ভারতের বিশ্বরেকর্ডের ম্যাচে মুখ থুবড়ে পড়ল শ্রীলঙ্কা

ভারতের বিশ্বরেকর্ডের ম্যাচে মুখ থুবড়ে পড়ল শ্রীলঙ্কা
Vinkmag ad

ওয়ানডে সিরিজটা যেন হল একপেশে, শ্রীলঙ্কার লড়াইয়ের প্রভাব ছিটেফোঁটা যেন পড়ল না বাইশগজে। টি-টোয়েন্টিতে যা’ও একটু জমিয়েছিল দাসুন শানাকার ব্যাট, ওয়ানডেতেও সেই শানাকার ব্যাটে খানিকটা লড়াই করেছিল প্রথম ম্যাচে। এরপর আর খুঁজে পাওয়া যায়নি শ্রীলঙ্কাকে। সিরিজের পুরোটায় ছিল ভারতীয় ব্যাটারদের একচ্ছত্র আধিপত্য, লঙ্কান বোলারদের নিয়ে যেন ছেলে খেলায় মেতেছিলেন ভিরাট কোহলি ও শুবমান গিলরা।

গেল বছর বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডেতে খরা কাটিয়ে সেঞ্চুরি করা ভিরাট কোহলি এই সিরিজে যেন আবির্ভূত হয়েছিলেন রান মেশিন হিসেবে। দীর্ঘদিনের হারানো সেই ছন্দ লঙ্কান বোলারদের তুলোধুনো করে ফিরিয়েছেন সিরিজের প্রথম ও শেষ ম্যাচে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে।

তৃতীয় ম্যাচে দেড়শো ছাড়ানো ইনিংস খেলার পথে ভিরাট ছাড়িয়ে গেছেন লঙ্কান সাবেক কিংবদন্তি ব্যাটার মাহেলা জয়াবর্ধনেকে। ১২,৭৫৪ রান নিয়ে লঙ্কান কিংবদন্তিকে পিছনে ফেলে তিনি এখন বিশ্বের পঞ্চম সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক। সেঞ্চুরির দিক থেকে একসময়ের সতীর্থ শচীন টেন্ডুলকারকে ছুঁতে কোহলির প্রয়োজন আরও তিনটি শতক, চারটি হলেই ছাড়িয়ে যাবেন লিটল মাস্টারকে।

ক্যারিয়ারের ৪৬তম সেঞ্চুরি করে ভিরাট গড়েছেন অনেক রেকর্ড, দেশের মাটিতে সেঞ্চুরির সংখ্যায় ছাড়িয়ে গেছেন শচীন টেন্ডুলকারকে। ভিরাটের আগে ঘরের মাঠে শচীনের সেঞ্চুরির সংখ্যা ছিল ২০টি, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ম্যাচে ১১৩ রানের ইনিংস খেলেই শচীনের পাশে নাম লিখিছিলেন কোহলি। আর তৃতীয় ম্যাচে দেড়শো ছাড়ানো ইনিংস খেলে ছাড়িয়ে গেছেন শচীনকে।

৪৬তম সেঞ্চুরিতে কোহলি গড়েছেন আরেক রেকর্ড, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এটি তার দশম সেঞ্চুরি। ক্রিকেট বিশ্বে তিনি একমাত্র ব্যাটার, যার এক প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে দশটি সেঞ্চুরি আছে। এখানেও শচীনকে ছাড়িয়েছেন কোহলি, যেখানে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৯টি সেঞ্চুরি ছিল শচীনের। শচীনের সমান ৯টি সেঞ্চুরি অবশ্য কোহলির আছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে।

কোহলির রেকর্ড ভাঙা-গড়ার দিনে সেঞ্চুরি করেছেন শুবমান গিলও। কোহলির ১১০ বলে অপরাজিত ১৬৬ আর গিলের ৯৭ বলে ১১৬, জোড়া শতকে ভারত ৫০ ওভারে ৫ উইকেটে তুলে ৩৯০ রান।

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ভারত রোহিত শর্মার সাথে ৯৫ রানের জুটি গড়েন শুবমান গিল। রোহিত শর্মাকে (৪২) সাজঘরে ফিরিয়ে সেই জুটি ভাঙেন করুণারত্নে। উদ্বোধনীয় জুটি নব্বইয়ের ঘরে থামলেও দ্বিতীয় উইকেটে শতরানের জুটি গড়েন গিল। ভিরাট কোহলির সাথে ১৩১ রানের জুটি গড়ার পথে গিল ৮৯ বলে ১১ বাউন্ডারি এবং ২ ছক্কায় করেন সেঞ্চুরি। সেঞ্চুরির পর গিল (১১৬) রানে কাসুন রাজিতা বলে বোল্ড হয়ে ফিরেন সাজঘরে।

গিলের পর আরও একটি শতক ছাড়ানো জুটি গড়েন ভিরাট কোহলি। শ্রেয়াস আইয়ারের সাথে ১০৮ রানে জুটি গড়ার পথে ৮৫ বলে ১০ বাউন্ডারি এবং ১ ছক্কায় ক্যারিয়ারের ৪৬তম ওয়ানডে সেঞ্চুরি করেন কোহলি। ৪৬তম সেঞ্চুরিকে দেড়শোতে রূপ দেন মাত্র ২১ বলের ব্যবধানে। শতককে দেড়শো করতে কোহলি হাঁকান আরও ২ বাউন্ডারি এবং ৬ ছক্কা। সেখানে ফুটে উঠে তার পেশিশক্তির ছাপ। ইনিংস শেষে ভিরাট অপরাজিত থাকেন ১১০ বলে ১৬৬ রানে।

জবাবে খেলতে নেমে মাত্র ৭৩ রানে গুটিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। মোহাম্মদ সিরাজ, মোহাম্মদ শামি ও কুলদীপ যাদবের বোলিং তোপে ৩১৭ রানের বিশাল পরাজয়ের লজ্জায় পড়ে শ্রীলঙ্কা। সিরাজ ৪টি, শামি ও কুলদীপ নেন ২টি করে উইকেট।

বিশ্ব ক্রিকেটে যা কিনা সবচেয়ে বড় ব্যবধানের হার এটি। আগে যে রেকর্ড ছিল নিউজিল্যান্ডের, ২০১৮ সালে তারা আয়ারল্যান্ডকে হারিয়েছিল ২৯০ রানে।

৩১৭ রানে রেকর্ড গড়া জয়ে ভারত ছাড়িয়ে গেছে অস্ট্রেলিয়াকে, যেকোনো প্রতিপক্ষের বিপক্ষে সর্বোচ্চ জয়ের রেকর্ড এখন ভারতের। আজ শ্রীলঙ্কা হারানোর পর অস্ট্রেলিয়ার ৯৫ ম্যাচে জয়ের রেকর্ড ভেঙেছে ভারত। এর আগে নিউজিল্যান্ডের ৯৫ ম্যাচে জয় ছিল অস্ট্রেলিয়ার, শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে সেটা ছাড়িয়ে গেছে ভারত। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ভারতের জয় এখন ৯৬টি। যা একটি দেশের বিপক্ষে সর্বোচ্চ।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

কোচ সালাউদ্দিনকে জরিমানা করল বিসিবি

Read Next

বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ড নারীদের কোচিং প্যানেলে মরনে মরকেল

Total
13
Share