করাচিতে জয়ের লক্ষ্যে নেমে ধাক্কা খেল পাকিস্তান

করাচিতে জয়ের লক্ষ্যে নেমে ধাক্কা খেল পাকিস্তান
Vinkmag ad

করাচি টেস্টের চতুর্থ দিনটা বোলারদের বলাই যায়, যেখানে প্রথম তিন দিনে উইকেট পড়েছিল ১৯টি, সেখানে আজ একদিনেই উইকেট পড়েছে ৭টি। টেস্ট ক্রিকেটে এমনটা হওয়া স্বাভাবিক, খেলা যত গড়ায়, সময় যত যায় তার সাথে সাথে উইকেটের আচরণও বদলায়। টেস্ট ক্রিকেটে চতুর্থ দিনে তাই ব্যাটারদের কঠিন পরীক্ষা দিতে হয়, উইকেটের সুবিধা কাজে লাগিয়ে ব্যাটারদের বিপাকে ফেলে বোলাররা।

যেমনটা হয়েছে আজ করাচি জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে, দিনের প্রথম ওভারে আবরারকে ফিরিয়ে পাকিস্তান ৪০৮ রানে থামান ইশ সৌধি। আবরারের দ্রুত প্রস্থানে ১২৫ রানে অপরাজিত থেকেই মাঠ ছাড়তে সাউদ শাকিলকে।

৪১ রানে এগিয়ে থেকে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে কিউইরা ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান ডেভন কনওয়েকে হারায়। মীর হামজার দারুণ এক ডেলিভারিতে বোল্ড হয়ে কনওয়ে সাজঘরে ফিরেন রানের খাতা খোলার আগেই। তবে কনওয়ের বিদায়ের পর টম লাথাম ও কেন উইলিয়ামসনের ব্যাটে শতরানের এক জুটি পায় নিউজিল্যান্ড।

লাঞ্চের পর লাথাম ও উইলিয়ামসনের শতরানের জুটি লাথামকে ফিরিয়ে ভাঙেন নাসিম শাহ। লাথাম ১০৩ বলে ১১ বাউন্ডারিতে করেন ৬২ রান। নাসিম শাহর পর আবরার আহমেদ কেন উইলিয়ামসনকে ফেরালে ১১৪ রানেই ৩ উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড। উইলিয়ামসন ফিরেন ৬ বাউন্ডারিতে ৪১ রানে। ইনিংসের ৪৩তম ওভারে হাসান আলীর শিকারে পরিণত হেনরি নিকোলাস। ফলে ১২৮ রানেই চতুর্থ উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড। পরে অবশ্যই টম ব্লান্ডেল ও মাইকেল ব্রেসওয়েলের ব্যাটে ঘুরে দাঁড়ায় সফরকারী নিউজিল্যান্ড।

পঞ্চম উইকেট জুটিতে দুজনে যোগ করেন ১২৭ রান। দলীয় ২৫৫ রানে টম ব্লান্ডেলকে (৭৪) ফিরিয়ে সেই জুটি ভাঙেন আঘা সালমান। এরপর নিউজিল্যান্ডও ইনিংস ঘোষণা করতে বেশি সময় নেয়নি। ব্রান্ডেলের বিদায়ের ৫ উইকেটে ২৭৭ রানেই ইনিংস ঘোষণা করে টিম সউদির দল। ব্রেসওয়েল অপরাজিত থাকেন ৭৪ রানে, আরেক ব্যাটার ড্যারিল মিচেলও ছিলেন ৬ রানে অপরাজিত। পাকিস্তানের হয়ে ১টি করে উইকেট শিকার করেন নাসিম শাহ, মীর হামজা, হাসান আলি, আবরার আহমেদ ও আঘা সালমান।

নিউজিল্যান্ডের প্রথম ইনিংসে ৪১ রানের লিড আর দ্বিতীয় ইনিংসে ২৭৭ রানে ইনিংস ঘোষণা করায় পাকিস্তানের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩১৯।

চতুর্থ দিনের শেষ বিকেলে সেই রান তাড়া করতে নেমে স্বাগতিকরা স্কোরবোর্ডে কোনো রান যোগ করার আগেই হারিয়েছে ২ উইকেট। ইনিংসের প্রথম ওভারে অধিনায়ক টিম সউদির বলে ওপেনার আব্দুল্লাহ সফিক এবং তৃতীয় ওভারে পঞ্চম বলে মীর হামজা ফিরেছেন শুন্য রানে।

করাচি জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শেষ পাকিস্তানের জয়ের জন্য প্রয়োজন ৩১৯ রান। ক্রিজে আছেন ওপেনার ইমাম উল হক ০ রানে। পাকিস্তানের হাতে আছে ৮ উইকেট।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

বিশ্বজুড়ে যেভাবে দেখবেন বিপিএল ২০২৩

Read Next

ম্লান আক্সার প্যাটেল, শ্রীলঙ্কার জয়ের নায়ক দাসুন শানাকা

Total
1
Share