সাকিবের সেই বক্তব্য বিপিএলের প্রচারণায় কাজে এসেছে

বিপিএল মল্লিক
Vinkmag ad

এবারের বিপিএলে ছিল না কোনো উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। মিরপুর শেরে-ই-বাংলা স্টেডিয়ামের এলকাতেও নেই কোনো ধরণের প্রচার প্রচারণা। এ সব কিছুর কারণ হিসেবে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক জানালেন, দেশের অর্থনৈতিক মন্দা অবস্থা। উদাহরণ হিসেবে টেনেছেন, কাতার বিশ্বকাপকে। মল্লিকের মতে, সাকিবের করা সেই বক্তব্যও বিপিএলের প্রচারণায় কাজে এসেছে।

গেল দুই দিন আগেই সাকিব আল হাসান জানান বিপিএলের মান অনেক ক্ষেত্রে ডিপিএল (ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ) এর চেয়েও নিম্নমানের। সাকিব বলেন চাইলে এক দিনেও বদলে ফেলা যায় অনেক কিছু। 

বিপিএল ইস্যুতে সাকিবের দেওয়া সেই বক্তব্যও বিসিবির প্রচারণায় কাজে এসেছে।  ইসমাইল হায়দার মল্লিকের ভাষ্য,

‘আজকে যদি সাকিব এই কথাটা না বলত, তাহলে কি এতো পাবলিসিটি হতো আমাদের টুর্নামেন্টের। ভালো, পজিটিভ-নেগেটিভ যেকোনো জিনিসই ভালো।’

বিপিএল নিয়ে নিজেদের প্রচারণার বিষয়ে সীমাবদ্ধতার কথা জানালেন মল্লিক,

‘আমাদের দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা দেখে আমরা কিছু আয়োজন কমিয়ে এনেছি। শুরুতে আমরা চ্যালেঞ্জে ছিলাম বিপিএল করব কি করব না। আগের বিপিএলে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান করেছি এবার তো করেনি।’

‘আসলে ব্র‍্যান্ডিংয়ের বিষয়টা ব্যানারে করেনি, সোশ্যাল মিডিয়াতে করেছি। দেশের যা অর্থনৈতিক অবস্থা সেটা কিন্তু সবার বুঝতে হবে। আমরা যদি এই মুহূর্তে বাড়তি খরচ শুরু করি তা বোর্ডের জন্য ভালো হবে না। তবে প্রচারের জন্য আমি মিডিয়াকে ধন্যবাদ দিতে চাই।’

২০২৩ বিপিএলের ব্র‍্যান্ডিং ইস্যুতে কাতারের ফুটবল বিশ্বকাপের উদাহরণ টেনেছেন মল্লিক,

‘আমরা কাতার বিশ্বকাপে গিয়ে দেখেছি, স্টেডিয়ামের এরিয়া ছাড়া সিটি সেন্টার কিংবা কোথাও কোনো ব্যানার দেখি নাই। ব্যানার দিতে পারি কিন্তু এখন আমরা সোশ্যাল মিডিয়াতে বেশি প্রমোট করেছি। আমাদের কাভারেজ ফেসবুকে ১ কোটি ৪০ লাখের মতো। এই ১ কোটি ৪০ লাখকে ধরলে আমাদের ৬ কোটি কাভারেজ হয়ে যাবে। খুব কম খরচে আমরা চিন্তা করেছি কিভাবে স্মার্টলি প্রচারণা করা যায়।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

সাকিবকে বিপিএলের সিইও’র দায়িত্ব দিতে চায় গভর্নিং বডি

Read Next

ম্যাচ সেরা রাজা বললেন, উইকেট থেকে বোলাররা সুবিধা পাননি

Total
13
Share