাঁকিয়ে পাক তারকা খুশদিল করলেন রেকর্ড। এবারের বিপিএলে দ্রুততম ফিফটি এখন এটিই।

ফিফটি হাঁকিয়ে আরও ভয়ংকর হয়ে উঠেন খুশদিল। তবে ১৯তম ওভারের শেষ বলে তার ঝড় থামান সৌম্য সরকার। লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ে প্যাভিলিয়নে ফেরার আগে খুশদিল শাহ’র ব্যাট থেকে আসে ৬৪ রানের অনবদ্য ইনিংস। মাত্র ২৪ বল খেলে ৭ চার ও ৫ ছক্কায় সাজান ইনিংস। শেষপর্যন্ত অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন ওপেনার মোহাম্মদ রিজওয়ান।

৪ উইকেটে ১৮৪ রান সংগ্রহ করে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। মোহাম্মদ রিজওয়ান ৪৫ বলে ফিফটি হাঁকিয়ে অপরাজিত থাকেন ৫৫ রানে।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে ফের ব্যর্থ ওপেনার সৌম্য সরকার। হয়েছেন ব্যাক টু ব্যাক ডাক। ঢাকার খেলা পাঁচ ম্যাচের মধ্যে সৌম্য একবারই ছুঁয়েছেন দুই অংকের ঘর। সৌম্য’র মতোই হাল ইংলিশ তরুণ ব্যাটার রবিন দাসের। দুই ম্যাচের দু’টিতেই হয়েছেন ডাক।

ঢাকা ডমিনেটরস টিম ম্যানেজমেন্টকে প্রতিদান দিতে ব্যর্থ রবিন। পাওয়ার-প্লে শেষের পরের বলেই রান আউটে কাটা পড়েন পাক ওপেনার আহমেদ শেহজাদ। এবারের বিপিএলে হাসছে না তার ব্যাটও। আগের ম্যাচে ডাক হয়ে ফেরা শেহজাদ আজ করেন ১৯ রান।

এরপর মোহাম্মদ মিঠুন ও অধিনায়ক নাসিরের ব্যাটে কিছুটা স্বস্তি পায় ঢাকা শিবির। তবে এই দুইয়ের ৫১ রানের জুটি ভেঙ্গে মোসাদ্দেক এনে দেন কুমিল্লাকে ব্রেকথ্রু। ৩৪ বল খেলে ৩৬ রান আসে মিঠুনের ব্যাট থেকে। এরপর আরিফুল হককে নিয়ে লড়াই চালান নাসির। ৩৬ বলে ফিফটি পূর্ণ করেন ঢাকার অধিনায়ক।

শেষপর্যন্ত অপরাজিত থেকে নাসির হোসেন খেলেছেন ৪৫ বলে ৬৬ রানের ইনিংস, তবে যথেষ্ট হয়নি সেটি। ৪ উইকেট হারিয়ে ১৫১ রানে থামে ঢাকা ডমিনেটরসের ইনিংস। নাসিরকে সঙ্গ দিয়ে ১৭ বলে ২৪ করে অপরাজিত থাকেন আরিফুল হক। 

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

দাপুটে সেঞ্চুরিতে ধোনির রেকর্ডে ভাগ বসালেন ব্রেসওয়েল

Read Next

হাথুরু আসলে অবশ্যই ভালো হবে আমাদের: সুজন

Total
1
Share