সেপ্টেম্বরে এশিয়া কাপ, বাংলাদেশের গ্রুপে নেই ভারত-পাকিস্তান

দক্ষিণ আফ্রিকায় ইতিহাস গড়ে বাংলাদেশের স্বপ্ন এখন এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপ জয়
Vinkmag ad

এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি) এর প্রেসিডেন্ট বিসিসিআই (দ্য বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া) এর সেক্রেটারি জেনারেল জয় শাহ। বিশ্ব ক্রিকেটের গুরুত্বপূর্ণ এই ব্যক্তি সম্প্রতি ২০২৩ ও ২০২৪ এর জন্য এসিসির ক্রিকেট ক্যালেন্ডার ও পাথওয়ে স্ট্রাকচার প্রকাশ করেছে। যেখানে উল্লেখ আছে এশিয়া কাপের কথা।

২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে বাহরাইন, সৌদি আরব, ভুটান, চীন, মায়ানমার, মালদ্বীপ, থাইল্যান্ড, ইরান ও আরও দুই কোয়ালিফাইং দল নিয়ে হবে ৫০ ওভারের চ্যালেঞ্জার্স কাপ। মার্চে অঞ্চল ভিত্তিক ৮ দল নিয়ে হবে অনূর্ধ্ব-১৬ রিজিওনাল কাপ (৩৫ ওভারের)।

এপ্রিলে সংযুক্ত আরব আমিরাত, নেপাল, কুয়েত, কাতার, ওমান, হংকং, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া ও দুই কোয়ালিফাইং দল নিয়ে হবে ৫০ ওভারের প্রিমিয়ার কাপ। জুনে নারীদের ৮ দল (ভারত ‘এ’, পাকিস্তান ‘এ’, থাইল্যান্ড, বাংলাদেশ ‘এ’, শ্রীলঙ্কা ‘এ’, হংকং, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও মালয়েশিয়া) নিয়ে হবে উইমেন্স টি-টোয়েন্টি ইমার্জিং টিম এশিয়া কাপ।

জুলাইয়ে হবে পুরুষদের ইমার্জিং টিম এশিয়া কাপ (৫০ ওভারের)। যেখানে ভারত ‘এ’ দল, পাকিস্তান ‘এ’ দল, শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দল, আফগানিস্তান ‘এ’ দল, বাংলাদেশ ‘এ’ দল ও ৩ কোয়ালিফাইং দল খেলবে।

সেপ্টেম্বর মাঠে গড়াবে পুরুষদের এশিয়া কাপ। যেখানে ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ, আফগানিস্তান ছাড়াও থাকবে এক কোয়ালিফাইং দল। ভারত ও পাকিস্তানের সঙ্গে একই গ্রুপে থাকবে কোয়ালিফাইং এক দল। বাংলাদেশের গ্রুপে আছে শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তান।

অক্টোবরে বাহরাইন, সৌদি আরব, ভুটান, চীন, মায়ানমার, মালদ্বীপ, থাইল্যান্ড, ইরান ও ২ কোয়ালিফাইং দল নিয়ে হবে মেন্স অনূর্ধ্ব-১৯ চ্যালেঞ্জার্স কাপ। সংযুক্ত আরব আমিরাত, নেপাল, কুয়েত, কাতার, ওমান, হংকং, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া ও দুই কোয়ালিফাইং দল নিয়ে হবে মেন্স অনূর্ধ্ব-১৯ প্রিমিয়ার কাপ।

ডিসেম্বর ভারত, পাকিস্তান, বাংলাদেশ, আফগানিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও ৩ কোয়ালিফাইং দল নিয়ে হবে মেন্স অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ।

২০২৪ এর ফেব্রুয়ারিতে এশিয়ার অ্যাসোসিয়েট দলগুলোর মধ্যে র‍্যাংকিংয়ে ১৪ থেকে ২৩ এ থাকা দলগুলো নিয়ে হবে মেন্স টি-টোয়েন্টি চ্যালেঞ্জার কাপ। মার্চে এশিয়াতে নারী দলের মধ্যে ৯ থেকে ১৮ র‍্যাংকিংয়ে থাকা অ্যাসোসিয়েট দলগুলোর মধ্যে হবে উইমেন্স টি-টোয়েন্টি চ্যালেঞ্জার্স কাপ।

এপ্রিলে এশিয়ার অ্যাসোসিয়েট দলগুলোর মধ্যে ৬ থেকে ১৩ র‍্যাংকিংয়ে থাকা দল ও দুই কোয়ালিফাইং দল খেলবে মেন্স টি-টোয়েন্টি প্রিমিয়ার কাপ।

মে মাসে উইমেন্স টি-টোয়েন্টি প্রিমিয়ার কাপে অংশ নেবে এশিয়ার উইমেন্স অ্যাসোসিয়েট দলগুলোর মধ্যে ৫ থেকে ৮ নম্বরে থাকা দল ও দুই কোয়ালিফাইং দল। সেপ্টেম্বরে উইমেন্স টি-টোয়েন্টি এশিয়া কাপে অংশ নিবে ভারত, পাকিস্তান, বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা ও দুই কোয়ালিফাইং দল।

অক্টোবরে ভারত, পাকিস্তান, বাংলাদেশ, আফগানিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও ৩ কোয়ালিফাইং দল নিয়ে হবে মেন্স অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ।

ডিসেম্বরে ভারত ‘এ’, পাকিস্তান ‘এ’, শ্রীলঙ্কা ‘এ’, বাংলাদেশ ‘এ’, আফগানিস্তান ‘এ’ ও ৩ কোয়ালিফাইং দল নিয়ে হবে মেন্স টি-টোয়েন্টি ইমার্জিং টিম এশিয়া কাপ।

এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের সর্বোচ্চ টুর্নামেন্টে খেলার পাথওয়ে ঠিক করে দিয়েছে এসিসি। বাহরাইন, সৌদি আরব, ভুটান চীন, মায়ানমার, মালদ্বীপ, থাইল্যান্ড, ইরান ও আরও দুই দল খেলবে মেন্স চ্যালেঞ্জার্স কাপে। সেখান থেকে উইনার ও রানার আপ দল অংশ হবে মেন্স প্রিমিয়ার কাপের। যেখানে আগে থেকেই আছে সংযুক্ত আরব আমিরাত, নেপাল, কুয়েত, কাতার, ওমান, হংকং, সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়া। প্রিমিয়ার কাপে জয়ী দল খেলবে পুরুষদের এশিয়া কাপে। তাছাড়া পুরুষদের ইমার্জিং টিম এশিয়া কাপে অংশ নিতে পারবে প্রিমিয়ার কাপের উইনার, রানার আপ ও ৩য় দল। নারীদের ক্ষেত্রেও এমন পাথওয়ে নির্দিষ্ট করেছে এসিসি।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ফরচুন বরিশালে আজ যোগ দিচ্ছেন ‘৫’ ওভারসিজ

Read Next

স্মিথ-খাজার জোড়া শতকে সিডনিতে অস্ট্রেলিয়ার দাপট

Total
7
Share