‘দিলখুশ না কি জানি, চিনি না, সাকিব ভাইও চিনে না’

কাজী অনিক
Vinkmag ad

বিপিএলে নিজের প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমে বল হাতে উইকেটশূন্য থাকলেও কাজী অনিক অভিজ্ঞতার পাল্লা করেছেন ভারী। পাকিস্তানি অলরাউন্ডার খুশদিল শাহ’কে বল করতে যেয়ে অধিনায়ক সাকিবের কাছ থেকে কি শুনেন অনিক; জানালেন ম্যাচ শেষে।

কাজী অনিক নিজের প্রথম ওভারে খরচ করেন ৮ রান। আর দ্বিতীয় ওভার যখন করতে আসেন তখন উইকেটে খুশদিল শাহ ও মোসাদ্দেক হোসেন। খুশদিলকে বল করার আগে অধিনায়ক সাকিবের পরামর্শ চান কাজী অনিক।

তখন কি কথোপকথন হয়েছিল দু’জনের মধ্যে? ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসে কাজী অনিক বললেন,

‘আসলে আমি সাকিব ভাইকে প্রশ্ন করেছিলাম, আমি তো এই দিলখুশ না কি জানি, চিনি না, তো আমি ওকে কী বল করব? সাকিব ভাই বলছিলেন, আমিও তো ওরে চিনি না, তোর যেটা ভালো বল হয়, সেটাই কর।’

অনিকের করা ইনিংসের ১৫তম ওভারে খুশদিল আর মোসাদ্দেক প্রথম দুই বলে নেন দুই সিঙ্গেল। তৃতীয় বলে ছক্কা হাঁকান খুশদিল। পরের বলে সিঙ্গেল নিলে মোসাদ্দেক স্ট্রাইকে যেয়ে মারেন বাউন্ডারি। শেষের বল থেকে আসে আরও এক রান।

নিজের শেষ ওভার নিয়ে কাজী অনিকের বক্তব্য,

‘টি-টোয়েন্টিতে তো ভালো বলেও বোলাররা মার খায়, তো আমি প্যানিকড হইনি। আমাদের কোচ ফাহিম স্যার একটা কথা বলেছিলেন, যদিও প্রেসার আসে মাথা ঠাণ্ডা রাখতে হবে। আমিও ওই বিষয়টাই চিন্তা করেছি। যেসব টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছি বিপিএলে, সেসব নিয়ে চিন্তা করেছি মাঠেই। কীভাবে ভালো করা যায়, চাপ নেওয়া যাবে না।’

এবারের বিপিএলে নিজেদের প্রথম ম্যাচে সিলেট স্ট্রাইকার্সের কাছে ৬ উইকেটের হার দেখার পর টানা তিন জয় ফরচুন বরিশালের। আর তাতেই সাকিবরা জায়গা করে নিল পয়েন্ট টেবিলের দুইয়ে।

ফরচুন বরিশাল দল নিয়ে আত্মবিশ্বাসী কাজী অনিক বললেন,

‘আলহামদুলিল্লাহ। আমরা প্রথম ম্যাচটা দুর্ভাগ্যজনকভাবে হেরে গিয়েছিলাম। কিন্তু মা শা আল্লাহ আমাদের দল বেশ ভালো, সবার সঙ্গে সবার খুব ভালো একটা বন্ডিং হয়ে গেছে এত দিনে। আলহামদুলিল্লাহ, এই বন্ডিংয়ের কারণে আমরা ভালো করছি। যেমন আজকের ম্যাচে, খুব ভালো বন্ডিং ছিল আমাদের, সে কারণেই জিতেছি।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

নিষিদ্ধ হওয়ার ভয়ে মাঠে কিছু বলছে না কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স

Read Next

আফিফ, রাসুলির ঝড়ে চট্টগ্রামে উড়ে গেল ঢাকা

Total
13
Share