লিটনের মারকুটে ব্যাটিংয়ে কুমিল্লার প্রথম জয়

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স
Vinkmag ad

বিপিএলে হাসছে লিটন দাসের ব্যাট, অবশেষে জয়ের স্বাদ পেল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। লক্ষ্য তাড়ায় নেমে লিটনের ঝড়ো ইনিংস, রিজওয়ানের লড়াই; কুমিল্লা পেয়েছে ৬ উইকেটের রোমাঞ্চকর জয়। ঘরের দল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স কোনরকম পাত্তাই পায়নি সাগরিকায়। ২২ বলে ৪০ করা অনবদ্য লিটনের হাতেই উঠেছে ম্যাচসেরার পুরস্কার।

ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লা এবারের বিপিএলে শুরুর তিন ম্যাচ হারের পর অবশেষে দেখল জয়। ১৩৬ রানের লক্ষ্য তাড়ায় নেমে ১৫ বল হাতে রেখে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের ৬ উইকেটের জয়। দাপট দেখিয়েছেন লিটন দাস, দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে কুমিল্লার নৌকা তীরে ভেড়ান মোহাম্মদ রিজওয়ান।

এর আগে বিপিএলের ১৪ তম ম্যাচে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নামে ঘরের দল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে তারা স্কোরবোর্ডে জমা করে ১৩৫ রান। সর্বোচ্চ ৩৭ রানের অপরাজিত ইনিংস আসে অধিনায়ক শুভাগত হোমের ব্যাট থেকে।

ইনিংসের প্রথম ওভারের উইকেট হারান উসমান খান। পাঁচ বল খেলে ডাক হয়ে ফেরেন উসমান। তিনে নামা আফিফ হোসেন সঙ্গ দেন ম্যাক্স’ও ডাউডকে। প্রথম পাওয়ার-প্লের শেষ বলে বিদায় নিতে হয় আফিফকে। মুকিদুল ইসলামের হাতে বোল্ড হয়ে ফেরার আগে আফিফের ব্যাট থেকে ২১ বলে আসে ২৯ রান।

পাঁচ রান করতেই মোসাদ্দেক হোসেনের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েন উইকেটকিপার ব্যাটার ইরফান শুক্কুর। ইনিংস বড় হয়নি ম্যাক্স’ও ডাউডেরও। মোসাদ্দেকের দ্বিতীয় শিকার হয়ে ফেরার আগে ২৪ বলে ২৪ করেন তিনি। জিয়াউর রহমান (২) নিয়েছেন দ্রুত বিদায়।

দারউইশ রাসুলিও উইকেটে বেশিক্ষণ টেকেননি। তানভীর ইসলামের বলে বোল্ড হয়ে ফেরার আগে ১১ রান আসে রাসুলির ব্যাট থেকে। খুশদিলের দ্বিতীয় শিকার মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী। ইনিংসের শেষ বলে উইকেট হারান ৮ বলে ১৩ করা মেহেদী হাসান রানা।

বল হাতে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের মোসাদ্দেক হোসেন, খুশদিল শাহ ও তানভীর ইসলাম দু’টি করে উইকেট শিকার করেন।

ছোট লক্ষ্য তাড়ায় নেমে দুই ওপেনারের ব্যাটে দারুণ শুরু পায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। লিটন দাস ও মোহাম্মদ রিজওয়ানের উদ্বোধনী জুটিতে ৫৬ রান আসে স্কোরবোর্ডে। মৃত্যুঞ্জয়ের শিকার হয়ে লিটন ফিরলে ভাঙে জুটি। প্যাভিলিয়নে ফেরার আগে রীতিমতো তান্ডব চালান লিটন দাস। তার ৪০ রানের ঝড়ো ইনিংসটা সাজানো কেবল ২২ বলে; হাঁকিয়েছেন ৪ চার ও ৩ ছক্কা।

তিনে নামা অধিনায়ক ইমরুল কায়েস অবশ্য ১৫ রানের বেশি করতে পারেননি। এবারের বিপিএলে নিজের প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমেই ডাক হয়ে ফিরলেন ক্যারিবীয় ব্যাটার জনসন চার্লস। দলীয় ১২৫ রানে বিদায় নেন ২২ রান করা জাকের আলি অনিক।

কিন্তু উইকেটের আরেক প্রান্ত ধরে রেখে রিজওয়ান কুমিল্লাকে নিয়ে যান জয়ের বন্দরে। শেষবেলায় তাকে সঙ্গ দেন খুশদিল শাহ (১০*)। রিজওয়ান শেষপর্যন্ত অপরাজিত থাকেন ৩৫ রানে। ১৫ বল হাতে রেখেই ৬ উইকেটের জয় নিশ্চিত হয় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

নেতা মাশরাফির প্রশংসায় পঞ্চমুখ ইমাদ ওয়াসিম

Read Next

বাংলাদেশের সাবেক বোলিং কোচ এবার পাঞ্জাব কিংসে

Total
18
Share